ক্লাস সেভেনের দুই ছাত্রের ব্যাংক account এ জমা পড়লো ৯০০ কোটি টাকা,চাঞ্চল্য এলাকাজুড়ে

বিভিন্ন সময় বিভিন্নভাবে নানা কারণের জন্য ব্যাংক একাউন্ট থেকে টাকা কাটা হয়ে থাকে কখনো মেসেজের জন্য বা কখনো ডেবিট কার্ডের জন্য টাকা, আবার কখনো ব্যাংকে ফ্রড হয় যার জন্য অ্যাকাউন্ট থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা মানুষ আজকাল হারিয়ে বসে। তবে অদ্ভুত একটি কান্ড,টাকা কাটা গেলো না বরং দুই ছাত্রের একাউন্টে 900 কোটি টাকা জমা পড়ল। যার ফলে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকাজুড়ে।

ঠিক কি ঘটেছে ঘটনাটি ? বিহারের কাটিহার জেলার দুই ছাত্র গুরু চন্দ্র বিশ্বাস এবং অসিত কুমার এই দুজনের একাউন্ট মিলিয়ে মোট 900 কোটি টাকা জমা পড়েছে। স্টেট ব্যাংকের যেখানে তাদের অ্যাকাউন্ট আছে সেই ব্যাংকে তারা দেখতে গিয়েছিলেন যে স্কুলের ইউনিফর্ম কেনার জন্য সরকার তাদেরকে যে টাকা পাঠিয়েছে সেটা ঢুকেছে কিনা আর সেখানে গিয়েই তারা জানতে পারেন যে 900 কোটি টাকা তাদের একাউন্টে জমা পড়েছে।

যদিও এত বড় পরিমাণ টাকা ঢোকার ফলে ব্যাঙ্ক ম্যানেজার সঙ্গে সঙ্গে অ্যাকাউন্ট ফ্রিজ করেছে যে যাতে সেখান থেকে টাকা তোলা না যায়। অন্যদিকে এই ঘটনাটি পরিপ্রেক্ষিতে একটি তদন্ত শুরু হয়েছে যাতে আসল সত্য সামনে আসে সেই টাকা কোথা থেকে এলো। যদিও খুব সম্ভাবনা রয়েছে যে ব্যাংকের কোন একটি error এর জন্য এই সমস্যাটি হয়েছে।

কিছুদিন আগে রঞ্জিত দাস নামের একটি প্রাইভেট টিচারের একাউন্টে প্রায় সাড়ে পাঁচ লক্ষ টাকা জমা পড়েছিল যেটা তিনি ফেরত দিতে রাজি হননি যার মধ্যে থেকে 1 লক্ষ 60 হাজার টাকা তিনি খরচ করে ফেলেছিলেন এবং তিনি জানিয়েছিলেন যে এই টাকাটা তাকে সরকারের তরফ থেকে দেওয়া হয়েছে কারণ করোনার জন্য মানুষের ইনকাম বন্ধ হয়েছে বলে, যদিও টাকা না ফেরানোর কারণে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

তবে যেটা জানা যাচ্ছে যে টেকনিক্যাল error এর কারণে এ ধরনের সমস্যা সাধারণত হয়ে থাকে, এক্ষেত্রে গ্রাহকের উচিত ব্যাংক কে জানানো এবং টাকা যেখান থেকে এসেছে সেখানে যাতে টাকা ফেরত যায় তার জন্য সহযোগিতা করা, না হলে আবার রঞ্জিত দাসের মতো গ্রেফতার হতে হবে।