দুই বাংলাদেশী ক্রিকেটারকে দলে নিয়ে শক্তিশালী দল বানালো কলকাতা নাইট রাইডার্স

কলকাতা নাইট রাইডার্স নিলামের ময়দানে নেমেছিল সব থেকে কম টাকা নিয়ে, মাত্র ৭ কোটি টাকা নিয়ে নিলামে নেমেছিল কলকাতা নাইট রাইডার্স কিন্তু শেষ পর্যন্ত তারা বাজিমাত করেছে এমনটা বলা যায়, ওই সামান্য টাকার মধ্যে বেশ কিছু দুর্দান্ত ক্রিকেটারকে দলে নিয়ে ফেলেছে কলকাতা নাইট রাইডার্স। চেন্নাইয়ের জগদীশান থেকে শুরু করে বৈভব আরোরা, প্রথমে দেশীয় বেশ কয়েকটি ভালো ক্রিকেটার নেওয়ার পর এবার বাংলাদেশের দুই ক্রিকেটার কে দলে নিল কেকেআর। এমনকি নামিবিয়ার ক্রিকেটার কেও দলে নিয়েছে কলকাতা।

কলকাতা নাইট রাইডার্স এর তরফ থেকে আজকে সাকিবুল হাসানকে কেনার জন্য একটা ইচ্ছে দেখা যায়, নিলামের শেষের দিকে এসে সামান্য টুকু যে টাকা হাতে ছিল সেই নিয়েও শেষে শাকিব আল হাসানকে ১.৫ কোটি টাকা দিয়ে কিনে ফেলেন কলকাতার নাইট রাইডার্স এর মালিকরা। শুধু তাই নয় বাংলাদেশের লিটন দাস যিনি বিশ্বকাপে ভারতের বিরুদ্ধে দুর্দান্ত ইনিংস খেলেছিলেন তাকেও দলে নিয়েছে কলকাতা নাইট রাইডার্স। শুধু তাই নয় পাঞ্জাব থেকেও একটি দুরন্ত ক্রিকেটার কে দলে নিয়েছে কেকেআর।

পাঞ্জাব দলের একসময়ের নামকরা দুর্দান্ত ক্রিকেটার মনদীপ সিং তাকে 50 লক্ষ টাকায় দলে নিয়েছে কলকাতা নাইট রাইডার্স। দুরন্ত পেশ বোলার কুলওয়ান্ট খেজুরুলিয়াকে দলে নিয়েছে কলকাতা নাইট রাইডার্স। শুধু তাই নয় নামিবিয়া থেকেও একজন ক্রিকেটারকে দলে নিয়েছে কলকাতা নাইট রাইডার্স, একসময় যিনি দক্ষিণ আফ্রিকার দলে খেলেছিলেন এবং বর্তমানে নামিবিয়ার হয়ে খেলছেন সেই ডেভিড উইসা তাকে দলে নিয়েছে কলকাতা।

কলকাতা নাইট রাইডার্স এর তরফ থেকে সম্পূর্ণ চেষ্টা করা হয়েছে যাতে একটি শক্তিশালী দল তৈরি করা যায় তবে টাকার অভাবে আজকে কে কে আর বেশ কিছু ক্রিকেটারকে দলে নিতে পারেনি।দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেটার হেনরি ক্লাসিনকে দলে নেওয়ার চেষ্টা করলেও টাকার অভাবে ছেড়ে দিতে হয়েছে কলকাতা নাইট রাইডার্স কে।

এমনকি কলকাতা নাইট রাইডার্স এর হয়ে এক সময় খেলা শিবম মাভির পিছনেও দৌড়েছিল কলকাতা কিন্তু তার দাম ৬ কোটি পর্যন্ত পৌঁছে যায় যেখানে কলকাতার হাতে ছিল মাত্র সাত কোটি। তাই তাকে আর দলে ফেরাতে পারেনি কলকাতা। এখন দেখার মতো ব্যাপার হবে কলকাতা নাইট রাইডার্স এর এই দল আইপিএলে কিভাবে পারফর্ম করে।