ভারতীয় দলে রোহিত কোহলির ভবিষ্যৎ নিয়ে গোপন তথ্য ফাঁস করে বি’স্ফোরক মন্তব্য রাহুল দ্রাবিড়ের!

গত টি-২০ বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে হেরে ভারত ছিটকে যাওয়ার পর থেকেই রোহিত শর্মা ও বিরাট কোহলির মতো সিনিয়র ক্রিকেটারদের সংক্ষিপ্ত ফর্ম্য়াটের ভবিষ্যৎ নিয়ে শুরু হয়ে যায় চর্চা। সেই জল্পনা আরও জোরদার হয় নিউজিল্যান্ড সফর ও শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে চলতি টি-২০ সিরিজের দলে দুই সিনিয়র তারকার নাম না থাকায়। রোহিতের চোট ছিল বটে, তবে কোহলিকে স্কোয়াডের বাইরে রাখা নিয়ে কোনও ব্যাখ্যা দেননি জাতীয় নির্বাচকরা।

পুণেতে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে সিরিজের দ্বিতীয় টি-২০ ম্যাচে ভারতীয় দল পরাজিত হওয়ার পরে সাংবাদিক সম্মেলনে দ্রাবিড় বলেন, ‘ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে (বিশ্বকাপের) সেমিফাইনালের দল থেকে মাত্র ৩-৪ জন ক্রিকেটার (শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে) আমাদের প্রথম একাদশে খেলেছে। আমরা এমন একটা পর্যায়ে রয়েছি, যেখানে আমাদের নজর রয়েছে পরবর্তী টি-২০ সাইকলে। সুতরাং, শক্তিশালী শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে খেলা আমাদের তুলনায় তরুণ দলের কাছে একটা দারুণ সুযোগ।

ভালো বিষয় হল, এই মুহূর্তে সবার নজর রয়েছে ওয়ান ডে বিশ্বকাপ ও টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে। সেই ফাঁকে এই সব ছেলেদের টি-২০’তে খেলানোর সুযোগ রয়েছে আমাদের হাতে।’দ্রাবিড় যথার্থই বলেছেন। ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল খেলা ভারতীয় দলের মাত্র চারজন ক্রিকেটার শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে সিরিজের দ্বিতীয় টি-২০ ম্যাচে মাঠে নামেন।এই চারজন ক্রিকেটার হলেন, হার্দিক পান্ডিয়া, অক্ষর প্যাটেল, সূর্যকুমার যাদব ও অর্শদীপ সিং। বোঝাই যাচ্ছে যে, টি-২০ ক্রিকেটের মূল দলটাকেই বদলে ফেলেছে ভারত।

আর এই বিষয়টা স্পষ্ট করে দিচ্ছে যে আগামী বছরের ওয়ানডে বিশ্বকাপ টাই ভারতীয় দলে কোহলি এবং রোহিতদের জন্য শেষ বিশ্বকাপ হতে পারে। কারণ টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে কোহলিরা আর থাকবে না এটাই স্বাভাবিক, ওয়ানডে ক্রিকেটে নিশ্চয়ই থাকবে তবে পরবর্তী বিশ্বকাপের পরে আর বিশ্বকাপ খেলার মত পরিস্থিতিতে রোহিত এবং কোহলির বয়স থাকবে না। কারণ পরবর্তী ওয়ানডে বিশ্বকাপ হবে ২০২৭ সালে।

পাশাপাশি জানিয়ে রাখবো যে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে দ্বিতীয় ম্যাচে পরাজিত হয়েছে ভারত আর সেই কারণে ভারত শ্রীলঙ্কা টি-টোয়েন্টি সিরিজ আপাতত সমানে সমানে রয়েছে এবং তৃতীয় ম্যাচে যে দল জিতবে সিরিজ সেই দলের।