শামিকে বাদ দিয়ে উমরানকে দলে নিয়ে দ্বিতীয় ম্যাচের শক্তিশালী দল ঘোষণা ভারতের!

বুধবার হায়দরাবাদে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথম একদিনের আন্তর্জাতিকে জয় পেতে টিম ইন্ডিয়াকে কঠিন লড়াই করতে হয়েছে। মাইকেল ব্রেসওয়েলের ৭৮ বলে ১৪০ রানের ইনিংস নিউজিল্যান্ডকে প্রায় জয়ের দরজায় নিয়ে গিয়েছিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত শেষ হাসি হাসলেন রোহিত শর্মারা। একটা সময়ে কিউয়িদের ইনিংস দেখে মনে হচ্ছিল, শুভমন গিলের ২০৮ রানও যথেষ্ট প্রমাণিত হবে না। কিন্তু শার্দুল ঠাকুর শেষ ওভারে তাঁর স্নায়ু ধরে রেখে ব্রেসওয়েলকে আউট করেন।

প্রথম ম্যাচ জেতার পরে টিম ইন্ডিয়া বেশ আত্মবিশ্বাসী। ভারতের ব্যাটিংয়ে কিছুটা সমস্যা দেখা দিলেও, ভারসাম্যের অভাব নেই। যদিও বোলিংয়ে কয়েকটি দুর্বল জায়গা রয়েছে। অন্যদিকে নিউজিল্যান্ডের ওপেনারদের ফোকাস থাকবে শুরু থেকেই দলকে ভালো জায়গায় নিয়ে যেতে। এবং তাদের মিডল অর্ডারকেও শক্তিশালী করতে চাইবে তারা। তবে নিউজিল্যান্ড মূলত ট্রেন্ট বোল্ট এবং টিম সাউদির অভাব বোধ করছে।আসুন দেখে নেওয়া যাক নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় ওডিআইয়ের জন্য টিম ইন্ডিয়ার সম্ভাব্য একাদশ:

  • রোহিত শর্মা: একজন অধিনায়ক এবং ব্যাটসম্যান উভয় হিসেবে, প্রথম ম্যাচে খারাপ ছিলেন না। শুরুটা ভালো করেছিলেন। তবে তাঁর বড় স্কোর না করা নিয়ে সমালোচনা চলছে। দ্বিতীয় ম্যাচে নিঃসন্দেহে বড় স্কোর করতে চাইবেন রোহিত।

শুভমান গিল: প্রথম ম্যাচ শুরুর আগে ওডিআইতে রোহিতের সঙ্গে কে ওপেন করবেন তা নিয়ে প্রশ্ন ছিল। বাংলাদেশের বিপক্ষে ইশান কিষাণের ডাবল সেঞ্চুরি সত্ত্বেও তাঁকে বেঞ্চে বসিয়ে শুভমনের উপর আস্থা রেখেছিলেন রোহিত। যার সম্পূর্ণ মর্যাদা দিচ্ছেন শুভমনও। শ্রীলংকার বিরুদ্ধে শেষ ওডিআই-এ শতরানের পর, নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথম ম্যাচে গিলের ডাবল সেঞ্চুরি অবশ্যই তার সমালোচকদের মুখ বন্ধ করে দিয়েছে।

বিরাট কোহলি: শেষ ম্যাচে তাড়াতাড়ি আউট হয়ে যান বিরাট কোহলি। গত কয়েকটি ওয়ানডে-তে প্রাক্তন অধিনায়কের পারফরম্যান্স ব্যতিক্রমী ছিল এবং তিনি পরের ম্যাচে আরও একটি সেঞ্চুরি করার দিকে তাকিয়ে থাকবেন।

  • ইশান কিষাণ: নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথম ওডিআই-এ ইশানের ব্যাট হাতে ভালো দিন ছিল না। কিন্তু এর আগে ইশান বেশ ভালো পারফরম্যান্স করেছেন। পরের ম্যাচে ভারতীয় ম্যানেজমেন্ট ইশান কিষাণকে নিঃসন্দেহে সমর্থন করবে টিম ইন্ডিয়া।

সূর্যকুমার যাদব: সূর্যকুমার যাদবের কোনও পরিচয়ের আলাদা করে প্রয়োজন নেই, এবং তিনি নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথম ওডিআই-এ খারাপ সময়ে এক প্রান্ত থেকে ভারতীয় ইনিংসকেও ভালো ভাবে ধরে রেখেছিলেন।

  • হার্দিক পাণ্ডিয়া: অনেক দিন পর টিম ইন্ডিয়া হার্দিক পাণ্ডিয়ার মধ্যে একজন নিখুঁত ফাস্ট-বোলিং অলরাউন্ডার খুঁজে পেতে সক্ষম হয়েছে। হার্দিক ব্যাট হাতে অবদান রাখলেও, বল হাতে ছিলেন দামি। তিনিও তাঁর পারফরম্যান্সের উন্নতি করতে চান।
  • ওয়াশিংটন সুন্দর: ওয়াশিংটন সুন্দর সুযোগ পেলেই ব্যাট এবং বল উভয়েই ভালো করেছেন। ভারতের রবীন্দ্র জাদেজা এবং অক্ষর প্যাটেল অনুপস্থিতিতে ওয়াশিংটনই পরের ম্যাচে খেলবেন।
  • শার্দুল ঠাকুর: শার্দুল ঠাকুর ‘লর্ড’ নামে পরিচিত, টিম ইন্ডিয়ার জন্য একজন যুগান্তকারী বোলার। দলের যখনই তাঁকে প্রয়োজন হয়েছে, তিনি ভরসা জুগিয়েছেন। পরের ম্যাচে তাঁর না খেলার প্রশ্নই ওঠে না।

কুলদীপ যাদব: কুলদীপ যাদবকে সুযোগ দিলেই উইকেট নিয়ে নিজেকে প্রমাণ করে চলেছেন। এবং তিনি যে ভাবে পারফর্ম করছেন, পরের ম্যাচে আবার খেলবেন।

  • উমরান মালিক: গত ম্যাচে মহম্মদ শামি খুব খারাপ বোলিং না করলেও, কিছুটা অফ কালার দেখাচ্ছিলেন। তিনি হাতে চোটও পেয়েছিলেন, এবং উমরান মালিককে দলে নেওয়ায় টিম ইন্ডিয়া তাঁকে দ্বিতীয় ওয়ানডেতে বিশ্রাম দিতে পারে। উমরানের গতি টিম ইন্ডিয়াকে পরের ম্যাচে সাহায্য করতে পারে।

মহম্মদ সিরাজ: মহম্মদ সিরাজ টিম ইন্ডিয়ার জার্সিতে দুরন্ত পারফরম্যান্স করছেন। তাঁর পারফরম্যান্সের উপর ভিত্তি করে, টিম ইন্ডিয়া তাঁকে না খেলানোর কথা ভাবতেই পারবে না।