জোড়া সুপার ওভার,৩ বলে ১৮ দরকার, লাগাতার ৩ ছক্কায় ম্যাচ শেষ করলেন সেই রিঙ্কু সিং,দেখুন ভিডিও

কোনও টি-২০ লিগে একই দিনে ২টি ম্যাচ সুপার ওভারে গড়ানোর ঘটনা আগে কখনও দেখা গিয়েছে কিনা সন্দেহ। বৃহস্পতিবার উত্তরপ্রদেশ টি-২০ লিগে ঠিক তেমন ঘটনাই চোখে পড়ে। প্রথমে গোরখপুর লায়ন্স বনাম লখনউ ফ্যালকনস ম্যাচ টাই হয়। সুপার ওভারে গোরখপুরকে হারায় লখনউ। পরে কাশী রুদ্রাস বনাম মীরাট মাভেরিকস ম্যাচও টাই হয়। শেষমেশ সুপার ওভারে কাশীকে হারায় মীরাট।

আরও উল্লেখযোগ্য বিষয় হল, মীরাটের হয়ে সুপার ওভারে দেখা যায় রিঙ্কু সিংয়ের ঝড়। জয়ের জন্য তাদের দরকার ছিল ১৭ রান। শিব সিংয়ের প্রথম বলে কোনও রান নেননি রিঙ্কু। পরের তিনটি বলে টানা ৩টি ছক্কা হাঁকিয়ে দলকে ম্যাচ জেতান তিনি।যদিও নির্ধারিত ২০ ওভারের ম্যাচে রিঙ্কু ধীর ইনিংস খেলেন। তিনি ১টি ছক্কার সাহায্যে ২২ বলে ১৫ রান করে আউট হন। তবে সুপার ওভারে নিজের ফিনিশার ভূমিকা যথাযথ পালন করেন কেকেআর তারকা।

```

শুরুতে ব্যাট করে লখনউ নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেটের বিনিময়ে ১৮৩ রান তোলে। ৬টি চার ও ৪টি ছক্কার সাহায্যে ৪৬ বলে ৭১ রান করে অপরাজিত থাকেন আরাধ্য যাদব। শিবম শর্মা ২০ রানে ১টি উইকেট নেন।পালটা ব্যাট করতে নেমে গোরখপুরও নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেটের বিনিময়ে ১৮৩ রান তোলে। ৮টি চার ও ৫টি ছক্কার সাহায্যে ৫৯ বলে ৯৫ রান করে অপরাজিত থাকেন অভিষেক গোস্বামী। যশ দয়াল ৩২ রানে ১টি উইকেট নেন।

সুপার ওভারে শুরুতে ব্যাট করে গোরখপুর ১ উইকেটের বিনিময়ে ৮ রান সংগ্রহ করে। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ৪ বলে ১২ রান তুলে ম্যাচ জিতে যায় লখনউ।শুরুতে ব্যাট করে মীরাট নির্ধারিত ২০ ওভারে ৪ উইকেটের বিনিময়ে ১৮১ রান তোলে। ৯টি চার ও ৪টি ছক্কার সাহায্যে ৫২ বলে ৮৭ রান করে অপরাজিত থাকেন মাধব কৌশিক। রিঙ্কু ১৫ রান করেন। ২১ রানে ২টি উইকেট নেন শিব সিং।

```

পালটা ব্যাট করতে নেমে কাশী ২০ ওভারে ৭ উইকেটের বিনিময়ে ১৮১ রান তোলে। ৫টি চার ও ২টি ছক্কার সাহায্যে ৪৪ বলে ৫৮ রান করেন করণ শর্মা। ৩টি চার ও ৩টি ছক্কার সাহায্যে ৪১ বলে ৫৭ রান করেন শিবম বনসাল। বৈভব চৌধরী ৩৪ রানে ২টি উইকেট নেন।সুপার ওভারে শুরুতে ব্যাট করে কাশী ১ উইকেটের বিনিময়ে ১৬ রান সংগ্রহ করে। জবাবে ব্যাট করতে নেমে রিঙ্কুর তিন ছক্কার সুবাদে ৪ বলে ১৮ রান তুলে ম্যাচ জিতে যায় মীরাট।