BCCI এখন অতীত!ভারতীয় ক্রিকেটের গণ্ডি ছাড়িয়ে ICC-তে বড়ো পদ লক্ষ্মণের

বিসিসিআইয়ে সৌরভ জমানায় বড়সড় দায়িত্ব হাতে পেয়েছেন ভিভিএস লক্ষ্মণ। এবার তাঁর সেই গণ্ডিটা ভারতীয় ক্রিকেট ছাড়িয়ে আন্তর্জাতিক মঞ্চে পৌঁছে গেল। ন্যাশনাল ক্রিকেট অ্যাকাডেমির প্রধান লক্ষ্মণ ঢুকে পড়লেন আইসিসির ক্রিকেট কমিটিতে।প্রাক্তন কিউয়ি তারকা ড্যানিয়েল ভেত্তোরির সঙ্গে লক্ষ্মণ বর্তমান ক্রিকেটারদের প্রতিনিধি হিসেবে যোগ দিলেন মেনস ক্রিকেট কমিটিতে।

মঙ্গলবার আইসিসির তরফে দুই কিংবদন্তির ক্রিকেট কমিটিতে ঢুকে পড়ার কথা জানিয়ে দেওয়া হয়। এছাড়া ক্রিকেট কমিটিতে প্রাক্তন ক্রিকেটারদের প্রতিনিধি হিসেবে মাহেলা জয়াবর্ধনের সঙ্গে যোগ দিলেন রজার হার্পার।লক্ষ্মণ এনসিএ প্রধানের দায়িত্ব সামলানোর পাশাপাশি আয়ারল্যান্ড সফরে ভারতীয় দলের কোচের ভূমিকাও পালন করেন। ইংল্যান্ড সফরেও তিনি দলের সঙ্গে ছিলেন।ভিভিএস আইসিসির ক্রিকেট কমিটিতে যোগ দেন অপর দুই ভারতীয় সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় ও জয় শাহর সঙ্গে। ক্রিকেট কমিটির চেয়ারম্যান সৌরভ।

জয় শাহ পূর্ণ সদস্য দেশগুলির প্রতিনিধি। এছাড়া গ্যারি স্টেড, শন পোলক, জোয়েল উইলসন, রামিজ রাজা, রঞ্জন মদুগালে, জেমি কক্স, কাইল কোয়ৎজাররা রয়েছেন ক্রিকেট কমিটিতে।স্টেড পূর্ণ সদস্য দেশগুলির কোচেদের প্রতিনিধি। উইলসন আম্পায়ারদের প্রতিনিধি। মদুগালে আইসিসির চিফ রেফারি। কক্স মেরিলিবোর্ন ক্রিকেট ক্লাবের প্রতিনিধি। সংবাদমাধ্যমের প্রতিনিধি হলেন পোলক। সহযোগী সদস্যদের প্রতিনিধি কোয়াৎজার। কমিটির অবজারভার হলেন রমিজ।বার্মিংহ্যামের বর্ষিক কনফারেন্সে আইসিসি এবছর তিনটি দেশকে সহযোগী সদস্যের মর্যাদা দেয়।

আফ্রিকার আইভরি কোস্ট ছাড়াও আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সংস্থার সহযোগি সদস্যপদ পায় এশিয়ার দু’টি দেশ কম্বোডিয়া ও উজবেকিস্তান। ৩টি নতুন দেশে মিলিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সংস্থার মোট সদস্য সংখ্যা দাঁড়ায় ১০৮টি। এদের মধ্যে সহযোগী সদস্যপদ রয়েছে ৯৬টি দেশের কাছে। টেস্ট খেলিয়ে পূর্ণ সদস্য দেশ রয়েছে মোট ১২টি। এছাড়া এই কনফারেন্সেই রাশিয়ার সদস্যপদ কেড়ে নেয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সংস্থা। ২০২১-এর বার্ষিক সাধারণ সভায় রাশিয়ার ক্রিকেট সংস্থার উপর প্রতিবন্ধকতা জারি করেছিল আইসিসি। এখনও সমস্যার কোনও সমাধানসূত্র খুঁজে বার করতে না পারায় কঠোর পদক্ষেপ নেয় তারা।

অন্যদিকে, যুদ্ধবিধ্বস্ত ইউক্রেনের সদস্যপদের আর্জি আপাতত খারিজ করেছে আইসিসি। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সংস্থার সদস্যপদ পাওয়ার জন্য আবেদন জানিয়েছিল ইউক্রেন। তবে সেদেশে ক্রিকেটের গতিবিধি পুনরায় সচল না হওয়া পর্যন্ত ইউক্রেনকে সহযোগী সদস্যের তালিকায় রাখতে নারাজ আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সংস্থা। তবে আইসিসির তরফে ক্রিকেটের উন্নয়নের জন্য ইউক্রেনকে সবরকম সাহায্য করা হবে বলে জানানো হয়েছে।