“আমি শুরুতে একটা কথাই বলেছি…”ভারতীয় দলের বিশ্বকাপ নিয়ে এবার বড়ো মন্তব্য করলেন সৌরভ !

রোহিত শর্মার নেতৃত্বে ভারতীয় ক্রিকেট দল ২০২৩ সালের ওডিআই বিশ্বকাপের আগেই এশিয়া কাপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে নিজেদের আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে নিয়েছে। রবিবার ফাইনালে শ্রীলঙ্কাকে ১০ উইকেটে বিধ্বস্ত করেছে টিম ইন্ডিয়া। ৫১ রানের সামান্য তুচ্ছ লক্ষ্য তাড়া করতে ভারতকে কোনও অসুবিধার সম্মুখীন হতে হয়নি এবং মাত্র ৬.১ ওভারে তারা ম্যাচ জিতে নিয়েছে।২০২৩ এশিয়া কাপের ফাইনালে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে একতরফা জয়ের পর ভারতীয় ক্রিকেট দলের প্রাক্তন অধিনায়ক এবং বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় টিম ইন্ডিয়ার প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়েছেন।

সৌরভ তাঁর অফিসিয়াল ‘এক্স’ অ্যাকাউন্টে একটি টুইট করে লিখেছেন, ‘আমি শুরুতেই বলেছিলাম.. এটি খুবই শক্তিশালী একটি দল.. পুরো টুর্নামেন্ট জুড়ে ওরা অসাধারণ ছিল.. ওয়েল ডান টিম ইন্ডিয়া.. রোহিত শর্মার এটি দ্বিতীয় এশিয়া কাপ শিরোপা.. ওয়েল ডান রোহিত, দ্রাবিড়, সাপোর্ট স্টাফ, নির্বাচক এবং বিসিসিআই-এ সব সদস্যরা।’এশিয়া কাপের ফাইনালে ইতিহাস লিখেছে ভারত। আর সেই ইতিহাসের নায়ক একজনই- মহম্মদ সিরাজ। আসলে দিনটাই বোধহয় ছিল সিরাজের। খেলার শুরুতেই তিনি এদিন ইতি টেনে দিয়েছিলেন। এশিয়া কাপের ফাইনালটা পুরোটাই ছিল সিরাজময়।৭ ওভার বল করে ২১ রান দিয়ে ৬ উইকেট তুলে নেন মহম্মদ সিরাজ।

```

মাত্র ১৬ বলে নিজের ষষ্ঠ উইকেট তুলে নেন তিনি। একদিনের ক্রিকেটে যৌথ ভাবে দ্রুততম পাঁচ উইকেট নেওয়ার রেকর্ড গড়েন। এশিয়া কাপে দ্বিতীয় সেরা বোলিং গড় এখন সিরাজের পকেটে। ভারতীয় বোলার হিসেবে এক ওভারে সর্বোচ্চ ৪ উইকেটও নিয়েছেন তিনি। দুরন্ত বোলিংয়ে একাধিক রেকর্ডের মালিক হয়ে গিয়েছেন মহম্মদ সিরাজ। আর তাঁর কাঁধে ভর করেই দাপুটে জয় ছিনিয়ে নিয়েছে টিম ইন্ডিয়া।টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ১৫.২ ওভারে মাত্র ৫০ রানে অলআউট হয়ে যায় শ্রীলঙ্কা। ভারতের দুর্ধর্ষ বোলিংয়ের পাশে জঘন্য ব্যাটিং শ্রীলঙ্কার।

মনেই হচ্ছিল না, এশিয়া কাপের মতো টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলতে নেমেছে লঙ্কা ব্রিগেড। তাদের মানসিকতা দেখে একেবারের জন্যও মনে হয়নি, এটি ৫০ ওভারের ম্যাচ। অবশ্য ২০ ওভারের ম্যাচ হলেও বা কী আহামরি পারফরম্যান্সই বা করেছে লঙ্কা ব্রিগেড। ১৫.২ ওভারেই শেষ ইনিংস। যে কোনও ফাইনালে সর্বনিম্ন স্কোরের মধ্যে জায়গা করে নিয়েছে শ্রীলঙ্কার এই ইনিংস।এদিন শ্রীলঙ্কার হয়ে সর্বোচ্চ স্কোর করেছেন কুশল মেন্ডিস। তিনি ১৭ রান করেছেন। এছাড়া দূষন হেমন্ত ১৩ রান করেছেন। বাকিরা এক অঙ্কের ঘরেই গড়াগড়ি করেছেন। পাঁচ জন ব্যাটার শূন্যতে সাজঘরে ফিরেছেন।

```

৫১ রান তাড়া করতে নেমে ঝড়ের গতিতে শুরু করেন ইশান কিষান এবং শুভমন গিল। এদিন ওপেন করেননি রোহিত শর্মা। পাঠান ইশানকে।২৩ রানে (১৮ বলে) অপরাজিত থাকেন ভারতের উইকেটকিপার ব্যাটার। অপরাজিত ২৭ রান (১৯ বলে) করেন শুভমন। ৬.১ ওভারে কোনও উইকেট না হারিয়ে ৫১ রান করে ফেলে ভারত। ২৬৩ বল বাকি থাকতে ১০ উইকেটে ম্যাচ পকেটে পুড়ে ফেলে রোহিত শর্মা ব্রিগেড।

সব মিলিয়ে বিশ্বকাপের আগে ভারতীয় দলের এই দাপট অবশ্যই তিন সপ্তাহ বাদে শুরু হতে চলা বিশ্বকাপে ভারতীয় দলকে আরো অনেক বেশি আত্মবিশ্বাস দেবে।