পাকিস্তানের দম্ভ চূর্ণ করে, ক্যাপ্টেন রোহিতের ব্যাটিং তাণ্ডবে দুরন্ত জয় ছিনিয়ে নিল ভারত!

বিশ্বকাপের তৃতীয় ম্যাচে আজ পাকিস্তানের মুখোমুখি হয়েছিল ভারতীয় দল যার জন্য অপেক্ষা করেছিল সারা বিশ্বের ক্রিকেট ভক্তরা একটা লম্বা সময় ধরে। তবে এই ম্যাচের পরিণতি যে ঠিক এরকম হতে চলেছে এটা হয়তো কেউ কল্পনাও করতে পারেনি যেখানে ভারতীয় দলের সামনে রীতিমতো আত্মসমর্পণ করতে দেখা গেছে পাকিস্তানের দলকে। আর বিশ্বকাপে তার থেকে বড় প্লেয়ার আর কেউ যে হতে পারে না সেটা যেন আরেকবার এই ম্যাচেই প্রমাণ করে দিলেন ক্যাপ্টেন রোহিত শর্মা।

ভারত পাকিস্তান ম্যাচে সাধারণত ভারতীয় দল টসে জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকে তবে আজকের ম্যাচে প্রথমে বোলিং করার সিদ্ধান্ত নেয় রোহিত শর্মা যদিও মোটামুটি একটা ভালো ব্যাটিং পিচের উপর রোহিত কেন বল করার সিদ্ধান্ত নিলেন সেটা কিছুক্ষণের মধ্যে প্রমাণিত হয়ে গেল যখন প্রথমেই আউট হয়ে যায় গত ম্যাচের সেঞ্চুরি করা আব্দুলা। এরপর পাকিস্তানি ব্যাটসম্যানরা আর কোনোভাবেই রান করে উঠতে পারছিলেন না ভারতের ভালো বোলিংয়ের সামনে। কোন রকমে টেনেটুনে অসংখ্য বল নষ্ট করে ৫০ রান পর্যন্ত পৌঁছায় বাবর আর তারপরেই ফিরে যায় ড্রেসিং রুমে, গত ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান রিজওয়ান সে ৪৯ রানের মাথায় ফিরে যায় বুমরার দুরন্ত বোলিংয়ের সামনে। কিন্তু সামান্য রানের টার্গেট নিয়ে নামলেও রোহিতের মাথায় চলছিল অন্য কিছু।

```

রোহিত শর্মা এবং গিল ভারতীয় দলের হয়ে আজকে ওপেনিং করেন যেখানে দুজনেই একের পর এক লাগাতার বাউন্ডারি হাকানো শুরু করেন প্রথম থেকেই এমনকি শাহীন আফ্রিদির প্রথম বলেই বাউন্ডারি মারেন রোহিত শর্মা। এমন ভাবে শুরু হয় ভারতীয় দলের ইনিংস তবে তারপরে আর পিছন ফিরে তাকাতে হয়নি। গিল পাভিলিয়নে ফিরে গেলেও নিজের অ্যাটাকিং ক্রিকেট চালিয়ে যান ভারতীয় অধিনায়ক রোহিত শর্মা, হারিস রফ অথবা শাহীন আফ্রিদি কাউকে তিনি ক্ষমা করেননি প্রত্যেক পাকিস্তানি বোলারকে তিনি মাঠের বাইরে মেরেছেন। তবে 86 রানের মাথায় প্যাভিলিয়নে ফিরে গেলেও তখন ম্যাচে ভালোভাবেই শক্তপোক্ত ব্যাটিং শুরু করে দিয়েছিল শ্রেয়স আইয়ার।

বিরাট কোহলি আজকের ম্যাচে ব্যর্থ হলেও ভারতীয় দলের হয়ে চার নম্বরে ব্যাট করতে আসার শ্রেয়স একটা ভালো ইনিংস খেলে এবং রোহিতের সঙ্গে প্রথমে একটা ভালো পার্টনারশিপ করে তারপরে রাহুলের সাথে মিলে ম্যাচকে রীতিমতো শেষ মুহূর্তের দিকে নিয়ে যায়। তার এই দুর্দান্ত ইনিংস আরো একবার ৪ নম্বর পজিশনে তাকে খেলানোতে বিশেষ করে জায়গা পাকা করে দিল।

```

আগামী ১৭ তারিখ ভারতীয় দল মুখোমুখি হবে বাংলাদেশের, সেই বাংলাদেশ যারা নিজেদেরকে বিশ্বকাপে আসার আগেই বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করে দিয়েছে। অথচ প্রথম সারির দুই দলের কাছে তারা দুইদিন পরাজিত হয়েছে। ইংল্যান্ড নিউজিল্যান্ড দুই দলের কাছেই হেরেছে বাংলাদেশ এবং তারা এবার স্বপ্ন দেখছে ভারত অস্ট্রেলিয়া দক্ষিণ আফ্রিকাকে পরাজিত করে বিশ্বকাপের সেমিতে যাবে।

তবে ভারতীয় দলের এই দুর্দান্ত ফর্ম রীতিমতো ভারতীয় ক্রিকেট ভক্তদের কাছে খুবই পজেটিভ একটা জিনিস যে ভারতীয় দল পরবর্তী ধাপে চলে যাবে খুব সহজে।