ট্রেনে যাচ্ছিলো মালদার বিখ্যাত আম! পুলিশ ধরতেই যা বের হলো…চক্ষু চড়কগাছ

স্টেশনে রাখা বস্তার পর বস্তা। ভিতরে মালদহের (Maldah) বিখ্যাত সব আম। একঝলক দেখে বোঝার উপায় নেই যে আমের আড়ালে কোনও গোপন কুকর্মের ছক রয়েছে। তেমনই পরিকল্পনা করেছিল বিহারের (Bihar)দুই যুবক। কিন্তু পুলিশের চোখ এড়ানো কি এতই সহজ? অপরাধীদের চিনে ফেলা দুঁদে তদন্তকারীরা ঠিক ছক বুঝতে পারেন।

রবিবার রাতে মালদহ স্টেশন থেকে দু’জনকে গ্রেপ্তার করল জিআরপি (GRP)। উদ্ধার ১৫ টি পেটি। তার মধ্যে মজুত ছিল নামী ব্র্যান্ডের সারি সারি মদের বোতল। মালদহ জিআরপি সূত্রে খবর, ধৃত দু’জনের নাম পঙ্কজ কুমার ও রোশন কুমার। পঙ্কজের বয়স মাত্র ১৮ বছর, রোশন ১৯ বছরের। তাদের বাড়ি বিহারের পাটনায়। মালদহ জিআরপি-র আইসি প্রশান্ত রায় জানিয়েছেন, মালদহ থেকে পাটনায় পাচারের উদ্দেশে রেলস্টেশনে আমের (Mangoes) পেটি করে মদ মজুত রাখা হয়েছিল।

পাটনা এক্সপ্রেসে ওই কার্টুনগুলি নিয়ে যাওয়া হত। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে জিআরপি তল্লাশি চালাতেই কার্টুন থেকে উদ্ধার হয় এসব। বাজেয়াপ্ত করা মদের বাজারমূল্য প্রায় ১ লক্ষ টাকা। পুলিশ সূত্রে খবর, রীতিমতো পরিকল্পনা করেই আমের আড়ালে মদ পাচারের চেষ্টা করেছিল রোশন ও পঙ্কজ। পাটনায় আরও বেশি দামে নামী ব্র্যান্ডের মদ বিক্রির কথা ভেবেছিল তারা। কিন্তু জিআরপির চোখকে ফাঁকি দিয়ে তা করা হয়নি। উলটে হাজতবাস হয়েছে সদ্য যৌবনে পা রাখা দুই যুবকের।

তবে তাদের পরিকল্পনা দেখে কিছুটা বিস্মিত তদন্তকারীরাও। আমের আড়ালে মদ নিয়ে ট্রেনে যাওয়ার মতো পাকা পরিকল্পনার নেপথ্যে অন্য কেউ বা কারা রয়েছে বলেই অনুমান তাঁদের। এই চক্রের পিছনে জড়িতদের খোঁজে শুরু হয়েছে তল্লাশি।

উদ্ধার ১৫ টি পেটি। তার মধ্যে মজুত ছিল নামী ব্র্যান্ডের সারি সারি মদের বোতল। মালদহ জিআরপি সূত্রে খবর, ধৃত দু’জনের নাম পঙ্কজ কুমার ও রোশন কুমার। পঙ্কজের বয়স মাত্র ১৮ বছর, রোশন ১৯ বছরের। তাদের বাড়ি বিহারের পাটনায়।