জাম্পা কি ওয়ার্ন হয়ে গেলেন?অবাস্তব ডেলিভারি দেখে অবাক স্মিথরা,ভাইরাল ভিডিও

ইংল্যান্ড বনাম অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ শেষ। এই সিরিজে ইংলিশ দলকে ক্লিন সুইপ করে অস্ট্রেলিয়া দল। এই সব খবরের মধ্যেই এবার আপনাদের বলি তৃতীয় ম্যাচে ঘটে যাওয়া একটি মজার ঘটনার কথা। এই ঘটনায়, অস্ট্রেলিয়ান দলের মার্নাস ল্যাবুশান সহ অজি স্পিনার অ্যাডাম জাম্পার সঙ্গে ‘প্রতারণা’ নিয়ে খুশি বলে মনে হচ্ছে।আসলে ঘটনাটি ঘটে ছিল অস্ট্রেলিয়া বনাম ইংল্যান্ডের মধ্যে একদিনের সিরিজের তৃতীয় ম্যাচের ৩০তম ওভারে।

সেই সময় বোলিং করছিলেন অজি স্পিনার অ্যাডাম জাম্পা। প্রথম দুই বলে একটি করে রান দেওয়ার পর ক্রিজে আসেন লিয়াম ডসন। এবং তিনি জাম্পার বল প্যাডেল সুইপ করার জন্য তার মন তৈরি করেছিলেন। কিন্তু বল ও ব্যাটের মধ্যে যোগাযোগ ছিল না। আর এই ঘটনা ঘটতেই এলবিডব্লিউর আবেদন করেন অজি বোলার অ্যাডাম জাম্পা। আম্পায়ার এটিকে নট আউট দেন।সেই সময়ে অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক প্যাট কামিন্সও রিভিউ নেন। আর রিভিউটি বড় পর্দায় দেখান হয়। ম্যাচের সেই মুহূর্ত দেখা গেল অফ স্টাম্পে বল মিস করছিল।

এই রিভিউ দেখে কেউ বিশ্বাস করেনি। বলার জাম্পাও অবাক হয়ে যান। যেন কোনও ভাবেই এমনটা হতে পারে না। কিন্তু মার্নাস ল্যাবুশান এই রিভিউ দেখে হাসতে থাকেন। আর এখন মার্নাস ল্যাবুশান সহ অন্যান্য অস্ট্রেলিয়ান খেলোয়াড়দের প্রতিক্রিয়া ভাইরাল হয়ে যায়। আসলে রিভিউতে এমন স্পিন দেখান হয় যা কেউই বিশ্বাস করতে পারেননি।এখন আমরা আপনাকে এই সিরিজের একটি ছোট রিক্যাপও দিচ্ছি। দেখুন সেই ভিডিও :

অস্ট্রেলিয়া এবং ইংল্যান্ডের মধ্যে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ শুরু হয়েছিল ১৭ নভেম্বর। সিরিজের প্রথম ম্যাচটি হয়েছিল অ্যাডিলেডে। এই ম্যাচে টস জিতে প্রথমে ইংল্যান্ডকে ব্যাট করতে ডাকে অস্ট্রেলিয়া।দলের হয়ে দাউদ মালানের ১৩৪ রান ছাড়া অন্য কোনও খেলোয়াড় ৫০ পেরিয়ে যেতে পারেননি। ইংল্যান্ডের ইনিংস শেষ হয় ২৮৭ রানে। জবাবে অস্ট্রেলিয়া দল চার উইকেট হারিয়ে প্রয়োজনীয় রান সংগ্রহ করে।

দুই দলই সিডনিতে দ্বিতীয় ম্যাচ খেলেছে। এই ম্যাচেও টস জিতে অস্ট্রেলিয়া প্রথমে ব্যাট করে।স্টিভ স্মিথের ৯৪ রানের সহায়তায় ৫০ ওভারে ২৮০ রান করে। জবাবে ইংল্যান্ড দল ৩৮.৫ ওভারে ২০৮ রানে গুটিয়ে যায়। এর পর মেলবোর্নে শেষ ম্যাচে সহজেই জিতেছে অস্ট্রেলিয়া। বৃষ্টিবিঘ্নিত এই ম্যাচে অস্ট্রেলিয়া ৩৫৫ রান করেছিল। এই স্কোর তাড়া করতে নেমে ১৪২ রানে গুটিয়ে যায় ইংল্যান্ড দল।