ক্রিকেটের ইতিহাসে প্রথমবার!দেরি করে স্ট্রাইক নেওয়ায় ‘টাইমড আউট’ হলেন ম্যাথিউজ,দেখুন ভিডিও

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের ইতিহাসে প্রথমবার ‘টাইমড আউট’ হলেন কোনও ব্যাটার। শুক্রবার বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ‘টাইমড আউট’ হয়ে যান অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউজ। শ্রীলঙ্কার চতুর্থ উইকেট পড়ার পর কিছুটা দেরিতে মাঠে আসেন শ্রীলঙ্কার তারকা ক্রিকেটার। তারপর হেলমেট সংক্রান্ত কিছু একটা সমস্যার জন্য নির্ধারিত সময়ের মধ্যে (প্লেয়িং কন্ডিশন অনুযায়ী, সেটা দু’মিনিট) স্ট্রাইক নিতে পারেননি। সেই পরিস্থিতিতে ‘টাইমড আউট’-র জন্য আবেদন করেন বাংলাদেশের অধিনায়ক শাকিব আল হাসান। সেই আবেদন মতো ম্যাথিউজকে আউট দেওয়া হয়। কোনও বল না খেলেই তাঁকে ড্রেসিংরুমে ফিরে যেতে হয়। যা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন পাকিস্তানের প্রাক্তন ক্রিকেটার তথা ধারাভাষ্যকার ওয়াকার ইউনিস।

‘টাইমড আউট’-র জন্য আবেদন করায় বাংলাদেশের অধিনায়ক শাকিবকে তুলোধোনা করেছেন। যদিও অনেকে শাকিবের আচরণে কোনও ভুল দেখছেন না। কারণ সেটা ক্রিকেটের নিয়মেই আছে। অর্থাৎ নন-স্ট্রাইকার এন্ডে রান-আউটের মতোও সেই বিষয়টি ক্রিকেটের নিয়মে আছে।ঠিক কী ঘটেছে ঘটনাটি? সোমবার দিল্লিতে অরুণ জেটলি ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ২৫ তম ওভারে সেই ঘটনা ঘটে। ২৪.২ ওভারে চতুর্থ উইকেট পড়ে শ্রীলঙ্কার। উইকেট নেন শাকিব। তারপর মাঠে নামেন ম্যাথিউজ। সেটা নির্ধারিত সময়ের (খেলার নিয়ম অনুযায়ী, উইকেট পড়ার দু’মিনিটের মধ্যে নয়া ব্যাটারকে প্রথম বলে খেলতে হয়) মধ্যেই ছিল। কিন্তু ক্রিজে এসে তিনি অনুভব করেন যে হেলমেটে কিছু একটা গড়বড় আছে। সম্ভবত স্ট্র্যাপ ভেঙে গিয়েছিল।

```

‘গার্ড’ না নিয়েই ডাগ-আউটের দিকে হেলমেট আনতে বলেন।তারইমধ্যে আম্পায়ারকে কিছু বলতে থাকেন শাকিব। তারপর অনফিল্ড আম্পায়ারদের সঙ্গে ম্যাথিউজের আলোচনা শুরু হয়। রীতিমতো উত্তেজিত দেখায় শ্রীলঙ্কার ক্রিকেটারকে। তিনি বোঝাতে থাকেন যে হেলমেটের স্ট্র্যাপে সমস্যা ছিল। যদিও আউট দিয়ে দেন আম্পায়াররা। সেই পরিস্থিতিতে শাকিবের সঙ্গেও কথা বলতে যান ম্যাথিউজ। শাকিবরা অবশ্য আবেদন ফেরাননি। ক্রিকেটের নিয়ম অনুযায়ী, ড্রেসিংরুমে ফিরতে হয় ম্যাথিউজকে।তাতে ম্যাথিউজ রীতিমতো ক্ষুব্ধ হন। মাঠ থেকে বেরিয়ে যাওয়ার সময় হেলমেট ছুড়ে ফেলে দেন শ্রীলঙ্কার তারকা। দেখুন ভিডিও:

https://twitter.com/aankjain/status/1721480014154096809

তারপর কিছু একটা বলতে যান। আর সেই বিষয়টি নিয়ে ধারাভাষ্যকাররাও দ্বিধাবিভক্ত হয়ে গিয়েছেন। আউটের আবেদন করায় শাকিবকে তুলোধোনা করেন ওয়াকার। তাঁর বক্তব্য, আর কিছুটা দেরি হলে আকাশ ভেঙে পড়ত না। আবার ধারাভাষ্যকারদের একাংশের বক্তব্য, শাকিব কোনও ভুল করেননি। ক্রিকেটের নিয়মে যা আছে, সেটা মেনেই করেছেন বাংলাদেশের অধিনায়ক। ম্যাথিউজয়ের বরং আরও সতর্ক হওয়ার প্রয়োজন ছিল। তিনি হেলমেট পরিবর্তন করার সময় আম্পায়ার ও শাকিবকে আগে বলতে পারতেন।

```

কারণ শেষে যখন দেরি করে ওভার শেষ করার জন্য বাংলাদেশকে ৩০ গজের বৃত্তের ভিতরে বাড়তি খেলোয়াড় রাখতে হত, তখন তো সেটা করতে হত শাকিবদের। সেইসময় ম্যাথিউজ এসে বলতেন না যে শ্রীলঙ্কা কয়েকটা রান কম নেবে।

সব মিলিয়ে চরম বিতর্কিত ঘটনা ঘটে গেল বাংলাদেশ এবং শ্রীলংকার এই ম্যাচে।