জাদেজা আসছিলেন,সাহসী হয়ে ক্যাচ ধরতে গিয়ে ফস্কে গেল বল,পরে উড়ন্ত ক্যাচ,দেখুন দুর্দান্ত ভিডিও

বল হাতে একটি উইকেট নিয়েছেন তিনি। শুধু তাই নয়, দুর্দান্ত ক্যাচ নিয়ে তাক লাগিয়ে দিলেন কুলদীপ যাদব। তারকা ক্রিকেটার এর ক্যাচ ধরে ফিরিয়ে দিলেন ভারতের এই স্পিনার। সবে মাত্র ওভার শুরু করেছেন জসপ্রীত বুমরাহ। ঠিক প্রথম বলেই অর্থাৎ ৪৮.১ ওভারের মাথায় বুমরাহর বলে চালিয়ে খেলতে যান ব্যাটসম্যান। বল উপরের দিকে উঠে যায়। দৌড়ে ক্যাচ ধরে এগিয়ে আসেন কুলদীপ। প্রথম পদক্ষেপে বল লাগিয়েও ফেলেন তিনি। কিন্তু বল তালু বন্দি করতে পারেননি ভারতীয় এই স্পিনার। তাঁর সামনেই ছিলেন রবীন্দ্র জাদেজা। তিনি ধরার আগেই দ্বিতীয় পদক্ষেপে ক্যাচটি ধরে নেন কুলদীপ। তাতেই আউট হয়ে যান রশিদ। কুলদীপকে জড়িয়ে ধরেন রবীন্দ্র জাদেজা।

কুলদীপ যাদবের এই ক্যাচ যে মোটেই সহজ ছিল না, তা মেনে নিয়েছে ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা। ধারাভাষ্যের দায়িত্বে থাকা প্রাক্তন ক্রিকেটাররা প্রশংসা করেন চায়নাম্যান স্পিনারের। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে গিয়েছে তাঁর ক্যাচ ধরার সেই ভিডিয়ো। রোহিত-বিরাট তারাও বাহবা দেন কুলদীপকে। বলা ভালো বুমরার চতুর্থ উইকেট নিতে সাহায্য করলেন কুলদীপ। দেখুন ভিডিও:

```

পাশাপাশি জানিয়ে রাখবো যে ভারতের বিরুদ্ধে মাত্র ১৯১ রানে বান্ডিল হয়ে গেছে পাকিস্তানের দল। যা পাকিস্তান দলের জন্য রীতিমতো লজ্জাজনক যে তারা ২০০ রানের গণ্ডি পর্যন্ত পেরতে পারে নি। ভারতীয় দলের তরফ থেকে প্রত্যেকটি বোলার দুর্দান্ত বোলিং করেছে বিশেষ করে কুলদীপ যাদব এবং জসপ্রিত বুমরা যাদের বল রীতিমতো বুঝতেই পারেনি পাকিস্তানের ব্যাটসম্যানরা। এই রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে দুর্দান্ত ব্যাটিং করেছে টিম ইন্ডিয়া, বিশেষ করে রোহিত শর্মা, গিল ও ভালো শুরু করেছিলেন।

এর আগের দিনে আফগানিস্তানের সঙ্গে যে ম্যাচ খেলেছিল ভারত সেই দিনে টসে জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় আফগানিস্তান। ব্যাট হাতে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করে হাশমতউল্লাহ শাহিদি। তিনি ৮৮ বলে ৮০ রান করেন। তাঁর এই ইনিংসটি সাজানো ছিল ৮টি বাউন্ডারি এবং ১টি ওভার বাউন্ডারির সৌজন্যে। এছাড়াও আজমতউল্লাহ ওমরজাই ৬৯ বলে করেন ৬২ রান। তাঁর ইনিংসটি সাজানো ২টি বাউন্ডারি এবং ৪টি ওভার বাউন্ডারির মাধ্যমে। এই দুই ব্যাটারের বড় রানে ভর করে ৮ উইকেট হারিয়ে ২৭২ রান তোলে আফগানিস্তান। বিশ্বকাপের ইতিহাসে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান করল আফগানরা।

```

এদিন এই দুই ব্যাটার ছাড়াও রশিদ খান ১২ বলে ১৬ রান করে যান। আফগান স্পিনারের ইনিংসটি সাজানো ছিল ১টি বাউন্ডারি এবং ১টি ওভার বাউন্ডারির সাহায্যে। শেষের দিকে পরপর উইকেট হারাতে থাকে তারা। শুধু তাই নয়, এদিন বল হাতে চারটি উইকেট নেন জসপ্রীত বুমরাহ। ১০ ওভার হাত হাত ঘুরিয়ে ৩৯ রান খরচ করেন তিনি।

এছাড়াও হার্দিক পান্ডিয়া ২টি এবং শার্দুল ও কুলদীপ একটি করে উইকেট নেন। ভারতকে জিততে হলে করতে হবে ২৭৩ রান। এখন এটাই দেখার গত ম্যাচের পর আজও টপ অর্ডারের ব্যাটিং ব্যর্থতার মুখে পড়েন, নাকি রান করেন।

সব মিলিয়ে ভারত পাকিস্তান হাই ভোল্টেজ ম্যাচ এর আগে ভারতীয় দল যে দুরন্ত ফর্ম দেখালো তা রীতিমতো প্রশংসা যোগ্য।