হাওড়া স্টেশন থেকে বেরচ্ছিলেন বৃদ্ধ! RPF এর সন্দেহে আটকাতেই ব্যাগ থেকে যা বেরলো!চক্ষু চড়কগাছ

রেলপুলিশ সূত্রে খবর, গতকাল সন্ধ্যায় ডাউন শ্রী সত্য প্রশান্তি নিলায়ম হাওড়া এক্সপ্রেস হাওড়া স্টেশনের নিউ কমপ্লেক্সে পৌঁছায়। ট্রলি ব্যাগে নিয়ে এক যাত্রী সন্দেহজনক ভাবে প্লাটফর্ম দিয়ে বেরোনোর চেষ্টা করলে তাকে হাতেনাতে ধরে আরপিএফ জওয়ানরা। তার ব্যাগে যা ছিল টা দেখে চক্ষু চড়কগাছ।

হাওড়া স্টেশন থেকে উদ্ধার আড়াই কোটি টাকার বেশি অর্থ মূল্যের সোনা। আটক এক রেলযাত্রী। রেল পুলিশ সূত্রে খবর, ললিত কুমার নামে ওই ব্যক্তি তামিলনাড়ুর কোয়েম্বাটুরের বাসিন্দা। আরপিএফ এর পক্ষ থেকে সমস্ত সোনা বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে।। ধৃতের ব্যাগ তল্লাশি করলে ৫ কিলো ১৩৫ গ্রাম সোনা উদ্ধার করে আরপিএফ জওয়ানরা। যার বাজার মূল্য ২ কোটি ৬২ লক্ষ ৩৫ হাজার ৫০০ টাকা।

এছাড়াও তার কাছ থেকে নগদ ৪৭,০০০ টাকা উদ্ধার হয়। বছর ৫৭-র ললিত কুমার নামে ওই ব্যক্তি সোনার কোন প্রমাণপত্র দাখিল করতে না পারায় তাকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করে আরপিএফ এর আধিকারিকরা। আরপিএফ সূত্রে খবর ললিত কুমার নামে ওই ব্যক্তি তামিলনাড়ুর কোয়েম্বাটুরের বাসিন্দা।

তার কলকাতাতেও সোনার দোকান আছে। উড়িষ্যার ভুবনেশ্বরের দুই বড় সোনার দোকানের মালিকের কাছ থেকে সোনার অর্ডার পেয়ে দক্ষিণ ভারত থেকে সোনা নিয়ে ভুবেনেস্বরে যান। কিন্তু দুই দোকানদার অর্ডার বাতিল করেন। ফলে সে সোনা নিয়ে কলকাতায় ফেরার পথে হাওড়া স্টেশনে ধরা পড়েন।

ঘটনার ফলে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। অনেকেই অবাক হচ্ছেন যে এত মূল্যবান জিনিস এই ভাবে কতটা সাবলীলভাবে এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় ঘুরে বেড়াচ্ছে।