কঠিন পিচেই সচিন-সেহবাগের ঐতিহাসিক রেকর্ড ভেঙে বিশ্বরেকর্ড গড়লেন গিল ও রোহিত!

পাকিস্তানের পর শ্রীলংকা একের পর এক ম্যাচে অনবদ্য রেকর্ড গড়েই চলেছে ইন্ডিয়ার ওপেনিং জুটি। মঙ্গলবার কলম্বোতে এশিয়া কাপের সুপার ফোরের ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ভারতের দুই ওপেনার রোহিত শর্মা এবং শুভমন গিল বড় নজির গড়ে ফেলেছেন। এই ওপেনিং জুটি একদিনের ক্রিকেটে ইনিংসের ভিত্তিতে দ্রুততম হাজার রানের পার্টনারশিপ করার রেকর্ড গড়েছেন। মঙ্গলবার শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে রোহিত-শুভমন ৮০ রানের পার্টনারশিপ করেন। সেই সঙ্গে তাঁরা হাজার রানের পার্টনারশিপের মাইলস্টোন স্পর্শ করেন। এর আগে ১৪ ইনিংসে ১০০০ রান পূর্ণ করে ভারতীয়দের মধ্যে কেএল রাহুলের সঙ্গে রোহিতের রেকর্ড ছিল। সেই নজির এদিন টপকে যান রোহিত-শুভমন। শুধু তাই নয়, সচিন জাদেজাদের এক বিরাট রেকর্ড আজ ভাঙা হয়েছে।

রোহিত এবং শুভমন মিলে ওপেন করতে নেমে ১২টি ইনিংস খেলে হাজার রানের পার্টনারশিপ করেছেন। এছাড়া শিখর ধাওয়ান-অজিঙ্কা রাহানে, সচিন তেন্ডুলকর-অজয় জাদেজা এবং ফখর জামান-ইমাম উল হক জুটি ১৫টি করে ইনিংস খেলে হাজার রানের ওপেনিং পার্টনারশিপ করেছেন।তবে রেকর্ড গড়লেন রোহিত ও গিল। টপকে গিয়েছেন শিখর ধাওয়ান-অজিঙ্কা রাহানে, সচিন তেন্ডুলকর-অজয় জাদেজা এবং ফখর জামান-ইমাম উল হক জুটির নজিরকে।২০২৩ সালের ১০ জানুয়ারি গুয়াহাটিতে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ভারতের হয়ে রোহিত এবং গিল প্রথম বার ওপেন করতে নেমেছিলেন। প্রথম উইকেটে তারা ১৪৩ রান সংগ্রহ করেছিলেন। এই জুটি এর পর থেকে আরও তিনটি ১০০-এর বেশি পার্টনারশিপ করেছে। যার মধ্যে পর পর দু’টি এই এশিয়া কাপে- নেপালের বিরুদ্ধে ১৪৭ রানের পার্টনারশিপ এবং পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ১২১ রানের পার্টনারশিপ।

```

পাকিস্তানের বিরুদ্ধে দাপুটে জয়ের পর দিনই অবশ্য ব্যাটিং বিপর্যয় হয়ে ভারতের। কয়েক ঘন্টার ব্যবধানে বদলে গিয়েছে পুরো চিত্র। আগের দিন পাকিস্তানের বিধ্বংসী পেস আক্রমণের রেয়াত করেনি বিরাট কোহলি, কেএল রাহুলরা।‌ কিন্তু মঙ্গলবার শ্রীলঙ্কার স্পিনারদের সামনে অসহায় আত্মসমর্পণ করেন তাঁরা। অথচ ভারতীয় ক্রিকেটাররা নাকি স্পিনারদের ভালো খেলতে পারেন।দুনিথ ওয়েলালাগে এবং চরিথ আসালঙ্কার দাপটে একেবারে ল্যাজেগোবরে হয় ভারত। ১০ ওভারে ৪০ রানে ৫ উইকেট তুলে নেন তরুণ স্পিনার।

আসালাঙ্কা ৯ ওভারে ১৮ রান দিয়ে ৪ উইকেট নেন। মহেশ থিকশানা নেন একটি উইকেট। ভারতের ১০ উইকেটই এদিন তুলে নিয়েছেন লঙ্কার স্পিনাররা। ভারতীয় ব্যাটারদের মধ্যে একমাত্র রোহিত শর্মা ছাড়া বাকিরা ডাহা ফেল। ভারত অধিনায়ক একমাত্র হাফসেঞ্চুরি করেছেন। ৪৮ বলে ৫৩ রান করেন তিনি। মেরেছেন ৭টি চার এবং ২টি ছক্কা। তাছাড়া ভারতের দলের আর কোন ব্যাটসম্যানদের মধ্যে কেউ যে খুব ভালো কিছু খেলেছে সেটা বলা ভুল হবে তার কারণ স্পিন বোলিং এর সামনে সবাই রীতিমতো স্ট্রাগল করেছে।

```

তবে রান পাননি শুভমন গিল (১৯), বিরাট কোহলি (৩)। ইশান কিষান (৩৩), কেএল রাহুল (৩৯) কিছুটা চেষ্টা করলেও, বেশিক্ষণ উইকেটে টিকে থাকতে পারেনি। আটে নেমে অক্ষর প্যাটেল ২৬ রান করেছিলেন। তার জন্য তাও দু’শো রান পার করে ভারত। ৪৯.১ ওভারে ২১৩ রানেই শেষ হয়ে যায় ভারতের ইনিংস।

ভারতীয় দলের অনবদ্য বোলিংয়ের সামনে টিকতে পারেনি শ্রীলংকার দল এবং রীতিমতো ভারতের স্পিন অ্যাটাকের সামনে তারা আত্মসমর্পণ করেছে।