ব্রেকিং:শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ODI সিরিজ থেকে ছিটকে গেলেন ভারতের সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ ক্রিকেটার!

শ্রীলংকার বিরুদ্ধে ইতিমধ্যে টি-টোয়েন্টি সিরিজে জয়লাভ করেছে ভারত যেখানে ভালো সুযোগ দিয়েছিল বেশ কিছু যুবক ক্রিকেটারকে তবে ভারতের যে ওয়ানডে দল রয়েছে সেখানে ২০২৩ সালের বিশ্বকাপ কে লক্ষ্য করে সেই দল তৈরি হয়েছে। আর সেখানেই ভারতের সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ বোলার বেশ কিছুদিন দলের বাইরে থাকার পরে অবশেষে সুযোগ পেয়েছিলেন ৩ জানুয়ারি। ছিটকে গেলেন ৯ জানুয়ারি। শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে এক দিনের সিরিজ়ে দলে ঢোকার ৬ দিনের মাথায় আবার দল থেকে ছিটকে গেলেন ভারতের সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ বোলার ২০২৩ সালের বিশ্বকাপের জন্য।

যশপ্রীত বুমরা। ফিটনেস সংক্রান্ত কারণে তাঁকে দলের বাইরে রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছে সংবাদ সংস্থা পিটিআই। যদিও এই বিষয়ে এখনও পর্যন্ত বিসিসিআই কোনও ঘোষণা করেনি।বুমরার ছিটকে যাওয়ার খবর মনে পড়িয়ে দিচ্ছে নির্বাচক হিসাবে চেতন শর্মাকে পুনরায় নিযুক্ত করার ঘটনা। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভারতের ব্যর্থতার পরে চেতন-সহ গোটা নির্বাচক কমিটিকে বরখাস্ত করে বিসিসিআই। নতুন কমিটি নিযুক্ত করার জন্য আবেদন নেওয়া হয়। সেখানে আবার আবেদন করেছিলেন চেতন। শনিবার বিসিসিআই যে নতুন কমিটি ঘোষণা করেছে তাতে চেতন রয়েছেন। তার পরেই প্রশ্ন ওঠে, যদি চেতনকে আবার নির্বাচক করা হবে তা হলে তাঁকে বরখাস্ত করা হল কেন? তা হলে কি পুরোটাই চোখে ধুলো দেওয়ার চেষ্টা।

সেই একই প্রশ্ন উঠছে বুমরাকে ঘিরে। তাঁকে যদি শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে খেলানো হবেই না তা হলে কেন তাঁকে পরে দলে নেওয়া হল?২০২২ সালের ২৫ সেপ্টেম্বর হায়দরাবাদে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে টি-টোয়েন্টি ম্যাচের পর চোটের জন্য দল থেকে ছিটকে যান বুমরা। পিঠের চোটের জন্য খেলতে পারেননি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে। পরে নিউ জ়িল্যান্ড এবং বাংলাদেশ সফরের দলেও তাঁকে রাখা হয়নি ম্যাচ খেলার মতো ফিটনেস না থাকায়। শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে এক দিনের এবং টি-টোয়েন্টি সিরিজ়ের দলেও জায়গা হয়নি বুমরার। অথচ দাসুন শনাকার দলের বিরুদ্ধে ২০ ওভারের সিরিজ় শুরুর দিনে নাটকীয় ভাবে বুমরাকে এক দিনের দলে নেওয়া হয়।

শেষ মুহূর্তে এক দিনের দলে বুমরার অন্তর্ভূক্তি যথেষ্ট নাটকীয়। শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে এক দিনের সিরিজ়ের জন্য রোহিত শর্মার নেতৃত্বে ১৬ জনের দল ঘোষণা করা হয়েছিল গত ২৭ ডিসেম্বর। সেই দলে অবশ্য কোনও পরিবর্তন করা হয়নি। ১৭তম সদস্য হিসাবে বুমরাকে নেওয়া হয়।চোট পেয়ে ছিটকে যাওয়ার পর বুমরাকে পাঠানো হয় বেঙ্গালুরুর জাতীয় ক্রিকেট অ্যাকাডেমিতে। সেখানেই চলেছে তাঁর চোট মুক্তির প্রক্রিয়া। চোট মুক্ত হওয়ার পর কিছু দিন আগে অনুশীলন করেন বুমরা। তবু শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে তাঁর খেলা নিয়ে সংশয় ছিল।

ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের মেডিক্যাল টিমের সবুজ সঙ্কেত পাওয়ার পর বুমরাকে এক দিনের দলে নেওয়া হয়। কিন্তু তার পরেই আবার বাদ পড়লেন তিনি।সম্প্রতি স্ত্রী সঞ্জনা গনেশণকে নিয়ে ফ্রান্সে ঘুরতে গিয়েছিলেন বুমরা। প্যারিসে বড়দিন পালন করেছেন। সেখানেই ইংরেজি নববর্ষকে স্বাগত জানিয়েছেন অভিজ্ঞ জোরে বোলার। সমাজমাধ্যমে সেই ছবিও দিয়েছেন তাঁরা। উল্লেখ্য, ভারত-শ্রীলঙ্কা এক দিনের সিরিজ় শুরু হবে ১০ জানুয়ারি। প্রথম ম্যাচ হবে গুয়াহাটিতে। দ্বিতীয় ম্যাচ ১২ জানুয়ারি কলকাতায় এবং তৃতীয় ম্যাচ হবে ১৫ জানুয়ারি ত্রিবান্দমে।