বাংলাদেশি বোলারদের দুরমুশ করে প্রথম সেঞ্চুরি দিয়ে বিশ্বরেকর্ড শুভমান গিলের!

বাংলাদেশের বিরুদ্ধে প্রথম টেস্ট ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে ভারতীয় দল এবং এই ম্যাচ রীতিমত পকেটে পুড়ে ফেলেছে কে এল রাহুল এবং কোম্পানি। প্রথম ইনিংসে ভারতের ৪০০ রান করার পরে বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানরা সেই রানের জবাবে রীতিমত মুখ থুবড়ে পড়ে এবং ১৫০ রানে বান্ডিল হয়ে যায়। তৃতীয় ইনিংসে ব্যাট করে ইতিমধ্যে ৫০০ রানের লীড কমপ্লিট করেছে ভারতীয় ক্রিকেট দল যেখান পর্যন্ত পৌঁছানো বাংলাদেশের পক্ষে রীতিমতো কঠিন। তবে ভারতের এই দুরন্ত পারফর্মেন্সের অন্যতম কান্ডারী শুভমান গিল।জীবনের প্রথম সেঞ্চুরি দিয়ে রেকর্ড শুভমানের।

টেস্ট ক্রিকেটে প্রথম শতরান হাঁকালেন শুভমান গিল। চট্টগ্রামে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে প্রথম টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে। ভারতের লিড ইতিমধ্যেই ৫০০ পেরিয়ে গিয়েছে। চলতি বছরেই হারারেতে জিম্বাবোয়ের বিরুদ্ধে একদিনের আন্তর্জাতিকে প্রথম শতরান পান গিল। আজ মেহেদি হাসান মিরাজের ওভারের দ্বিতীয় বলে রিভার্স স্যুইপ মেরে ৯৫ থেকে ৯৯-এ পৌঁছে যান গিল। পঞ্চম বলে লং অন দিয়ে চার মেরে পূর্ণ করেন সেঞ্চুরি। এই দুরন্ত সেঞ্চুরি দিয়ে বিশ্ব ক্রিকেটের তিনি তার পদার্পণের নতুন ইতিহাস লিখে ফেললেন। ইতিমধ্যেই তাকে বিরাট কোহলি রোহিত শর্মাদের উত্তরসূরী হিসেবে মনে করা হচ্ছে।

প্রথম ইনিংসের দুরন্ত শুরু করেও একটা খারাপ শটে আউট হয়ে ফিরতে হয় ড্রেসিংরুমে তবে সেই রাগ তিনি পুষে রেখেছিলেন এবং দ্বিতীয় ইনিংসে ১১০ রানের অনবদ্য ইনিংস দিয়ে জীবনের প্রথম সেঞ্চুরি সম্পন্ন করলেন কলকাতা নাইট রাইডার্স এর এই তারকা ক্রিকেটার। প্রথম ইনিংসে ৪০ বলে কুড়ি রান করেছিলেন তবে তাইজুলের বলে তিনি সুয়ীপ মারতে গিয়ে উইকেট দিয়ে আসেন। কিন্তু দ্বিতীয় ইনিংসের জন্য তিনি সম্পূর্ণভাবে প্ল্যান করে এসেছিলেন।

প্রথম ইনিংসে একটি খুবই খারাপ শর্ট খেলতে গিয়ে আউট হয়েছিলেন তিনি তবে দ্বিতীয় ইনিংসে মোটামুটি ভাবে সেটার ভরপাই করে দিলেন। দ্বিতীয় ইনিংসের ব্যাটিং শুরু করতেই একের পর এক দুরন্ত শট খেলতে শুরু করেন তিনি। দশটি চার এবং তিনটি অনবধ্যে ছয় দিয়ে জীবনের প্রথম সেঞ্চুরি সম্পন্ন করলেন শুভমান গিল।

পাঁচশ রানের উপরে লিভ চলে যাবার পর ভারতীয় দল দ্বিতীয় ইনিংসে ডিক্লেয়ার করে ২৫৮ রানে, বাংলাদেশের জন্য টার্গেট ৫১৩ রান, যা অসম্ভব একটি ব্যাপার, ইরান পর্যন্ত যদি তারা পৌঁছতে পারে তাহলে সেটা একটা ঐতিহাসিক রেকর্ড হবে যা হওয়া রীতিমতো কঠিন।