“ওকে কেন দলে নেওয়া হলো না”বাংলার প্লেয়ারকে দলে না নেওয়ায় বি’স্ফোরক মন্তব্য সৌরভের !

BCCI সম্প্রতি ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের জন্য ভারতীয় টেস্ট দল ঘোষণা করেছে। যেখানে অনেক গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় নির্বাচন করা হয়নি। এ নিয়ে শুরু হয়েছে বিস্তর বিতর্ক। ঘরোয়া ক্রিকেটে দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের পরও কেন সরফরাজ খান বা অভিমন্যু ঈশ্বরনকে নির্বাচিত করা হয়নি তা নিয়ে এবার প্রশ্ন তুললেন বিসিসিআই-এর প্রাক্তন সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। বাংলার অধিনায়ক ও মুম্বইয়ের ব্যাটারকে নিয়ে প্রশ্ন করেছেন ভারতীয় দলের প্রাক্তন অধিনায়ক সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়।

সরফরাজ খানকে টেস্ট দলে না নেওয়ায় প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন ভারতীয় দলের প্রাক্তন অধিনায়ক সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। বিসিসিআই-এর প্রাক্তন সভাপতি বলেছিলেন যে সরফরাজ খান টেস্ট দলে জায়গা পাওয়ার যোগ্য। তিনি মনে করিয়ে দিয়েছেন যে মুম্বইয়ের ব্যাটসম্যান সরফরাজ খান গত তিনটি রঞ্জি মরশুমে মোট ২৫৬৬ রান করেছেন। সরফরাজ খান ২০১৯/২০ মরশুমে ৯২৮ রান, পরের মরশুমে ৯৮২ রান এবং পরের মরশুমে ৬৫৬ রান করেছিলেন।পিটিআই সংবাদ সংস্থাকে সৌরভ বলেছেন, ‘আমার মনে হয় রঞ্জি ট্রফি, দলীপ ট্রফি এবং ইরানি ট্রফিতে বহু সেঞ্চুরির কারণে যশস্বী জসওয়ালকে দলে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। সরফরাজ খানের জন্য খারাপ লাগছে। গত তিন বছরে তিনি যে পরিমাণ রান করেছেন তা বিবেচনা করলে মনেই হবে যে ভারতীয় দলে তিনি জায়গা পাওয়ার যোগ্য।’

```

আইপিএল ২০২৩-এর সময় দিল্লি ক্যাপিটালস-এ সরফরাজ খানের সঙ্গে সময় কাটিয়েছিলেন সৌরভ। মহারাজ বলেছেন, তরুণ ব্যাটসম্যানের তাঁর যোগ্যতা প্রমাণের সুযোগ দেওয়া দরকার। তিনি আরও বলেন, সরফরাজ খানের কোনও দুর্বলতা থাকলে ঘরোয়া ক্রিকেটে এত রান করতে পারতেন না।

সৌরভ গঙ্গোপাধ্য়ায় বলেছেন, ‘অভিমন্যু ঈশ্বরনের ক্ষেত্রেও একই কথা প্রযোজ্য যে তিনি গত পাঁচ-ছয় বছরে প্রচুর রান করেছেন। কিন্তু আমি অবাক যে সরফরাজ এবং অভিমন্যু দুজনেই সুযোগ পাননি। ভবিষ্যতে তাদের বিচার হবে বলে আশা করা হচ্ছে। তবে যশস্বী জসওয়ালের নির্বাচন ভালো হয়েছে।’

```

ভারতীয় দলের প্রাক্তন এই অধিনায়ক আরও বলেন, ‘ফাস্ট বোলিংয়ের বিরুদ্ধে সরফরাজ খানকে না খেলালে জানবেন কীভাবে যে সে পেসকে কীভাবে ফেস করে? তার যদি ত্রুটি থাকত, তাহলে ভারতের সব জায়গায় রান করতে পারতেন না। আমি ব্যক্তিগতভাবে মনে করি, ফাস্ট বোলিং নিয়ে সরফরাজ খানের কোনও সমস্যা নেই এবং তার সুযোগ পাওয়া উচিত।’