নিউজিল্যান্ডের কাছে ঘরের মাঠে পুরো সিরিজ হেরে, লজ্জার রেকর্ড গড়লো বাবরের পাকিস্তান!

কিছুদিন আগেই ঘরের মাঠে প্রথমবার টেস্ট সিরিজে ইংল্যান্ডের কাছে হোয়াইটওয়াশ হয় পাকিস্তান। এবার নিজেদের ডেরায় নিউজিল্যান্ডের কাছে লাঞ্ছিত হতে হল বাবর আজমদের। যদিও এবার হোয়াইটওয়াশ হতে হয়নি পাকিস্তানকে। আসলে নিউজিল্যান্ডের কাছে নিজেদের দেশে প্রথমবার একাধিক ম্যাচের ওয়ান ডে সিরিজ হারে পাকিস্তান।এর আগে যতবার পাকিস্তানের মাটিতে একাধিক ম্যাচের ওয়ান ডে সিরিজ খেলে নিউজিল্যান্ড, ততবারই হারে তারা।

একবারও ট্রফি নিয়ে দেশে ফিরতে পারেনি কিউয়ি দল। এই প্রথমবার তারা পাকিস্তান থেকে ওয়ান ডে সিরিজের ট্রফি নিয়ে ফেরে।নিউজিল্যান্ড শেষবার পাকিস্তানে ওয়ান ডে সিরিজ খেলেছিল ২০০৩ সালে। সুতরাং দীর্ঘ ২০ বছর পরে ওদেশে একদিনের আন্তর্জাতির ম্যাচের সিরিজে মাঠে নামে কিউয়ি দল। এবার তিন ম্যাচের সিরিজ ২-১ ব্যবধানে জয় তুলে নেয় নিউজিল্যান্ড। তার আগে ১৯৮৪ সালে পাকিস্তানে ১-৩ ব্যবধানে ওয়ান ডে সিরিজ হারে নিউজিল্যান্ড। ১৯৯০ সালে তারা পরাজিত হয় ০-৩ ব্যবধানে।১৯৯৬ সালে পাকিস্তান ঘরের মাঠে নিউজিল্যান্ডকে ২-১ ব্যবধানে ওয়ান ডে সিরিজে পরাজিত করে। ২০০২ সালে পাকিস্তান একদিনের সিরিজ জেতে ৩-০ ব্যবধানে। ২০০৩ সালে পাকিস্তানে ০-৫ ব্যবধানে ওয়ান ডে সিরিজ হারে নিউজিল্যান্ড।

পাকিস্তান সফরে নিউজিল্যান্ডের ওয়ান ডে সিরিজগুলির ফলাফল:-১৯৮৪: নিউজিল্যান্ড ১-৩ ব্যবধানে পরাজিত হয়।১৯৯০: নিউজিল্যান্ড ০-৩ ব্যবধানে পরাজিত হয়।১৯৯৬: নিউজিল্যান্ড ১-২ ব্যবধানে পরাজিত হয়।২০০২: নিউজিল্যান্ড ০-৩ ব্যবধানে পরাজিত হয়।২০০৩: নিউজিল্যান্ড ০-৫ ব্যবধানে পরাজিত হয়।২০২৩: নিউজিল্যান্ড ২-১ ব্যবধানে জয় তুলে নেয়।

উল্লেখ্য, এবার ওয়ান ডে সিরিজের প্রথম ম্যাচে পাকিস্তান ৬ উইকেটে হারিয়ে দেয় নিউজিল্যান্ডকে। প্রথমে ব্যাট করে নিউজিল্যান্ড ৯ উইকেটে ২৫৫ রান তোলে। পালটা ব্যাট করতে নেমে পাকিস্তান ৪ উইকেটে ২৫৮ রান তুলে ম্যাচ জিতে যায়।দ্বিতীয় ম্যাচে ৭৯ রানে জয় তুলে নিয়ে নিউজিল্যান্ড ওয়ান ডে সিরিজে ১-১ সমতা ফেরায়। প্রথমে ব্যাট করে নিউজিল্যান্ড ২৬১ রানে অল-আউট হয়। জবাবে ব্যাট করতে নেমে পাকিস্তান অল-আউট হয় মাত্র ১৮২ রানে।

সিরিজের তৃতীয় তথা নির্ণায়ক ওয়ান ডে ম্যাচে নিউজিল্যান্ড ২ উইকেটে জয় তুলে নেয়। প্রথমে ব্যাট করে পাকিস্তান ৯ উইকেটে ২৮০ রানের বড়সড় ইনিংস গড়ে তোলে। পালটা ব্যাট করতে নেমে নিউজিল্যান্ড ৮ উইকেটের বিনিময়ে জয়ের জন্য প্রয়োজনীয় ২৮১ রান সংগ্রহ করে নেয়।