নো বোলার আর্ষদ্বীপ,ব্যর্থ ত্রিপাঠী বাদ,এক বিগ হিটারকে দলে নিয়ে ৩য় ম্যাচে শক্তিশালী দল ঘোষণা!

সিরিজের প্রথম টি-২০ ম্যাচ জিতেও ভারতকে উইনিং কম্বিনেশন বদলাতে হয়েছিল। সঞ্জু স্যামসন চোট পেয়ে ছিটকে যাওয়ায় তাঁর জায়গায় দ্বিতীয় ম্যাচে দলে ঢোকেন রাহুল ত্রিপাঠী। যদিও বোলিং লাইনআপেও একটি বদল করেছিল টিম ইন্ডিয়া। হার্ষাল প্যাটেলের বদলে ভারত মাঠে নামায় আর্শদীপ সিংকে।তবে দ্বিতীয় ম্যাচ হেরে বসার পরেও ভারত সিরিজের তৃতীয় তথা নির্ণায়ক টি-২০ ম্যাচে বেশ কিছু পরিবর্তন হতে পারে ভারতীয় দলে।

রাহুল ত্রিপাঠী দীর্ঘদিন অপেক্ষার পরে জাতীয় দলের হয়ে আত্মপ্রকাশ করেছেন। অভিষেক ম্যাচে ব্যর্থ হলেও তাঁকে এক ম্যাচ খেলিয়েই বসিয়ে দেবে ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্ট, এমনটা ভাবা মুশকিল। তাই পুণেতে রান না পেলেও রাজকোটে সম্ভবত ফের মাঠে নামতে দেখা যাবে রাহুলকে। তবে যেহেতু সিরিজ জয়ের একটা ব্যাপার রয়েছে সেই কারণে ত্রিপাঠির জায়গা হচ্ছে না।। ত্রিপাঠির জায়গায় অন্য এক দুরন্ত ব্যাটসম্যানকে নিয়ে আসছে ভারত। নিচে রইলো রইল পুরো স্কোয়াড।

পুণের দ্বিতীয় টি-২০ ম্যাচে অর্শদীপের অনিয়ন্ত্রিত বোলিং নিয়ে বিস্তর চর্চা হয়েছে। তাই তাঁর জায়গায় হার্ষাল প্যাটেলকে ফিরিয়ে আনার সম্ভাবনা একেবারে উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না। সেক্ষেত্রে আর্শদীপের মনোবল ধাক্কা খাবে নিশ্চিত, যা চাইবেন না রাহুল দ্রাবিড়রা। অর্শদীপ সাম্প্রতিক অতীতে বল হাতে টিম ইন্ডিয়াকে নির্ভরতা দিয়েছেন। গত টি-২০ বিশ্বকাপেও ব্যক্তিগত পারফর্ম্যান্সে নজর কাড়েন তিনি। তাই ফাইনালের রূপ নেওয়া তৃতীয় টি-২০ ম্যাচে তাঁর উপরেই ভরসা রাখতে পারে দল। হার্ষাল প্যাটেলের ব্যাটের হাতটা মন্দ নয় বলে তিনি আলোচনায় থাকবেন সবসময়।

শ্রীলঙ্কা উইনিং কম্বিনেশন ধরে রেখেই সিরিজের শেষ টি-২০ ম্যাচে মাঠে নামতে পারে। অবশ্য ভানুকা রাজাপক্ষে সিরিজের প্রথম ২টি ম্যাচ রান না পাওয়ায় তাঁর পরিবর্তে অন্য কাউকে মাঠে নামানোর কথাও ভাবতে পারেন দাসুন শানাকারা। সেক্ষেত্রে সাদিরা সমরাবিক্রমে এগিয়ে থাকবেন সুযোগ পাওয়ার দৌড়ে।উল্লেখ্য, মুম্বইয়ে সিরিজের প্রথম টি-২০ ম্যাচে ভারত ২ রানের সংক্ষিপ্ত ব্যবধানে জয় তুলে নেয়। পুণের দ্বিতীয় টি-২০ ম্যাচ ১৬ রানের ব্যবধানে জিতে নিয়ে তিন ম্যাচের সিরিজে ১-১ সমতা ফেরায় শ্রীলঙ্কা। স্বাভাবিকভাবেই নির্ণায়ক রূপ নিয়েছে রাজকোটের তৃতীয় তথা শেষ টি-২০ ম্যাচটি।

তৃতীয় টি-২০ ম্যাচে ভারতের সম্ভাব্য একাদশ: ইশান কিষাণ (উইকেটকিপার), শুভমন গিল, সূর্যকুমার যাদব, ঋতুরাজ গায়কোয়ার, হার্দিক পান্ডিয়া (ক্যাপ্টেন), দীপক হুডা, অক্ষর প্যাটেল, হার্ষাল প্যাটেল, শিবম মাভি, উমরান মালিক ও যুজবেন্দ্র চাহাল।