রানের ফুলঝুড়ি সূর্যকুমার যাদবের ব্যাটে ! রঞ্জিতে প্রত্যাবর্তনে ঝড় তুললেন মিস্টার ৩৬০ !!

সূর্যকুমার যাদবকে থামানো যাচ্ছে না। টি-২০ ক্রিকেটকে তো নিজের মত করে রোজই লিখে চলেছে সূর্যকুমারের (Suryakumar Yadav) ব্যাট। আন্তর্জাতিক আঙিনা হোক অথনা আইপিএল, সূর্যকুমার বাইশ গজে মানেই নিশ্চিতভাবে চার-ছক্কার বন্যা। ২০২২ ক্যালেন্ডার বর্ষে দুরন্ত ফর্মে রয়েছেন তিনি। টি-২০ বিশ্বকাপে ভারতের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান শিকারী ছিলেন তিনি। করেছিলেন তিনটি অর্ধশতক। সূর্যের আগে ছিলেন কেবল বিরাট কোহলি। বিশ্বকাপের পরেও নিউজিল্যান্ড সিরিজে গর্জে উঠেছে তাঁর ব্যাট। চলতি বছরে একের পর এক রেকর্ড করেছেন কুড়ি-বিশের ক্রিকেটে। হয়েছেন বিশ্বের সেরা ব্যাটার।

তবে বর্তমান সীমিত ওভারের ক্রিকেটের পরিসরের বাইরে তিনি। খেলছেন রঞ্জি ট্রফি। তবে বলের রঙ বদলালেও সুর্যের (Suryakumar Yadav) খেলার আন্দাজ যে একই রয়েছে তা বোঝা গেলো হায়দ্রাবাদের বিরুদ্ধে। আরো একবার চার-ছক্কা হইহই দেখল ক্রিকেটজনতা। স্যুইপ, রিভার্স স্যুইপ, স্কুপ, ল্যাপ শট হোক বা ধ্রুপদী কভার ড্রাইভ, সূর্যকুমারের (Suryakumar Yadav) তূণে মজুত সবরকম অস্ত্র। উইকেটের চারদিকে অভাবনীয় শট খেলার ক্ষমতা তাঁকে অনন্য করেছে।

এবি ডিভিলিয়ার্সের অবসরের পর ‘মিস্টার ৩৬০’ খেতাবটা তাই সূর্যকেই দিয়েছেন ক্রিকেট অনুরাগীরা। চলতি বছরে স্বপ্নের ফর্মে রয়েছেন তিনি। দেশের জার্সিতে ইংল্যান্ড এবং নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে টি-২০ ম্যাচে করেছেন জোড়া শতরান। প্রথম ভারতীয় হিসেবে এক ক্যালেন্ডার ইয়ারে ১০০০ টি-২০ রান পেরনোর নজির গড়েছেন। এক বছরে সবচেয়ে বেশী টি-২০ ছক্কা হাঁকানোর বিশ্বরেকর্ডটিও করেছেন নিজের নামে। সূর্যের আলোকে উজ্জ্বল হয়ে উঠেছে টি-২০ ক্রিকেটের আঙিনা।

কুড়ি-বিশের ক্রিকেটে সফল হলেও সূর্যকুমারের (Suryakumar Yadav) লক্ষ্য টেস্ট খেলা। লক্ষ্যপূরণের আশায় ৩ বছর পর রঞ্জি ট্রফির বৃত্তে ফিরেছেন তিনি। কিন্তু চার ছক্কা মারা বন্ধ করেন নি। আজ হায়দ্রাবাদ তা টের পেলো হাড়েহাড়ে।দীর্ঘ তিন বছর পর রঞ্জি ট্রফিতে মুম্বইয়ের হয়ে মাঠে নেমেছিলেন সূর্যকুমার যাদব (Suryakumar Yadav)। জার্সির রঙ এবং বলের রঙ বদলালেও সূর্যকুমারের খেলার ধরণে বিশেষ বদল আসে নি। প্রতিপক্ষ হায়দ্রাবাদের অধিনায়ক তন্ময় আগরওয়াল টসে জিতে বোলিং নেন। সূর্যের মুখোমুখি হয়ে হায়দ্রাবাদের বোলিং আক্রমণের ছিন্নভিন্ন দশা হয়।

শুরু থেকেই আগ্রাসী মেজাজেই ব্যাট করছিলেন সূর্যি। মাত্র ৪৬ বলেই অর্ধশতক করেন তিনি। এরপরেও থামার কোনো লক্ষন দেখা যায় নি তাঁর থেকে। একই ভাবে মাঠের চারদিকে শট খেলতে থাকেন তিনি। অবশেষে ৮০ বলে ১১২.৫০ স্ট্রাইক রেট সহ ৯০ রানের ইনিংস খেলে থামলেন তিনি। শশাঙ্ক মেহরোত্রার বলে এল বি ডব্লিউ তিনি। ঝোড়ো ইনিংসে মেরেছেন ১৫ টি চার এবং ১ টি বিশাল ছক্কা। শতরান হাতছাড়া হওয়ার আক্ষেপ নিয়েই ফিরতে হলো সূর্যকুমারকে (Suryakumar Yadav)। তবে লাল বলে ঝোড়ো ইনিংস খেলে আসন্ন অস্ট্রেলিয়া সিরিজের টেস্ট দলে ঢোকার বিষয়ে জোরালো দাবী জানিয়ে দিলেন তিনি।