প্রথম ভারতীয় হিসেবে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে খেলতে যাচ্ছেন প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক !

বর্তমান যুগে ফ্রাঞ্চাইজি লীগের সব থেকে বড় খেলার জায়গা হল ভারতীয় প্রিমিয়ার লিগ কিন্তু সেই ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ অথবা আইপিএল এ সুযোগ পাওয়ার সম্ভাবনাটা খুবই কম কারণ সেখানে সবথেকে ভালো ক্রিকেটাররা খেলে তাই সেখানে সুযোগ পেতে হলে সেই কোয়ালিটির ক্রিকেটার হতে হয়। তবে আইপিএলের দেখা দেখি বেশ কিছু জায়গায় এই ধরনের প্রিমিয়ার লিগ শুরু হয়েছে যার মধ্যে অন্যতম বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ।

আইপিএলের মত খেলার স্ট্যান্ডার্ড অতটা না থাকলেও বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগেও মোটামুটি খেলা খুব খারাপ হয় না, সাধারণভাবে আইপিএলের সুযোগ না পাওয়া ক্রিকেটাররা বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে খেলার জন্য ঝাঁপিয়ে পড়ে। আর এবার প্রথমবারের জন্য কোন ভারতীয় ক্রিকেটার খেলতে চলেছেন বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ। শুধু যে ক্রিকেটার তাই নয় তিনি আন্ডার 19 এ ভারতীয় দলের অধিনায়কত্ব করেছেন।

```

হ্যাঁ ঠিকই ধরেছেন এখানে কথা বলা হচ্ছে উন্মুক্ত চাঁদের।। তিনি ভারতীয় দলের হয়ে অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপে অধিনায়কত্ব করেছেন, আর দুরন্ত পারফরমেন্সে দৌলতে সোজাসুজি আইপিএলের সুযোগ পেয়েছিলেন কিন্তু খারাপ পারফরমেন্সের জন্য তিনি আইপিএলে ভবিষ্যতে আর সুযোগ পাননি এবং তিনি বুঝতে পেরেছিলেন যে ভারতীয় দলে তার পক্ষে জায়গা পাওয়া কঠিন আর সেই কারণে তিনি সিদ্ধান্ত নেন যে তিনি ভারতের হয়ে খেলবেন না বরং বিশ্বের বিভিন্ন দেশে লীগ খেলে বেড়াবেন।

আর সেই কারণে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে হওয়া লীগের অংশগ্রহণ করেন, বিগত বছরের বিগ ব্যাশ লিগেও উন্মুক্ত চাঁদকে দেখা গিয়েছিল, যদিও সেখানে খুব বেশি খেলার সুযোগ তিনি পাননি তার কারণ বিগ ব্যাশেও মোটামুটি কম্পিটিটিভ ক্রিকেট হয় এবং ভালো ক্রিকেটাররা থাকে তবে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে তিনি নিঃসন্দেহে সুযোগ পাবেন কারণ সেখানে স্ট্যান্ডার্ড উন্মুক্ত চাঁদের যোগ্য।। বিশাল কিছু বড় মাপের ক্রিকেটার বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ খেলা না।

```

যদিও উন্মুক্ত চাঁদ ছাড়া অন্য কোন ভারতীয় ক্রিকেটার এইভাবে বিশ্ব ক্রিকেটে লীগ খেলে না। চেতেশ্বর পুজারা শুভমন গিলের মতো কিছু ক্রিকেটারকে বিসিসিআই বিশেষ করে সুযোগ দিয়েছে ইংল্যান্ডের মাটিতে কাউন্টিক্রিকেট খেলার যাতে তারা নিজেদের টেস্ট খেলার দক্ষতা আরও বাড়িয়ে নিতে পারে যাতে আখেরে ভারতীয় ক্রিকেটের লাভ হয়।।