ক্রিকেটকে কলঙ্কিত করলো পাকিস্তান! লজ্জাজনক কান্ড ঘটালো বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ম্যাচে !

এশিয়া কাপ হওয়ার কথা ছিল পাকিস্তানে, কিন্তু এই জঙ্গিদের আস্তানাতে ভারতীয় দল যাবে এ কথা কল্পনাও করা যায় না, কারণ পাকিস্তানের মাটিতে ভারতীয় দলের সিকিউরিটি নিয়ে একটা প্রশ্ন থেকেই যায় যদিও পাকিস্তানের দাবি তারা যথেষ্ট সিকিউরিটি দিতে পারতো তবে পাকিস্তানের এই দাবি বিশ্বাস করা খুবই মুশকিল। কারণ ক্রিকেট বিশ্ব এখনও ভোলেনি শ্রীলংকার সাথে কি হয়েছিল। আর ভারতের আপত্তির কারণেই শেষ পর্যন্ত অর্ধেক শ্রীলঙ্কাতে এবং অর্ধেক পাকিস্তানের এই ভাবেই হচ্ছে ২০২৩ সালের এশিয়া কাপ। বুধবার লাহোরে এশিয়া কাপের ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে পাকিস্তান এবং বাংলাদেশ। আর এটি পাকিস্তানের মাটিতে এশিয়া কাপের শেষ ম্যাচ আর সেটাতেই ঘটে গেল অদ্ভুত ব্যাপার।।

পাকিস্তান এবং বাংলাদেশের এই ম্যাচটি চলতে চলতে যখন সন্ধ্যের সময় আসে তখন খুব স্বাভাবিকভাবেই লাইট জ্বালিয়ে দেওয়া হয় এবং তারপর খেলা চলছিল। অথচ সেই ম্যাচ আচমকাই বন্ধ হয়ে গেল সন্ধে ৭টা নাগাদ। বৃষ্টি না হওয়া সত্ত্বেও ম্যাচ বন্ধ করে দেওয়া হল, কেন? তার কারণ মাঠের একটি ফ্লাডলাইট হঠাৎই বন্ধ হয়ে যায় তাই খেলা বন্ধ করে দিতে হয়। যে পাকিস্তান এতদিন ভারতকে দোষারোপ করছিল যে ভারত এশিয়া কাপটা শ্রীলংকাতে কেন করাচ্ছে, শ্রীলঙ্কায় এত বৃষ্টি অথচ পাকিস্তানে করালে যে লাইট বন্ধ হয়ে যাবে, একটা টুর্নামেন্ট করার মতো ক্ষমতা তাদের নেই সেটা তারা মানতে রাজি না, এশিয়া কাপের মতো একটা রীতিমত বড় টুর্নামেন্ট যেখানে সারা এশিয়ার ক্রিকেট ভক্তরা তাকিয়ে আছে, শুধু তাই নয় বিশ্বের অসংখ্য ক্রিকেট ভক্ত তাকিয়ে থাকে ভারত পাকিস্তান ম্যাচ দেখার জন্য অথচ পাকিস্তান তাদের স্টেডিয়ামে একটা সামান্য ফ্লাড লাইট জ্বালাতে পারে না। যা স্পষ্ট করে যে এই টুর্নামেন্ট শ্রীলঙ্কাতে পরিবর্তিত করে খুব একটা ভুল কাজ কিছু করেনি ACC।

```

এ দিন স্থানীয় সময় ৬.২৬ নাগাদ (ভারতীয় সময় সন্ধে ৬.৫৬ মিনিট) মাঠের একটি ফ্লাডলাইড বন্ধ হয়ে যায়। ফলে মাঠের একটি দিক অন্ধকার হয়ে পড়ে। আম্পায়াররা ঝুঁকি নিতে চাননি। তাঁরা ম্যাচ বন্ধ করে দেন। দু’দলের ক্রিকেটারেরা কিছু ক্ষণ মাঠে দাঁড়িয়ে অপেক্ষা করার পর হতাশ হয়ে সাজঘরের দিকে হাঁটা দেন। পাকিস্তানের ক্রিকেটারদের দৃশ্যতই বিরক্ত লাগছিল। কারণ তাঁরা সবেমাত্র ইনিংস শুরু করেছিলেন।

ক্রিকেটারেরা ফিরে গেলেও আম্পায়ারেরা মাঠেই ছিলেন। তাঁরা মাঠকর্মীদের সঙ্গে কথা বলতে শুরু করেন। প্রায় ১৬ মিনিট পরে ধীরে ধীরে আলো জ্বলা শুরু করে। অবশেষে সন্ধে ৭.১২ মিনিটে খেলা শুরু হয়। তবে পাকিস্তানের ব্যাটারেরা মনঃসংযোগ ধরে ব্যাট করা শুরু করেন। নিজেদের ঘরের মাটিতে একটা টুর্নামেন্ট করার সুযোগ পেয়েছিল পাকিস্তান যেখানে কয়েকটি ম্যাচ পাকিস্তানের মাটিতে হয় আর সেটাও তারা সুষ্ঠভাবে সম্পূর্ণ করতে পারল না। একটা সামান্য লাইট পর্যন্ত তারা ঠিক মতো জ্বালিয়ে রাখতে পারে না যেখানে একটা এশিয়া কাপের মতো বড় টুর্নামেন্ট হচ্ছে।

```

পাকিস্তানে বুধবারই এশিয়া কাপের শেষ ম্যাচ। দেশের মাটিতে শেষ খেলা মাঠ পুরোপুরি ভরেনি। কিন্তু ম্যাচের মাঝে এ ধরনের ঘটনা আয়োজক দেশ হিসাবে নিঃসন্দেহে সে দেশের বোর্ডকে কিছুটা অস্বস্তিতে ফেলেছে।পাশাপাশি জানিয়ে রাখি যে রবিবারে মুখোমুখি হচ্ছে ভারত এবং পাকিস্তান আর তার আগের দিন ঠিক শনিবারে মুখোমুখি হতে চলেছে বাংলাদেশ এবং শ্রীলংকা।