কোহলিকে কেন বাদ দিচ্ছে না বিসিসিআই? আসল কারণ টেনে বের করলেন মন্টি পানেসার

২০১৯ সালে ইডেন গার্ডেন্সে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে টেস্টে সেঞ্চুরি এসেছিল বিরাট কোহলির ব্যাট থেকে। তারপর কেটে গিয়েছে প্রায় তিন-তিনটে বছর। কোহলির ব্যাটে যেন জং ধরে গিয়েছে। কোনও ফরম্যাটেই রান পাচ্ছেন না তিনি। লাগাতার ব্যর্থতার জেরে তীব্র সমালোচনার মুখে পড়তে হচ্ছে এককালের বিশ্বের সেরা ব্যাটারকে। প্রশ্ন উঠছে, কেন তাঁকে দল থেকে বাদ দেওয়া হচ্ছে না। এবার সেই প্রসঙ্গেই ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডকে (BCCI) খোঁচা দিলেন মন্টি পানেসার।

চলতি বছর চারটি টি-টোয়েন্টিতে এখনও পর্যন্ত ৮১ রান বিরাট কোহলির (Virat Kohli) ঝুলিতে। স্ট্রাইক রেট ১২৮ এবং গড় ২০.২৫। টানা ব্যর্থ হলেও ছোট ফরম্যাটের ক্রিকেট থেকে তাঁকে বাদ দিতে এখনই রাজি নয় বিসিসিআই। বরং তিনি বিশ্রাম চাইলে বিশ্রামও পেয়ে যাচ্ছেন। আবার তাঁকে তিন নম্বরে খেলানোর জন্য ফর্মে থাকা ব্যাটারকেও বসিয়ে দেওয়া হচ্ছে। যা নিয়ে ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে সমালোচনা।

এই প্রসঙ্গেই এবার ভারতীয় বোর্ডকে কটাক্ষ করলেন প্রাক্তন ইংলিশ তারকা পানেসার। তাঁর দাবি, কোহলি দলে থাকলে টিম ইন্ডিয়ার (Team India) খেলা দেখতে বেশি আগ্রহী হন দর্শকরা। তাই তিনি না খেললে বিরাট অঙ্কের ক্ষতির মুখে পড়তে পারে বিসিসিআই। সেই জন্যই তাঁকে বাদ দেওয়ার সাহস দেখাতে পারছেন না সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়রা (Sourav Ganguly)!

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে মন্টি বলেন, “সমস্যাটা হল গোটা বিশ্বের সবচেয়ে বিপণনযোগ্য ক্রিকেটার হলেন কোহলি। শচীন তেণ্ডুলকরের পর সম্ভবত তিনিই এই জায়গায় পৌঁছতে পেরেছেন। তাই আর্থিক দিক থেকেও কোহলি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। প্রত্যেকেই মাঠে বিরাটের খেলা দেখতে চায়। ওর প্রচুর সমর্থক। অনুরাগীদের চোখের মণি কোহলি। আমরা সবাই ওকে ভালবাসি। ইংল্যান্ডেও ওর ভক্তের সংখ্যা কম নয়। তাই বিসিসিআইকে ভেবেচিন্তেই সিদ্ধান্ত নিতে হবে।

এরপরই তিনি যোগ করেন, কোহলি খেললে স্টেডিয়ামে স্পনসরদের ছড়াছড়ি। শুধু বিসিসিআই নয়, বিরাটের উপস্থিতিতে আয় হয়েছে অন্য দেশের বোর্ডেরও। মন্টির প্রশ্ন, সত্যিই কি ভারতীয় দলে এখন কোহলিকে দরকার? বিসিসিআইয়ের কিন্তু এবার ভাবার সময় এসেছে। আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও (T-20 World Cup) কোহলি থাকলে স্পনসরের অভাব হবে না। কিন্তু দলের জয়ের চেয়েও কি আয় বেশি গুরুত্বপূর্ণ? মন্টির দাবি, কোহলিকে নিয়ে কোনও সিদ্ধান্ত না নিলে সমস্যায় পড়তে হতে পারে কোচ দ্রাবিড় ও অধিনায়ক রোহিত শর্মাকে।