৬৬৬৬৬৬ নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে ইতিহাস বেন স্টোকসের, ১৮২ রানের ঝড়ো ইনিংসে তাণ্ডব চালিয়ে রেকর্ড ভাঙলেন

সদ্য অবসর ভেঙে ওডিআই ক্রিকেটে ফিরেছেন বেন স্টোকস। বিশ্বকাপের আগে তাঁর অবসর ভাঙার সিদ্ধান্ত যে একেবারে সঠিক ছিল, সেটা প্রতি মুহূর্তে বুঝিয়ে দিচ্ছেন বেন স্টোকস। নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে তৃতীয় এক দিনের ম্যাচেই অনবদ্য সেঞ্চুরি হাঁকালেন তিনি। অবসর ভেঙে এক দিনের ক্রিকেটে ফেরার পর বেন স্টোকসের প্রথম শতরানের সাক্ষী থাকল ওভাল। চাপের মুহূর্তে ব্যাট করতে নেমে ঝোড়ো ইনিংস খেলে ইংল্যান্ডকে পৌঁছে দিলেন রানের পাহাড়ে। একটাই আফসোস, খুব অল্পের জন্য দ্বিশতরান মিস করে গেলেন স্টোকস। তবে ইতিহাস গড়েছেন বেন স্টোকস।

দ্বিশতরান মিস হলেও, বেন স্টোকস কিন্তু ব্রিটিশ ক্রিকেটে ইতিহাস লিখে ফেলেছেন। তিনি বুধবার ইংল্যান্ডের ব্যাটার হিসেবে ওডিআই ক্রিকেটে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক হয়েছেন। এদিন স্টোকস ১২৪ বলে ১৮২ রানের ঝোড়ো একটি ইনিংস খেলেন। মারেন ১৫টি চার এবং ৯টি ছক্কা। তাঁর স্ট্রাইকরেট ছিল ১৪৬.৭৭। এর আগে ২০১৮ সালে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে জেসন রয় ১৮০ রান করেছিলেন। যা এতদিন ইংল্যান্ড ব্যাটারদের মধ্যে সর্বোচ্চ ওডিআই স্কোর ছিল। বুধবার নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে সেই নজিরই ভেঙে দিলেন বেন স্টোকস।বেন স্টোকস এদিন যখন ব্যাট করতে নেমেছিলেন, তখন ইংল্যান্ড ১৩ রানে ২ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে গিয়েছিল। সেখান থেকে দলকে টেনে তোলেন তিনি।

```

পাশে পান দাওয়িদ মালানকে। তৃতীয় উইকেটে দুই তারকা মিলে ১৯৯ রান যোগ করেন। ১২টি চার এবং একটি ছক্কার সৌজন্যে ৯৫ বলে ৯৬ করে আউট হয়ে যান মালান। মাত্র ৫ রানের জন্য তিনি সেঞ্চুরি মিস করেন। তবে হাল ধরে রেখেছিলেন স্টোকস। প্রায় টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের মেজাজেই এদিন ব্যাট করলেন বেন স্টোকস। তিনি ১৮২ করে বেন লিস্টারের বলে উইল ইয়ং ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন। তখন অবশ্য ইংল্যান্ডের রানের পাহাড়ে উঠে পড়েছে। স্টোকস যখন আউট হন, তখন দলের রান ছিল ৩৪৮। স্টোকস আউট হওয়ার পর ইংল্যান্ড আর মাত্র ২০ রানই যোগ করতে পারে। অধিনায়ক জস বাটলার ২৪ বলে ৩৮ রান করেছিলেন।

স্টোকস আউট হলে অতিরিক্ত আগ্রাসী হতে গিয়ে। না হলে আরও দু’টি নজির গড়তে পারতেন তিনি। ইংল্যান্ডের প্রথম ক্রিকেটার হিসাবে এক দিনের ক্রিকেটে দ্বিশতরান করতে পারতেন। দলের ইনিংস শুরু না করা বিশ্বের প্রথম ব্যাটার হিসাবেও দ্বিশতরানের মালিক হতেন স্টোকস। সবাই যখন ধরে নিয়েছে স্টোকসের দ্বিশতরান হবে, সে সময়ই বেন লিস্টারের বলে আউট হলেন আদতে নিউ জ়িল্যান্ডের ক্রিকেটার স্টোকস।

```

এর বাইরে বাকিরা কেই সেভাবে রানই পাননি। যার নিটফল, ইংল্যান্ড নির্দিষ্ট ৪৮.১ ওভারেই ৩৬৮ রানে অলআউট হয়ে যায় ব্রিটিশরা। তা না হলে আরও কিছু রান যোগ হতে পারত। নিউজিল্যান্ডের ট্রেন্ট বোল্ট একাই ৫ উইকেট নিয়েছেন। ৩ উইকেট নিয়েছেন বেন লিস্টার।

সব মিলিয়ে বিশ্বকাপে বেন স্টোকস কি করবেন সেটাই দেখার। কারণ ২০১৯ সালের বিশ্বকাপে কিভাবে তিনি একা হাতে ইংল্যান্ডকে জিতিয়েছেন এটা তো সবাই দেখেছে।