এক বোলারকে ODI ম্যাচে ১১ ওভার বল করিয়ে ম্যাচ জিততেই চরম শাস্তি পেল পুরো নিউজিল্যান্ড দল !

শুক্রবার শ্রীলংকার বিপক্ষে নিউজিল্যান্ডের অফ স্পিনার ইডেন কারসন আইসিসির নিয়ম ভেঙে ১১ ওভার বোলিং করেন। নিয়ম অনুযায়ী ওয়ানডে ক্রিকেটে এক ম্যাচে একজন বোলার সর্বোচ্চ ১০ ওভার বল করতে পারেন। সেই নিয়ম ভাঙ্গেন কারসন। শ্রীলংকার ইনিংসের ৪৫তম ওভারে নিজের বোলিং স্পেল শেষ করেন কারসন। ১০ ওভারে ৪০ রান দিয়ে ২ উইকেট তুলে নেন তিনি। এই অফ স্পিনারকে আবার ৪৭তম ওভারে বল করতে ডাকেন অধিনায়ক সোফি ডিভাইন।

১১তম ওভার বল করার ডাক পেয়েও কিছু বলেননি কারসন। কোন বোলার কত ওভার বল করেছেন, দুই আম্পায়ারও সম্ভবত সেই হিসেব রাখেননি। প্রতিপক্ষ দল থেকেও কোনো আপত্তি করা হয়নি। ফলে নির্বিঘ্নে ১১তম ওভার বল করেন কারসন। সেই ওভারে তিনি খরচ করেন ১ রান। খেলা শেষ হওয়ার পর বিষয়টি সকলের নজরে আসে। তৈরি হয় বিতর্ক। নিয়ম ভেঙ্গে ১১ ওভার বল করায় শাস্তির মুখে কারসেনের। শাস্তির মুখে নিউজিল্যান্ড নারী দলও।

```

এদিন প্রথমে ব্যাট করে ৭ উইকেটে ৩২৯ রান করে নিউজিল্যান্ড। জবাবে ৪৮.৪ ওভারে ২১৩ রানে অলআউট হয় শ্রীলংকা। ১১৬ রানে জয় পায় কিউইরা। খেলার শুরুতে নিউজিল্যান্ড মেয়েরা টস জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয়। তারা তাদের নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৩৩০ রানের বিশাল টার্গেট রাখে শ্রীলঙ্কার সামনে। তাদের ইনিংসের তৃতীয় উইকেটে অ্যামেলিয়া কের এবং অধিনায়ক সোফি ডিভাইন ২২৯ রানের দুর্দান্ত পার্টনারশিপ গড়েন। দুই তারকাই সেঞ্চুরি হাঁকান। অ্যামেলিয়া কের ১০৬ বলে ১০৮ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলেন।

তাঁর ইনিংসে রয়েছে ৭টি চার এবং একটি ছক্কা। আর সোফি ডিভাইন ঝড় তুলে ১২১ বলে অসাধারণ ছন্দে ১৩৭ রান করেন। এই জুটি ৩০০ পার করিয়ে দেয় নিউজিল্যান্ডকে। বাকিরা কেউ অবশ্য ২৫ রানের গণ্ডি আর টপকাতে পারেননি। নির্দিষ্ট ৫০ ওভারে ৭ উইকেটে ৩২৯ রান করে নিউজিল্যান্ড। শ্রীলঙ্কার হয়ে ওশাদি রানাসিংহে ৩ উইকেট নেন। উদেশিকা প্রবোধনিও দু’টি উইকেট নেন। ১টি করে করে উইকেট নিয়েছেন সুগন্দিকা কুমারী এবং ইনোকা রনবীরা।৩৩০ রানের বিশাল লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শ্রীলঙ্কার ব্যাটিং-অর্ডার একেবারে বিপর্যয়ের মুখে পড়ে। ধারাবাহিক ভাবে উইকেট হারাতে থাকে লঙ্কার মেয়েরা। তারা একটা বড় পার্টনারশিপ গড়ার জন্য লড়াই করেছে।

```

একমাত্র কবিশা দিলহারি ছয়ে নেমে কিছুটা হাল ধরেছিলেন বলে দু’শোর গণ্ডি পার করতে পেরেছে শ্রীলঙ্কা। তা না হলে আরও শোচনীয় হাল হত লঙ্কানদের। কবিশা ৯৮ বলে ৮৪ রানের নির্ভরযোগ্য ইনিংস খেলেন। বাকি ব্যাটারদের দশা তথৈবচ। কেউই ২০ রানেও পৌঁছতে পারেননি। ৪৮.৪ ওভারে ২১৩ রানে অলআউট হয়ে যায় শ্রীলঙ্কা। নিউজিল্যান্ড হয়ে লিয়া তাহুহু ৪ উইকেট নিয়েছেন। কারসন ১১ ওভার বল করে দু’টি উইকেট নেন। কিউয়িরা ১১৬ রানে বড় জয় ছিনিয়ে নেয়।