“শুধুমাত্র বিরাটের জন্য..”ম্যান অব দ্যা ম্যাচ হয়ে কোহলিকে নিয়ে বড় মন্তব্য শ্রেয়সের,স্যালুট বিরাটের ভক্তদের!

প্রথম ম্যাচে জয়লাভের পর অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে দ্বিতীয় ম্যাচে যথেষ্ট কনফিডেন্স এর সাথে নেমেছিল ভারতীয় দল এবং তারা খেলল রীতিমতো একটা চ্যাম্পিয়ন দলের মত এবং অস্ট্রেলিয়া দলকে নিয়ে রীতিমত ছেলেখেলা করলো টিম ইন্ডিয়া। একটি দুর্দান্ত ব্যাটিং পিচে প্রথমে ব্যাট করার সুযোগ পেয়েছে ভারতীয় দল তাই বড় কিছু হতে চলেছে এরকমটা প্রথম থেকেই ইঙ্গিত দিয়েছিলেন ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা। রুতুরাজ তাড়াতাড়ি আউট হয়ে গেলেও গিল এবং শ্রেয়স আইয়ার একের পর এক অনবদ্য চোখ জুড়ানো শট খেয়েছিলেন যা স্পষ্ট করেছিল ভারতীয় দল কিছু না হলেও আজ ৩৫০ পার করবে।

একটা বিশাল বড় পার্টনারশিপ করেন গিল এবং আইয়ার। মাত্র ১৬ রানে প্রথম উইকেট পড়ার পরে প্রায় ২০০ রানের একটা বিশাল বড় পার্টনারশিপ হয় ভারতীয় দলের ওপেনার গিল এবং আজকের তিন নম্বরে ব্যাট করা আইয়ারের মধ্যে। ২১৬ রানে গিয়ে দ্বিতীয় উইকেট পরে ভারতীয় দলের যেখানে শ্রেয়স রীতিমত সেঞ্চুরি করার পর অধৈর্য হয়েই উইকেট ছুঁড়ে দিয়ে চলে যান, তবে তিনি তার ইনিংস খেলে ফেলেছিলেন তিনি তখন আউট হলেও আর কোন অসুবিধা ছিল না। তবে তার অনবদ্য ইনিংসটি ছিল এই ম্যাচের সবথেকে সেরা যার কারণে তাকে এই ম্যাচে ম্যান অব দ্যা ম্যাচ সিলেক্ট করা হয়। বিরাট কোহলির জায়গায় ব্যাট করতে নেমেছিলেন তিনি আর তাকে সেই প্রশ্নই করা হয় প্রেজেন্টেশন সেরিমনিতে।

```

তাকে প্রশ্ন করা হয় যে তিন নম্বরে তুমি ব্যাট করলে এবং এত সুন্দর একটা সেঞ্চুরি করলে তাহলে কি তিন নম্বর জায়গাটা পাকাপাকিভাবে তোমার হয়ে যেতে পারে, এই প্রশ্নের জবাবে ভারতীয় দলের আজকের তিন নম্বরে ব্যাট করা শ্রেয়াস আইয়ার উত্তরে বলেন, ” তিন নম্বর জায়গাটা শুধুমাত্র বিরাট কোহলির জন্য তিনি যে ধরনের ক্রিকেট এতদিন ধরে খেলে আসছেন তার থেকে ভালো ওই জায়গায় কেউ কোনদিন খেলতে পারবে না, আমি তো অনেক দূর। তিন নম্বর জায়গায় সব থেকে সেরা ব্যাটসম্যান বিরাট কোহলি।”

বিরাট কোহলির প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়েছিলেন আজ শ্রেয়স আইয়ার। ৯০ বলে ১০৫ রানের যে অনবদ্য ইনিংসটি খেলেছেন যার মধ্যে ১১ টি বাউন্ডারি এবং ৩টি বিশাল ছক্কা ছিল। যতক্ষণ তিনি নিজের মধ্যে দাঁড়িয়ে ছিলেন অস্ট্রেলিয়ার বোলারদের দেখে এরকমটাই মনে হচ্ছিল যেন এটা বাংলাদেশ বা বা জিম্বাবুয়ের মতো কোন দুর্বল দলের বোলার, অথচ অস্ট্রেলিয়ার পেস অ্যাটাকে ছিলেন হেজেলউড, জাম্পারা।

```

তিনি আরো জানান যে লম্বা ব্রেকের পর তিনি দলে ফিরেছেন এবং অবশেষে তিনি রান করতে পারছেন এতে তিনি যথেষ্ট খুশি। ব্যাটিং করার সময়ও একটু আধটু সমস্যা তার হয়েছিল কারণ তিনি লম্বা সময় ব্যাটিং করেছেন তবে তিনি জানাচ্ছেন লড়াই করেই রান করতে হবে, লড়াই করে খেলতে হবে, লড়াই করেই জিততে হবে।

তার ফর্মে ফেরা ভারতীয় দলের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ কারণ ৪ নম্বর অথবা পাঁচ নম্বর জায়গায় ভারতীয় দল চাইছে এমন দুই ব্যাটসম্যান যারা দায়িত্ব সহকারে রান করতে পারবে যদি কোন ভাবে কোনো ম্যাচে টপ অর্ডারে সমস্যা দেখা যায়।