“বিরাট বলে সবাই ভাববে সেঞ্চুরির জন্য খেলি, তাও আমি বলি রান নেবো না” গোপন তথ্য ফাঁস করলেন রাহুল !

বিশ্বকাপের চতুর্থ ম্যাচে বাংলাদেশের মুখোমুখি হয়েছিল ভারতীয় দল এবং একের পর এক ম্যাচে যেভাবে ভারতীয় দল জয়লাভ করে যাচ্ছে তাদের বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ভারত জয় লাভ করবে সেই নিয়ে কোন সন্দেহ ছিল না তবে এই ম্যাচ টি বিশেষ করে স্মরণীয় হয়ে থাকলো বিরাট কোহলির অনবদ্য সেঞ্চুরির জন্য যেটা দিয়ে তিনি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বিশেষ করে ওয়ানডে ক্রিকেটে ৪৮ তম সেঞ্চুরিটি সম্পন্ন করলেন। কিন্তু বেশ কিছু তর্ক এবং বিতর্ক এবং সমালোচনার মধ্য দিয়ে এই সেঞ্চুরিটি সম্পন্ন হয়েছে কিন্তু সেই মুহূর্তে সেখানে উপস্থিত থাকা কে এল রাহুল দিলেন পুরো ঘটনার আসল ব্যাখ্যা।

আজ এক রুপকথার ন্যায় ম্যাচের সাক্ষী থাকলো ক্রিকেটবিশ্ব। আজ বিশ্বকাপের (World Cup 2023) মঞ্চে মুখোমুখি হয়েছিল ভারত-বাংলাদেশ (India vs Bangladesh)। ২৫৭ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ছক্কা মেরে ম্যাচ ফিনিশ করেন বিরাট কোহলি (Virat Kohli)। এই শটের সাথেই নিজের ৪৮ তম ওডিআই সেঞ্চুরিটি পূর্ণ করেন বিরাট। বাংলাদেশের বিরুদ্ধে বিরাটের এরকম সেঞ্চুরি নিয়ে খুবই আনন্দিত ক্রিকেটবিশ্ব। কিন্তু তার এই সেঞ্চুরির জন্য অবশ্যই কৃতিত্ব দিতে হবে নন স্টাইকে থাকা কেএল রাহুলকেও (KL Rahul)।আজ শেষের দিকে ভারতকে জয়ের জন্য প্রয়োজন ছিল ২৮ রান।

```

বিরাট কোহলির ব্যাক্তিগত রান ছিল তখন ৭৩। তাকে সেঞ্চুরি অবধি পৌঁছাতে গেলে ২৭ রান করতে হতো। কিন্তু ব্যাক্তিগত মাইলফলকের কথা একেবারেও ভাবছিলেন না বিরাট। তিনি ননস্টাইকে থাকা রাহুলকে নিজের মতো খেলে যেতে বলেছিলেন। কিন্তু উত্তরে রাহুল তাকে যা বলেছেন, তা অধিকাংশ ক্রিকেটপ্রেমীদের মন জিতে নিয়েছে।যখন বিরাটের সেঞ্চুরির জন্য গোটা কয়েক রান বাকি ছিল, তখন রাহুল একটিও সিঙ্গেল নিচ্ছিলেন না। তখন বিরাট ও রাহুলের মধ্যে যে কথোপকথনটি হয়, ম্যাচ শেষে কনফারেন্সে সেই কথায় বলেছেন রাহুল, তাতে তাকে বলতে শোনা গেছে,

“ও (বিরাট কোহলি) আসলে খুবই বিভ্রান্ত হয়েছিলেন, ও আমাকে বলেছিলো, সিঙ্গেল না নেওয়াটা খুব একটা ভালো দেখাবে না, এমনিতে এটা একটা বিশ্বকাপ, এটা এখন একটা বড় মঞ্চ এবং আমি এমনটা দেখতে চাই না আমার মাইলফলক সম্পূর্ণ করার জন্য আমি চেষ্টা করছি।”জবাবে রাহুল নিজে যেকথা বিরাটকে বাইশ গজের মধ্যে দাঁড়িয়ে বলেছিলেন, সেকথাও তিনি স্টারস্পোর্টসকে জানিয়েছেন।

```

জবাবে রাহুল বলেছেন, “আমি বলেছিলাম, তুমি সিঙ্গেল নিও না। এটা এখনো আমরা জিতিনি, কিন্তু আমি বলতে চেয়েছি যে আমরা এখান থেকেও ম্যাচটি খুবই সহজে জিতবো। তুমি যদি মাইলফলক পেতে চাও, তবে তার জন্য অবশ্যই তোমাকে চেষ্টা করতে হবে এবং শেষ পর্যন্ত ও তা করে দেখিয়েছে।”সব মিলিয়ে একটা ব্যাপার স্পষ্ট হয়ে গেল যে বিরাট কোহলি কখনোই ব্যক্তিগত রানের জন্য বা সেঞ্চুরির জন্য খেলেন না তিনি সবসময় দলকে জেতানোর জন্য খেলেন।

তবে যেহেতু অনেক বল বাকি ছিল প্রায় ১০ ওভার বাকি ছিল ম্যাচে, সেই জায়গায় দাঁড়িয়ে ভারত খুব সহজেই ম্যাচটা জিত ছিল। সুতরাং সেখানে যদি সেঞ্চুরির একটা জায়গা থাকে এবং কোহলি ২টো বল এক্সট্রা খেলে সেটা সম্পূর্ণ করে থাকে তাহলে কোন দোষ নেই, এমনকি সারা বিশ্বের ক্রিকেট প্রেমীরা বিরাট কোহলির পাশে দাঁড়িয়েছে, এমনকি পাকিস্তানের প্রাক্তন ক্রিকেটাররা শোয়েব মালিক ওয়াসিম আকরাম প্রত্যেকেই বিরাট কোহলির এই সেঞ্চুরিকে প্রশংসা করেছেন।