সচিন,বীরু,কোহলিরা যা পারেননি,করে দেখালেন গিলরা, অজিদের বিরুদ্ধে বিরাট ইতিহাস গড়লো ভারত !

ভারত বনাম অস্ট্রেলিয়া ওয়ানডে সিরিজে ইতিমধ্যেই ভারত ১-০ ফলে এগিয়ে গিয়েছিল। মোহালিতে ম্যাচ জিতে ইন্দোরে নেমেছিল কেএল রাহুল বাহিনী। মোহালি ম্যাচ জয়ের সেই আত্মবিশ্বাস ধরা পড়ল তাদের খেলাতে। এদিন অজি বোলারদের নিয়ে রীতিমতো ছেলেখেলা করল ভারতীয় ব্যাটাররা। শুভমন গিল এবং শ্রেয়স আইয়ার এদিন দুরন্ত ফর্মে ছিলেন। দুই ব্যাটার এদিনকে শতরান হাঁকিয়েছেন। পাশাপাশি দীর্ঘদিন পর মারকুটে সূর্যকুমার যাদবকে ফিরে পেয়েছে ভারত। এদিন স্বপ্নের ফর্মে ব্যাট করেছেন তিনি। তাঁকে যোগ্য সঙ্গত দিয়েছেন অধিনায়ক কেএল রাহুল ও।

আর তাতেই নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ৩৯৯ রানের বিরাট এক স্কোর খাড়া করে ভারতীয় দল। আর এর মধ্যে দিয়েই অজিদের বিরুদ্ধে ওয়ানডেতে সর্বাধিক রানের নজির গড়েছে ভারতীয় দল।তবে অজিদের বিরুদ্ধে ওয়ানডেতে সর্বাধিক রান গড়ার নজির গড়লেও ভারতের ওয়ানডে ইতিহাসে এক ম্যাচে সর্বাধিক রান করার তালিকায় এই ইনিংস কিন্তু প্রথম পাঁচে জায়গা পায়নি। প্রথম স্থানে রয়েছে ২০১১ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ম্যাচ। সেই ম্যাচে ভারতীয় দল পাঁচ উইকেট হারিয়ে ৪১৮ রান করেছিল। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ২০০৯ সালের ভারত বনাম শ্রীলঙ্কা ম্যাচ। এই ম্যাচে ভারতীয় দল ৭ উইকেটে ৪১৪ রান করেছিল।

```

তৃতীয় স্থানে রয়েছে ২০০৭ ওয়ানডে বিশ্বকাপের ভারত বনাম বারমুডা ম্যাচ। এই ম্যাচে ভারতীয় দল ৫ উইকেট হারিয়ে ৪১৩ রান করেছিল। চতুর্থ স্থানে রয়েছে ২০২২ সালের ভারত বনাম বাংলাদেশ ম্যাচ। এই ম্যাচে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ভারতীয় দল আট উইকেটে ৪০৯ রান করেছিল। পঞ্চম স্থানে রয়েছে ২০১৪ সালের ভারত বনাম শ্রীলঙ্কা ম্যাচ । এই ম্যাচে ভারতীয় দলের স্কোর ছিল ৫ উইকেটে ৪০৪ রান। এর পাশাপাশি এটি ভারতীয় দলের ৫১ তম হোম সিরিজের জয় যা অন্য কোন দেশের নেই।

ভারতের এদিনের ইনিংসের শুরুটা ভালো হয়নি। ওপেনার রুতুরাজ গায়কোয়াড় মাত্র ৮ রান করে আউট হয়ে যান। এরপরেই ইনিংসের হাল ধরেন শুভমন গিল এবং শ্রেয়স আইয়ার। ১৬৪ বলে ২০০ রানের পার্টনারশিপ গড়েন তারা। মাত্র ৯৭ বল খেলে ১০৪ রান করেন শুভমন গিল। শ্রেয়স অন্যদিকে মাত্র ৯০ বল খেলে করে ১০৫ রান। অধিনায়ক কেএল রাহুল ৩৮ বলে ৫২ রানের ইনিংস খেলেন। তবে ইনিংসের শেষটা ভারতের হয়ে রাজকীয় ভঙ্গিমায় করেন সূর্যকুমার যাদব। মাত্র ৩৭ বল খেলে করেন ৭২ রান। একটি ওভারে চার চারটি ছক্কা হাঁকান তিনি।

```

একটা সময় ৩২০ রানের মাথায় দাঁড়িয়ে ছিল ভারতীয় দল সাথে ছিল মাত্র কয়েকটি ওভার। সেখান থেকে দাঁড়িয়ে ৪০০ রান অনেকটা দূর মনে হচ্ছিল তবে সূর্য কুমারের ইনিংস ভারত এবং অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে পার্থক্য করে দেয়, ওই জায়গায় দাঁড়িয়ে সূর্য কুমার যে অনবদ্য ইনিংস খেলেছে তা রীতিমতো প্রশংসার যোগ্য।

সব মিলিয়ে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে এই জয় দিয়ে ভারতীয় দল কনফার্ম করে দিল যে তারা বিশ্বকাপে এক নম্বর দল হিসেবে প্রবেশ করবে আর বিগত কয়েকটি বিশ্বকাপে এটাই দেখা যাচ্ছে যে দল বিশ্বকাপে আইসিসি রেংকিং এর এক নম্বর দল হিসেবে যাচ্ছে তারাই শেষ পর্যন্ত বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন হচ্ছে।