ঐতিহাসিক সিদ্ধান্ত!দেশবাসীকে বিশুদ্ধ জল খাওয়াতে বিশাল দামে বিসলেরি(Bisleri) কিনছে টাটা!

আরও ব্যবসা বাড়াচ্ছে টাটা গ্রুপ(TATA Group)। এবার টাটা কনজিউমার প্রোডাক্ট কিনে নিতে চলেছে বিসলেরি ইন্টারন্যাশনাল (Bisleri International) সংস্থাকে। সূত্রের খবর, ৭ হাজার কোটি টাকা দিয়ে বিসলেরি সংস্থাকে কিনে নিতে চলেছে টাটা কনজিউমার প্রোডাক্টস লিমিটেড (TATA Consumer Products Limited)। প্যাকেটজাত জলের বিক্রেতা সংস্থার চেয়ারম্যান রমেশ চৌহান জানান, ৭ হাজার কোটি টাকা দিয়ে বিসলেরিকে কিনে নিতে চলেছে টাটা।

যদিও টাটা বা বিসলেরি সংস্থার তরফে এই বিষয়ে কোনও মন্তব্য করা হয়নি।টাটা গ্রুপের অধীনেই থাকা টাটা কনজিউমার প্রোডাক্টস লিমিটেড বর্তমানে হিমালয়ান ব্রান্ড নামে প্যাকেটজাত জল বিক্রি করা হয়। টাটা কপার প্লাস ওয়াটার ও টাটা গ্লুকো-ও বিক্রি হয় টাটা কনজিউমার প্রোডাক্টস লিমিটেডের তরফে। এবার সেই ব্রান্ডের অধীনেই আসতে চলেছে বিসলেরিও।ওয়াকিবহাল মহলের মতে, টাটা ও বিসলেরির মধ্যে যদি এই চুক্তি চূড়ান্ত হয়ে যায়, তবে একদিকে যেমন টাটা গ্রুপ ভোগ্যপণ্যের বাজারে নিজেদের জায়গা আরও শক্তিশালী হবে, তেমনই টাটা ব্রান্ডের নাম যুক্ত হলে, পানীয় জলের বাজারেও বিসলেরি বিশেষ ‘মাইলেজ’ পাবে।

রিপোর্ট অনুযায়ী, ২০২১ অর্থবর্ষে বিসলেরি ব্রান্ডের বাজারমূল্য ২.৪৩ বিলিয়ন ডলার, ভারতীয় মূল্য়ে যার অঙ্ক ১৯ হাজার ৩১৫ কোটি টাকা। চলতি বছরে এই মূল্য ১৩ শতাংশের বেশি বৃদ্ধি হতে পারে।বর্তমানে সকলেই স্বাস্থ্য সচেতন। সাধারণ কলের জলের তুলনায় অনেকেই প্যাকেটজাত বা বোতলে প্যাক করা জল পান করতে বেশি পছন্দ করেন, কারণ তা তুলনামূলকভাবে অনেক বেশি পরিশুদ্ধ। বিগত কয়েক বছরে প্যাকেটজাত জলের চাহিদা ক্রমাগত বৃদ্ধি পাওয়ায়, একাধিক সংস্থাই জলের ব্যবসায় নামছে।

যেমন কোলাকোলা ইন্ডিয়ার অধীনে রয়েছে কিনলে (Kinley) ব্রান্ড, পার্লে অ্যাগ্রোর অধীনে রয়েছে বেইলি (Bailley) ব্রান্ড, ভারতীয় রেলওয়ের আইআরসিটিসি-র অধীনে রয়েছে রেল নীর (Rail Neer)। তবে বাজারে এক নম্বরে রয়েছে বিসলেরি।বিসলেরি শুধু পানীয় জলই নয়, তরল পানীয় স্পাইসি, লিমোনাটা, ফনজো ও পিনাকোলাডাও বিক্রি করে।

পাশাপাশি জানিয়ে রাখবো যে টাটা গোষ্ঠী সম্প্রতি এয়ার ইন্ডিয়াকে ভারতীয় সরকারের কাছ থেকে কিনেছে। যার শুরুটা মোটামুটি ভাবে বলা যায় টাটার হাত দিয়েই হয়েছিল এবং আবার সেটি টাটার কাছেই ফিরল। আর এবার বিসলারি যদি টাটা গোষ্ঠীর অন্তর্ভুক্ত হয় তাহলে তার গ্রহণযোগ্যতা সাধারণ মানুষের কাছে আরো বেশি বেড়ে যাবে।