‘ভারতের জারিজুরি শেষ,বিশ্বকাপে…’, টিম ইন্ডিয়াকে নিয়ে বি’স্ফোরক মন্তব্য করলেন গ্রেগ চ্যাপেল!

গ্রেগ চ্যাপল এবং ভারতীয় ক্রিকেটের সাথে তার কলঙ্কিত অধ্যায় কোন ক্রিকেট ভক্ত ভুলতে পারে না। ২০০৫ থেকে ২০০৭ সাল পর্যন্ত ভারতীয় ক্রিকেট দলের হেড কোচ ছিলেন গ্রেগ চ্যাপেল। এটা এমন একটা সময় ছিল, যখন ভারতীয় ক্রিকেট দলকে চূড়ান্ত প্রতিবন্ধকতার মধ্যে দিয়ে এগোতে হয়েছিল। শুধু তাই নয়, চ্যাপেলের কোচিং কেরিয়ারে এই দুটো বছর যথেষ্ট বিতর্কিত অধ্যায় হিসেবে চিহ্নিত হয়ে রয়েছে। এই সময়েই টিম ইন্ডিয়া বিশ্বকাপ টুর্নামেন্টের লিগ পর্যায় থেকে ছিটকে গিয়েছিল। দল থেকে ছিটকে গিয়েছিলেন বীরেন্দ্র সেহওয়াগও। এবার এই কলঙ্কিত অধ্যায় নিয়ে চ্যাপেল নিজেই মুখ খুলেছেন। আবার টিম ইন্ডিয়াকে নিয়েও তিনি বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন।

সম্প্রতি একটি ইন্টারভিউয়ে গ্রেগ চ্যাপেল সচিন তেন্ডুলকরের সঙ্গে কথাবার্তার ব্যাপারে উল্লেখ করেছেন। চ্য়াপেলের কথায়, ভারতীয় ক্রিকেট দলের কোচিংয়ের দায়িত্ব নেওয়ার পর একটি মজার ঘটনা ঘটেছিল। আমি নিজের হোটেল রুমেই ছিলাম। আচমকাই সচিনের ফোন আমার কাছে আসে। সচিন তাঁকে বলেন, আমরা কখন দেখা করতে পারি। এরপর উনি আমার সঙ্গে দেখা করার জন্য নীচে আসেন। বলেন, আমাদের ব্যাটিং যথেষ্ট কঠিন হয়ে গিয়েছে। আমি বলেছিলাম, সব ঠিক হয়ে যাবে।আসন্ন বিশ্বকাপ টুর্নামেন্টে টিম ইন্ডিয়ার জয়ের সম্ভাবনা ঠিক কতটা এবং বিরাট কোহলি এই জয়ে কতটা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবেন, তা নিয়েও মুখ খুলেছেন তিনি।

```

চ্যাপেল বললেন, ‘এবারের বিশ্বকাপে বিরাট কোহলি গেম চেঞ্জার হতে পারেন। যদি বিরাট কোহলি এই বড় ইভেন্টে ভালো পারফরম্যান্স করতে পারেন, তাহলে নিশ্চিতভাবেই একটা মজাদার টুর্নামেন্ট আমরা উপভোগ করব।’ সেইসঙ্গে তিনি আরও যোগ করেছেন, বর্তমানে বিরাটের কেরিয়ার এমন একটা জায়গায় দাঁড়িয়ে রয়েছে, যেখানে রান করতে হলে বিরাটকে আলাদা করে চেষ্টা করতে হবে। আগামী ৫ অক্টোবর থেকে ২০২৩ ওডিআই বিশ্বকাপ শুরু হতে চলেছে। তবে ভারতীয় ক্রিকেট দল আগামী ৮ অক্টোবর থেকে বিশ্বকাপ অভিযান শুরু করবে। প্রথম ম্যাচে তাদের অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে খেলতে হবে।

গ্রেগ চ্যাপেল আরও বললেন, ‘ঘরের মাঠে ভারতীয় ক্রিকেট দল বরাবরই সিংহ হয়ে উঠছে। ড্রেসিংরুমে বসে অতিথি দলের পারফরম্য়ান্স দেখতে আমার বরাবরই ভালো লাগত। সবসময় একটাই বিষয় মাথার মধ্যে ঘুরপাক খেত যে ঘরের মাঠে টিম ইন্ডিয়া অনেকটাই স্বস্তিতে থাকবে। আমি মনে করি যে এবারের বিশ্বকাপে ভারতীয় ক্রিকেট দল ফেভারিট হিসেবেই মাঠে নামবে। বরং ভারতকে হারানোর জন্য প্রতিপক্ষদের আরও বেশি করে লড়াই করতে হবে।’

```

তবে তিনি এও যোগ করলেন, ‘অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ভারত আগেকার মতো আর জারিজুরি কাজে লাগাতে পারবে না। কারণ সম্প্রতি অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল বেশ কয়েকবার ভারতে এসে খেলে গিয়েছে। ফলে ভারতের উইকেট সম্পর্কে অজিরা যথেষ্ট ওয়াকিবহাল। এমনকী, ইংল্যান্ডের বেশ কয়েকজন ক্রিকেটারও ভারতে এসে সময় কাটিয়ে গিয়েছে।’