৫ জন ক্রিকেটার যারা তাদের শেষ ওয়ানডেতে সর্বোচ্চ রানের ইনিংস খেলেছিলেন

প্রতিটি খেলোয়াড়ের শেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ হয়। বিশেষ করে ব্যাটসম্যানরা দুর্দান্ত পারফর্ম করে স্মরণীয় করে রাখতে চান। কিছু খেলোয়াড় রয়েছেন যারা ক্যারিয়ারের শেষ ম্যাচেও দুরন্ত ইনিংস খেলে ক্রিকেটকে বিদায় জানিয়েছেন। এই প্রতিবেদনে এমন ৫ ভারতীয় ব্যাটসম্যানের কথা বলা হয়েছে যারা তাদের শেষ ওয়ানডে ম্যাচে সর্বোচ্চ রানের ইনিংস খেলেছিলেন:

অজয় জাদেজা অনেক গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেলে ভারতীয় দলকে জিতিয়েছেন। তবে ম্যাচ ফিক্সিংয়ের কারণে তিনি পাঁচ বছরের জন্য নিষিদ্ধ হয়েছিলেন, ততদিনে তার ক্রিকেট ক্যারিয়ার প্রায় শেষ হয়ে যায়। ২০০০ সালে এশিয়া কাপে পাকিস্তানের বিপক্ষে তিনি তার শেষ ওডিআই ম্যাচে ১০৩ বলে ৯৩ রানের একটি দুর্দান্ত ইনিংস খেলেছিলেন। যদিও সেই ম্যাচটি ভারতীয় দল ৪৪ রানে পরাজিত হয়।

রঞ্জি ট্রফিতে অসাধারণ পারফর্ম করে এক তরুণ প্রতিভার আবির্ভাব ঘটে ভারতীয় দলে। তার ক্যারিয়ার খুবই সংক্ষিপ্ত ছিল। গগন খোদা মাত্র দুটি ওয়ানডে ম্যাচে ভারতীয় দলের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করেছিলেন। ১৯৯৮ সালে কোকাকোলা ত্রিদেশীয় সিরিজে গগন খোদা কেনিয়ার বিপক্ষে ১২৯ বলে ৮৯ রানের ইনিংস খেলে ভারতীয় দলকে জিতিয়ে ছিলেন এবং ম্যাচের সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হন।

সৈয়দ আবিদ আলী একজন ভারতীয় অলরাউন্ডার ছিলেন। ১৯৭৫ বিশ্বকাপে তার অলরাউন্ড পারফরম্যান্স খুবই প্রশংসনীয় ছিল। এই সময় তিনি তার ক্যারিয়ারের শীর্ষে ছিলেন। এই বিশ্বকাপে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সাত নম্বরে ব্যাটিং করতে নেমে তিনি ৯৮ বলে ৭০ রানের ইনিংস খেলেন ও দুটি উইকেট নিয়েছিলেন। যদিও এটাই ছিল তাঁর ক্যারিয়ারের শেষ ওয়ানডে ম্যাচ।

রাহুল দ্রাবিড় তিনি তার ব্যাটিং কৌশল দিয়ে সকলকে মুগ্ধ করেছেন। তার দুরন্ত পারফরম্যান্স তার ক্যারিয়ারকে দীর্ঘস্থায়ী করে। দ্রাবিড় একজন আদর্শ টেস্ট খেলোয়াড় হলেও বহু স্মরণীয় ইনিংস খেলে দলকে জিতিয়েছেন। তিনি ভারতের হয়ে ওয়ানডে ক্রিকেটে ১০ হাজারের বেশি রান করেছেন। এই প্রতিভাবান ক্রিকেটার ২০১১ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে তার শেষ ওয়ানডে ম্যাচে ৭৯ বলে ৬৯ রান করেছিলেন।