রোজ মাত্র ২৯ টাকা করে এই স্কিমে দিলেই মেয়াদ শেষে হাতে আসবে ৪ লাখ,রইলো বিস্তারিত

ভারতীয় জীবন বিমা নিগম বা LIC সম্প্রতি আরেকটি বিমা প্রকল্প নিয়ে এসেছে। এই বিশেষ প্রকল্পটি অন্যদের থেকে আলাদা। ‘LIC আধার শিলা প্ল্যান’ নামে পরিচিত এই প্রকল্পের লক্ষ্য গ্রাহকদের নিরাপত্তা এবং সঞ্চয় উভয়ই দেওয়া। এর প্রধানত গ্রাহকরা হলেন ৮ থেকে ৫৫ বছর বয়সী মহিলারা। নাম থেকে বোঝা যায়, আধার কার্ড বাধ্যতামূলক। বেশির ভাগ বিমা পলিসির মতো, পলিসিধারক মেয়াদপূর্তিতে টাকা পাবেন। এলআইসি-র এই প্ল্যানটিও পলিসিহোল্ডার এবং মৃত্যুর পর পরিবারকে সাহায্য করার জন্য আর্থিক কভারেজও প্রদান করে। কিভাবে দৈনিক ২৯ টাকায় ৪ লাখ পর্যন্ত পাবেন, রইলো বিস্তারিত।

এই প্রকল্পটি মূলত একটি নন-লিংকড ইন্স্যুরেন্স প্ল্যান যা মুনাফা এবং নিয়মিত প্রিমিয়াম দেওয়ার এন্ডোয়মেন্ট প্ল্যান। এটি সুরক্ষা এবং সঞ্চয়ের সংমিশ্রণ। পলিসির সর্বনিম্ন মেয়াদ ১০ বছর এবং সর্বোচ্চ মেয়াদ ২০ বছর। এটির মেয়াদকাল উত্তীর্ণ হওয়ার সর্বোচ্চ বয়স হল ৭০ বছর । এক্ষেত্রে অর্থ প্রদানের পদ্ধতি মাসিক, ত্রৈমাসিক, ষান্মাসিক বা বার্ষিক। আধার শিলা প্ল্যানের জন্য সর্বনিম্ন বিমা পলিসি ৭৫,০০০ টাকার। সর্বাধিক বিমা করা যায় ৩ লক্ষ টাকার। এখানে প্রকল্পটির সেরা অংশটি হল, সঠিক বোঝাপড়া এবং প্রয়োগের মাধ্যমে, আপনি প্রতিদিন ২৯টাকা সঞ্চয় করে প্রায় ৪ লক্ষ টাকা জমাতে পারেন।

উদাহরণস্বরূপ ধরুন আপনার বয়স ৩০ বছর এবং আপনি পরবর্তী ২০ বছরের জন্য প্রতিদিন ২৯ টাকা বিনিয়োগ বা জমা করতে শুরু করেন। প্রথম বছরেই, আপনি ৪.৫ শতাংশ কর সহ ১০,৯৫৯ টাকা জমা করবেন।পরের বছর আপনাকে ১০,৭২৩ টাকা দিতে হবে। এই পদ্ধতি ব্যবহার করে, আপনি আপনার সুবিধা এবং প্রয়োজন অনুযায়ী প্রতি মাসে, ত্রৈমাসিক, ষান্মাসিক বা বার্ষিক ভিত্তিতে প্রিমিয়াম জমা করতে পারেন।এখন, পরবর্তী ২০ বছরেরমধ্যে, আপনি ২,১৪,৬৯৬ টাকা জমা করবেন এবং যা থেকে মেয়াদের সময় গিয়ে দাঁড়াবে মোট ৩,৯৭,০০০ টাকা।

পলিসির প্রথম পাঁচ বছরের মধ্যে মৃত্যু হলে, সেক্ষেত্রে দাবি মূল বিমার পরিমাণের ১১০ শতাংশের সমান হবে। তবে ডেথ বেনিফিট শুধুমাত্রমৃত্যুর তারিখ পর্যন্ত সুদের সঙ্গে বেস পলিসির ক্ষেত্রে না দেওয়া প্রিমিয়াম কাটার পরে তা প্রদান করা হবে। এক্ষেত্রে বেনিফিটগুলি শুধুমাত্রমৃত্যুর তারিখ থেকে পড়ে থাকা বেস পলিসির জন্য বাকী যে প্রিমিয়াম দেওয়ার কথা ছিল তা কেটে নেওয়ার পরে এবং পরবর্তী পলিসি বছরেরআগে যদি থাকে তবেই দেওয়া যাবে।

এলআইসি আধার শিলা প্ল্যানের বৈশিষ্ট্য :

  • ১) এটি একটি অটো কভার সুবিধাযুক্ত পলিসি
  • ২) এটি শুধুমাত্র মহিলাদের জন্য পরিকল্পনা।
  • ৩) এলআইসি আধার শিলা প্ল্যান হল একটি কম প্রিমিয়ামের প্ল্যান।
  • ৪) যদি পাঁচ বছর পরে মৃত্যু ঘটে পলিসির সুবিধাভোগীরা অতিরিক্ত অর্থ প্রদানের জন্য একটি লয়ালটি সংযোজন পাবেন । গড় বিমা পলিসি
  • থেকে এটির একটি বৈপরীত্য আছে যা শুধুমাত্র মৌলিক বিমার সমান।
  • ৫) এটির ক্ষেত্রে লক্ষ করা বিষয় হল – গুরুতর অসুস্থতাগুলি এই পলিসির আওতাভুক্ত নয়।

৬) এটিতে একটি ঋণের সুবিধা আছে কিন্তু তা আপনার তিন বছর পূর্ণ করার পরেই পেতে পারেন৭)এলআইসি এই পলিসির জন্য অ্যাক্সিডেন্টাল রাইডার এবং পার্মানেন্ট ডিসেবল রাইডারেরও ব্যবস্থা রাখে।৮) প্রথম অদেয় প্রিমিয়ামের দুই বছরের মধ্যে বিলুপ্ত পলিসি পুনরুজ্জীবিত করার বৈশিষ্ট্য থাকছে।

  • ৯)এলআইসি আধার শিলা প্ল্যানের অধীনে যে প্রিমিয়াম দেওয়া হয় তা আয়কর আইনের ৮০সি সেকশন এর অধীনে কর ছাড় মিলবে।
  • ১০) মেয়াদ শেষে যা মিলবে তা করমুক্ত হবে সেকশন ১০(১০ডি) এর অধীনে।