“এটা কোনোভাবেই হতে পারে না,১৯০ রানের…” পাকিস্তান দলকে নিয়ে চরম মন্তব্য করলেন রোহিত শর্মা !

বিশ্বকাপের তৃতীয় ম্যাচে আজকে মুখোমুখি হয়েছিল ভারত এবং পাকিস্তান এবং এই ম্যাচে যেরকমটা ভারতীয়রা এক্সপেক্ট করেছিল ভারতীয় দল ঠিক সেরকমই পারফরম্যান্স করেছে এবং পাকিস্তান দলকে রীতিমতো কোন ছোটখাট দলের মতো খুবই খারাপ ভাবে হারিয়েছে। দাপটের সাথে প্রথমে বোলিং করেছে ভারতের বোলাররা এবং তারপরে তাণ্ডব চালিয়েছে রোহিত শর্মা, স্রেয়স আইয়াররা। তবে ম্যাচ শেষে প্রেস কনফারেন্সে বেশ কিছু মন্তব্য করে দিলেন রোহিত শর্মা।

প্রথমে টসে জিতে বল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল রোহিত শর্মা সেখানে ভারতীয় দলের বোলাররা দুর্দান্ত বোলিং করেছে। কোন বোলার একে অপরের থেকে কম যাননি আজকের ম্যাচে, তাই সব থেকে ভালো বল কে করেছে এটা বলা মুশকিল কিন্তু পাকিস্তান যে ১৯১ রানে বান্ডিল হয়ে গেল, এখন প্রশ্ন উঠছে এই পিচটি কি আদৌ ১৯১ রানের ছিল। রোহিত শর্মা কে এই প্রশ্ন করা হলে প্রথমেই তিনি বলেন আমি বোলারদের ধন্যবাদ জানাতে চাই যারা এত সুন্দর বোলিং করেছে, এমনকি শারদুল ঠাকুরের আজকের দিন ভালো না যাওয়াই তার বদলে যে হার্দিককে বোলিং করানো হয়েছে এবং সে ভালো পারফর্ম করেছে তাতেও তিনি খুশি।

```

এরপরে রোহিত শর্মা বলেন যে এই ম্যাচে পাকিস্তান ১৯১ রান করেছে সেক্ষেত্রে এই পিচটি কোনভাবেই ১৯১ রানের পিচ নয়, এমনকি আমরা একটা সময় ২৭০-৮০ রানের দিকে তাকিয়েছিলাম যে আমাদেরকে হয়তো ২৭০-৮০ রান চেজ করতে হবে, কিন্তু 190 রানের পিচ কোন ভাবেই নয়, ওরা খারাপ ব্যাটিং করেছে, তার পাশাপাশি আমাদের বোলাররা ভালো বোলিং করেছে।

রোহিত শর্মা ব্যক্তিগতভাবে আজকের ম্যাচে ৮৬ রান করেন এবং তার ইনিংস টি সমৃদ্ধ ছিল ছটি চার এবং ছটি বিশাল ছক্কা দ্বারা। একতরফাভাবে তিনি এই ম্যাচটি কে ভারতের ঝুলিতে এনে দেন, যেখানে সামান্যটুকু হলেও যদি পাকিস্তানের চান্স থাকতো পরবর্তীকালে ভালো বল করলে সেই সম্ভাবনাকে তিনি একবারে গোড়া থেকেই শেষ করে দেন।

```

সব মিলিয়ে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে বিশ্বকাপে এটি ভারতের অষ্টম জয় এবং ভারতীয় দল নিজেদের জয়ের ধারা রীতিমতো বজায় রেখেছে। সব দিক দিয়ে দেখতে গেলে ভারতীয় দলের কোয়ালিটির সামনে কোনোভাবেই দাঁড়ানোর ক্ষমতা ছিল না পাকিস্তানের দলটির।

ভারতীয় দল তাদের পরবর্তী ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে আগামী ১৭ তারিখে। এখানে মনে রাখার বিষয় হলো বাংলাদেশ ২০২৩ বিশ্বকাপের চ্যাম্পিয়ন, অন্তত সোশ্যাল মিডিয়া মাধ্যমে বাংলাদেশের জনতা ইতিমধ্যে প্রচার করে ফেলেছে যে বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়ন হয়ে গেছে এবং বাকি ম্যাচগুলি শুধুমাত্র দেখার জন্য হচ্ছে।