অজিদের কাছে দক্ষিণ আফ্রিকা হারতেই বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে বিরাট সুখবর পেল ভারত!

অস্ট্রেলিয়ার কাছে মেলবোর্ন টেস্টে দক্ষিণ আফ্রিকার হারে বিরাট স্বস্তি টিম ইন্ডিয়ার। একদিকে অস্ট্রেলিয়া যেমন বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালের দিকে আরও এক পা এগিয়ে গেল, ঠিক তেমনই খেতাবি লড়াইয়ে জায়গা করে নেওয়ার সম্ভাবনা আরও উজ্জ্বল হল ভারতের।আসলে মেলবোর্ন টেস্টে হারের পরে দক্ষিণ আফ্রিকা টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ টেবিলের চার নম্বরে নেমে যায়। অথচ তারা অস্ট্রেলিয়ায় পা দিয়েছিল লিগ টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে থেকে। আর দক্ষিণ আফ্রিকার এই অবস্থায় চরম লাভ হলো ভারতের।

ব্রিসবেনের প্রথম টেস্টে পরাজিত হয়ে দক্ষিণ আফ্রিকা তিন নম্বরে পিছলে যায়। তাদের টপকে দ্বিতীয় স্থানে উঠে আসে ভারত। এবার বক্সিং ডে টেস্টে হেরে আরও পিছিয়ে যায় প্রোটিয়া দল। এবার দক্ষিণ আফ্রিকাকে টপকে তিন নম্বরে উঠে আসে শ্রীলঙ্কা। অস্ট্রেলিয়া আপাতত ১৪ টেস্টে ৭৮.৫৭ গড়ে ১৩২ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষস্থান মজবুত করে। তাদের ফাইনালে যাওয়া কার্যত নিশ্চিত দেখাচ্ছে। ১৪ ম্য়াচে ৫৮.৯৩ গড়ে ৯৯ পয়েন্ট নিয়ে ভারত রয়েছে দ্বিতীয় স্থানে। শ্রীলঙ্কা ১০ ম্যাচে ৫৩.৩৩ গড়ে ৬৪ পয়েন্ট নিয়ে তিন নম্বরে উঠে আসে।

চার নম্বরে নেমে যাওয়া দক্ষিণ আফ্রিকার সংগ্রহে রয়েছে ১২ ম্যাচে ৫০.০০ গড়ে ৭২ পয়েন্ট। এই চার দলের বাইরে আর কারও পক্ষে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে যাওয়া কার্যত অসম্ভব দেখাচ্ছে।টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে দক্ষিণ আফ্রিকার হাতে পড়ে রয়েছে মাত্র ৩টি (অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ১টি ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে ২টি) ম্যাচ। অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে সিরিজের শেষ টেস্টেও যদি তারা হেরে বসে, তবে ভারত ঘরের মাঠে অজিদের চার টেস্টের সিরিজে যে কোনও ব্যবধানে হারালেই ফাইনালে চলে যাবে।বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের আপডেটেড পয়েন্ট টেবল:-

১) অস্ট্রেলিয়া: ম্যাচ-১৪, জয়-১০, হার-১, ড্র-৩, পয়েন্ট-১৩২, পয়েন্টের শতকরা হার- ৭৮.৫৭।২) ভারত: ম্যাচ-১৪, জয়-৮, হার-৪, ড্র-২, পয়েন্ট-৯৯, পয়েন্টের শতকরা হার- ৫৮.৯৩।৩) শ্রীলঙ্কা: ম্যাচ-১০, জয়-৫, হার-৪, ড্র-১, পয়েন্ট-৬৪, পয়েন্টের শতকরা হার- ৫৩.৩৩।৪) দক্ষিণ আফ্রিকা: ম্যাচ-১২, জয়-৬, হার-৬, ড্র-০, পয়েন্ট-৭২, পয়েন্টের শতকরা হার- ৫০.০০।

৫) ইংল্যান্ড: ম্যাচ-২২, জয়-১০, হার-৮, ড্র-৪, পয়েন্ট-১২৪, পয়েন্টের শতকরা হার- ৪৬.৯৭।৬) ওয়েস্ট ইন্ডিজ: ম্যাচ-১১, জয়-৪, হার-৫, ড্র-২, পয়েন্ট-৫৪, পয়েন্টের শতকরা হার- ৪০.৯১।৭) পাকিস্তান: ম্যাচ-১২, জয়-৪, হার-৬, ড্র-২, পয়েন্ট-৫৬, পয়েন্টের শতকরা হার- ৩৮.৮৯।৮) নিউজিল্যান্ড: ম্যাচ-৯, জয়-২, হার-৬, ড্র-১, পয়েন্ট-২৮, পয়েন্টের শতকরা হার- ২৫.৯৩।৯) বাংলাদেশ: ম্যাচ-১২, জয়-১, হার-১০, ড্র-১, পয়েন্ট-১৬, পয়েন্টের শতকরা হার- ১১.১১।