গিল-শ্রেয়সের সেঞ্চুরির দিনে চুপিসারে অনবদ্য বিশ্বরেকর্ড গড়লেন সূর্য্যকুমার যাদব!

এশিয়া কাপ জয়ের পর অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ঘরের মাঠে একদিনের সিরিজ খেলতে নেমেছে ভারত। প্রথম ম্যাচে জয় পায় কেএল রাহুলরা। মধ্যপ্রদেশের হোলকার স্টেডিয়ামে দ্বিতীয় ম্যাচ খেলতে নেমে মারমুখী ভঙ্গিতে দেখা গেল ভারতীয় ব্যাটারদের। টসে জিতে বোলিং করার সিদ্ধান্ত নেয় অস্ট্রেলিয়া। এই সিদ্ধান্তই তাঁদের হিতে বিপরীত হয়ে দাঁড়ালো। শুভমন, শ্রেয়সের দাপুটে ব্যাটিয়ের আক্রমণাত্মক হয়ে উঠলেন সূর্যকুমার যাদব। এক ওভারে মারলেন চারটি ছয়। এর সঙ্গে সঙ্গে তৈরি করলেন রেকর্ড। অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ভারতীয় ব্যাটার হিসেবে দ্রুততম অর্ধশত রানের রেকর্ড গেল তাঁর ঝুলিতে।

এছাড়াও একদিনের ম্যাচে তৃতীয় ভারতীয় ব্যাটার হিসাবে চারটে ছয় মারার নজির তৈরি করলেন তিনি।আজ ভারতীয় ইনিংসের শুরুতে রুতুরাজ আউট হয়ে যাওয়ার পর জুটি বাঁধেন শুভমন গিল ও চোট কাটিয়ে দলে ফিরে আসা আইয়ার। দুজনেই শতরান করেন। গিলের ব্যাট থেকে আসে ৯৭ বলে ১০৪ রানের ইনিংস। শ্রেয়াস ৯০ বলে করেন ১০৫ রান। কিন্তু ক্লাইম্যাক্স তখনও বাকি। মাঝে ৫২ রানের ইনিংস খেলে যান কেএল। ইশান কিষান করেন ৩১ রান। এই সময় থেকেই শুরু হয় সূর্য তাণ্ডব। দীর্ঘদিন উল্লেখযোগ্য রান না পাওয়া যাদবের ব্যাট থেকে তেজ ছড়িয়ে পড়তে থাকে।মুম্বই ইন্ডিয়ান্সে তাঁর সতীর্থ ক্যামেরন গ্রিনের বলে পরপর চারটি ছয় মারেন তিনি।

```

ইনিংসের ৪৪তম ওভারে এই কাণ্ড ঘটান তিনি। মাত্র ২৪ বলে অর্ধশতরান পূর্ণ করেন যাদব। অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে কোনও ভারতীয় ব্যাটারের সবচেয়ে দ্রুততম ৫০ রান এটাই। শেষ পর্যন্ত ৩৭ বলে ৭২ রান করে অপরাজিত থাকেন। মারেন ৬টি চার ও ৬টি ছয়। এছাড়াও তৃতীয় ভারতীয় ব্যাটার হিসেবে একদিনের ম্যাচে চারটে ছয় মারলেন তিনি।আর কিছুদিন পরেই ঘরের মাঠে বিশ্বকাপ। তার আগে সূর্যের এইরকম ফর্ম স্বাভাবিকভাবেই অনেকটা চাপ কাটিয়ে দেবে ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্টের। বিশ্বকাপ দলে তাঁর জায়গা নিয়েও অনেকের মধ্যে প্রশ্নচিহ্ন ঘুরপাক করতে থাকে।

তবে অজি বাহিনীর বিরুদ্ধে যাদবের এই ম্যাচ সকলের মুখ বন্ধ করে দেবে তা বলাই বাহুল্য। অন্যদিকে স্বস্তির নিশ্বাসও ফেলবেন প্রধান কোচ রাহুল দ্রাবিড়। প্রথম ম্যাচ জেতার পরে তিনটি একদিনের ম্যাচের সিরিজে দ্বিতীয় ম্যাচে অস্ট্রেলিয়াকে ৪০০ রানের লক্ষ্যমাত্রা দিয়েছে কে এল রাহুলের নেতৃত্বাধীন দল। আগামী ম্যাচে দলে ফিরে আসবেন রোহিত শর্মা, বিরাট কোহলিরা।

```

সব মিলিয়ে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে দ্বিতীয় ম্যাচে যে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করল ভারতীয় দল তা রীতিমত প্রশংসার যোগ্য, অস্ট্রেলিয়া দলকে দেখে বিন্দুমাত্রও মনে হয় নি যে ভারতীয় দলের খেলার কোয়ালিটির কাছাকাছিও তারা আসতে পেরেছে। সন এবোট শেষের দিকে আগুনে ব্যাটিং করেছিলেন, তবে শেষ রক্ষা তিনি করতে পারেননি, তাছাড়া অস্ট্রেলিয়া দলের মধ্যে প্রশংসার যোগ্য ব্যাটিং করেছেন ডেভিড ওয়ার্নার।

অস্ট্রেলিয়া দলের সমস্ত প্লেয়ারদের মধ্যে ডেভিড ওয়ার্নার প্রথম দিকে দুর্দান্ত ব্যাটিং করেছিলেন তবে তিনি নিজেও জানতেন না যে আউট হওয়ার সময় তার ব্যাটে বলটি লেগেছে যার কারণে তিনি রিভিউ পর্যন্ত নেননি। সবমিলিয়ে অস্ট্রেলিয়া দলের কাছে লাগাতার একের পর এক সিরিজ হার মাথা ব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে, এর আগে তারা দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে হেরেছে আর এবার ভারতের কাছে।