পুরো বিশ্বকাপে ছিটকে গেল গিল!এশিয়ানে চ্যাম্পিয়ন হওয়া দলের ওপেনার এবার বিশ্বকাপ দলে খেলবেন!

বিশ্বকাপে প্রথম ম্যাচ খেলতে পারেননি। দ্বিতীয় ম্যাচেও পারবেন না। অনিশ্চিত তৃতীয় ম্যাচেও। এমন অবস্থায় শুভমন গিলকে আদৌ পুরো বিশ্বকাপের জন্য রাখা হবে? না কি তাঁর বদলে দলে নেওয়া হবে অন্য কোনও ক্রিকেটারকে? আলোচনায় বসবেন নির্বাচকেরা। বুধবার দিল্লিতে ভারত-আফগানিস্তান ম্যাচের মাঝেই সেই আলোচনা হতে পারে বলে জানা গিয়েছে।শুভমন প্রথম ম্যাচে খেলতে পারেননি। দ্বিতীয় ম্যাচেও খেলবেন না।

এমন অবস্থায় বোর্ডের নির্বাচকেরা যশস্বী জয়সওয়াল বা রুতুরাজ গায়কোয়াড়কে তৈরি থাকতে বলতে পারেন। শুভমনের যদি সুস্থ হতে সময় লাগে, সে ক্ষেত্রে তাঁর জায়গায় যশস্বীদের মধ্যে কাউকে দলে নেওয়া হতে পারে। তবে ভারতীয় দল যদি চায় তবেই দলে নেওয়া হবে অন্য কাউকে। রোহিত শর্মারা অপেক্ষা করতে পারেন শুভমনের জন্য। সে ক্ষেত্রে সুস্থ হওয়ার পর দলে যোগ দেবেন তিনি।জীবনের প্রথম এক দিনের বিশ্বকাপ খেলার সুযোগ পেয়েছিলেন শুভমন। কিন্তু প্রথম ম্যাচের আগেই তিনি ডেঙ্গি আক্রান্ত হন।

```

প্লেটলেট কমতে থাকায় সোমবার চেন্নাইয়ের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করানো হয় শুভমনকে। মঙ্গলবার যদিও ছেড়ে দেওয়া হয়েছে তাঁকে। সোমবার বোর্ডের তরফে জানানো হয় যে, ভারতীয় দলের সঙ্গে দিল্লি যাননি শুভমন। তাঁর মতো এক জন ওপেনারের সুস্থ হওয়ার জন্য অপেক্ষা করতে পারে ভারত। শুভমনের অবর্তমানে রবিবার রোহিতের সঙ্গে ওপেন করেছিলেন ঈশান কিশন। কিন্তু…

প্রথম বলেই অফ স্টাম্পের বাইরে খেলতে গিয়ে উইকেটরক্ষকের হাতে ক্যাচ দেন তিনি। ঈশানের আউট হওয়ার ধরন চিন্তা বৃদ্ধি করতে পারে দলের। যদিও তরুণ ওপেনার রানের মধ্যে ছিলেন। রবিবারের ম্যাচ ব্যতিক্রম বলেই মনে করতে চাইবেন তিনি। বুধবার আবার সুযোগ পেতে পারেন ঈশান। আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে তা কাজে লাগিয়ে দলকে ভরসা দিতে চাইবেন তরুণ ওপেনার।

```

শুভমানের মতো ক্রিকেটারের ছিটকে যাওয়া অবশ্যই ভারতীয় দলের জন্য একটা বিশাল বড় ধাক্কা কারণ বর্তমানে দেখতে গেলে তিনি বিশ্বের এক নম্বর ব্যাটসম্যান। বিরাট কোহলি ভারতীয় দলে কোন চাপ ছাড়াই বর্তমানে তিন নম্বরে ব্যাট করেন তার অন্যতম কারণ শুভমান গিল, যিনি ওপেনিং এ দুর্দান্ত ব্যাটিং করে থাকেন আর প্রথম ম্যাচে তিনি না থাকায় সমস্ত দায়িত্ব গিয়ে পড়ে বিরাট কোহলির উপর এবং চাপের মুখে তিনি দুরন্ত একটা ইনিংস খেলে দেন।

বিশ্বকাপ একটা লম্বা টুর্নামেন্ট সুতরাং তাকে যতো তাড়াতাড়ি সম্ভব ভারতীয় দলে চাইবে টিম ইন্ডিয়া ম্যানেজমেন্ট তার কারণ প্রত্যেক ম্যাচে বিরাট কোহলির উপর রান করার চাপ দেওয়াটা কখনোই ঠিক হবে না কারণ কোন না কোন ম্যাচে তিনি ব্যর্থ হলেই ফেঁসে যাবে টিম ইন্ডিয়া।