‘ওয়ান ডে থেকে অবসর নিতেই ইংল্যান্ড বোর্ড আমাকে T20 তে ব্যান করে’ স্টোকসের অবসরে ক্ষোভ পিটারসনের

নিজের সময়ের অন্যতম সেরা প্লেয়ার ছিলেন কেবিন পিটারসেন। অসংখ্য বোলারদের রাতের ঘুম তিনি একাই কেড়ে নিয়েছেন কিন্তু তার ক্রিকেটের দুনিয়া থেকে বিদায়টা ঠিকমতো হয়নি। ইংল্যান্ড টিমের খেলার শিডিউল একটা বড় প্রশ্ন চিহ্ন থেকেছে অনেকদিন ধরেই আর সেই কারণেই তিনি ওয়ানডে থেকে যখন অবসর নিয়েছিলেন তখন তিনি ভেবেছিলেন যে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট তিনি খেলবেন কিন্তু তাকে বিশ্বকাপের আগে দল থেকে বাদ দিয়ে দেওয়া হয়।

বেন স্ট্রোক যে কারণে একদিনের ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছেন ঠিক একই কারণে ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছিলেন। আর সেই মুহূর্তে ইংল্যান্ডের ম্যানেজমেন্ট টিমের যিনি দায়িত্বে ছিলেন তিনি বলেছিলেন যে কোন প্লেয়ার যদি নিজেকে ওয়ানডে ক্রিকেট থেকে সরিয়ে নেয় সেক্ষেত্রে সে অটোমেটিক টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট থেকে বাদ চলে যায় কারণ যেহেতু ওভারের খেলা তাই একটা ফরমেট থেকে নিজেকে সরিয়ে নিলে আরেকটা ফরমেট থাকে বাদ দিয়ে দেওয়া হবে।

কিন্তু আজকের দিনে দেখতে গেলে ঠিক একই কারণে ওয়ানডে ক্রিকেট থেকে সরে গেছেন বেন স্টোকস কিন্তু তাকে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট থেকে কি সরিয়ে নেওয়া হবে সেটা একটা বিশাল বড় প্রশ্ন এবং কারণ ইংল্যান্ড ক্রিকেটের কাছে বেনস্টোকস একটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ প্লেয়ার এবং তাকে অবশ্যই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও খেলানো হবে এবং টি-টোয়েন্টি দলেও রাখা হবে অথচ একই কারণের জন্য অন্যায় হয়েছিল পিটার সেনের সঙ্গে।

টিকিটে অতিরিক্ত ম্যাচ খেলার যে চাপ রয়েছে এবং সব ফরমাটে খেলার যে একটা চাপ রয়েছে সেই কারণে ভীষণ রকম সমস্যা দেখা দিচ্ছে বেশ কয়েকটি দলে এবং এই একই রকম সমস্যায় ভুগছে ভারতীয় দল যেখানে বিরাট কোহলির মত প্লেয়ার কে বিশ্রামে পাঠানো হচ্ছে অতিরিক্ত ক্রিকেটের চাপের জন্য, যদিও অনেকে বলছেন যে তাকে বিশ্রামে পাঠানো হয়েছে যাতে ছুটি কাটিয়ে আসে ভালো ভাবে ফিরতে পারেন।

জানিয়ে রাখি যে আজকে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে প্রথম ওয়ানডে ম্যাচে যুব টিমের সাথে শেখর ধাওয়ানকে ক্যাপ্টেন করে মুখোমুখি হতে চলেছে ভারত। এই ম্যাচে রবীন্দ্র জাদেজা চোটের কারণে দলে থাকছেন না।