ঐতিহাসিক :অনবদ্য সেঞ্চুরি দিয়ে বাংলা-আসামকে জিতিয়ে ইতিহাস গড়লেন বাংলার অভিমন্যু !

চেনা ফর্মে অভিমন্যু ঈশ্বরণ। দেওধর ট্রফির ম্যাচে উত্তর-পূর্বাঞ্চলের বিরুদ্ধে অপরাজিত শতরান করলেন। তাঁর দাপটে বুধবার পূর্বাঞ্চল জিতল ৮ উইকেটে। প্রতিযোগিতার অন্য দুই ম্যাচে জয় পেল উত্তরাঞ্চল এবং দক্ষিণাঞ্চল।ওয়েস্ট ইন্ডিজ় সফরের ভারতীয় দলে সুযোগ পাননি। টেস্ট বিশ্বকাপ ফাইনালে প্রথমে স্ট্যান্ড বাই হিসাবে থাকলেও পরে বাদ পড়েছিলেন। ঘরোয়া ক্রিকেটে ভাল পারফরম্যান্স করেও সুযোগ না পেয়ে হতাশ ছিলেন অভিমন্যু। জাতীয় নির্বাচকদের জবাব দেওয়ার জন্য বাংলার ব্যাটার বেছে নিয়েছেন ২২ গজকেই। বুধবার তাঁর ব্যাটে ভর করে উত্তর-পূর্বাঞ্চলের বিরুদ্ধে গুরুত্বপূর্ণ জয় ছিনিয়ে নিল পূর্বাঞ্চল।

প্রথমে ব্যাট করে উত্তর-পূর্বাঞ্চল করে ১৬৯ রান। জবাবে ৩১.৩ ওভারে ২ উইকেটে ১৭০ পূর্বাঞ্চলের। অভিমন্যুর ব্যাট থেকে এল অপরাজিত ১০০ রানের ইনিংস। ওপেন করতে নেমে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়লেন তিনি। ১০২ বলের ইনিংসটি তিনি সাজালেন ১৩টি চার দিয়ে। মূলত তাঁর ব্যাটিংয়ের উপর ভর করেই জয় পেল পূর্বাঞ্চল। অন্য ওপেনার উৎকর্ষ সিংহ করলেন ২৯। তিন নম্বরে নামা রিয়ান পরাগও (১৩) রান পেলেন না। শেষ পর্যন্ত অভিমন্যুর সঙ্গে ২২ গজে ছিলেন বিরাট সিংহ (অপরাজিত ১৭)। উত্তর-পূর্বাঞ্চলের সফলতম বোলার লি অং লেপচা ৩৪ রানে ২ উইকেট পেয়েছেন।এর আগে উত্তর-পূর্বাঞ্চলের ব্যাটারেরা সমস্যায় পড়েন পূর্বাঞ্চলের বোলিং আক্রমণের সামনে।

```

সাত নম্বরে নামা রেক্স রাজকুমার ছাড়া কেউই বলার মতো রান পাননি। রেক্স ৭৪ বলে ৬৫ রান করে অপরাজিত থাকেন। ১০ চার মারেন তিনি। উত্তর-পূর্বাঞ্চলের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান লি-র ৫৩ বলে ২৬। পূর্বাঞ্চলের সফলতম বোলার রিয়ান ৩০ রান দিয়ে ৪ উইকেট নেন। বাংলার শাহবাজ় আহমেদ ৩৬ রান ২ উইকেট নেন। ২০ রানে ২ উইকেট মুখতার হোসেনের।দেওধর ট্রফির অন্য ম্যাচে মধ্যাঞ্চলকে ৪৮ রানে হারায় উত্তরাঞ্চল। উত্তরাঞ্চলের ৮ উইকেটে ৩০৭ রানের জবাবে মধ্যাঞ্চল করে ২৫৯ রান। উত্তরের প্রভশিমরণ সিংহ ১২১ রানের ইনিংস খেলেন।

কেকেআর অধিনায়ক নীতীশ রানা ব্যাট হাতে ৫১ রান করার পাশাপাশি বল হাতে ৪৮ রান খরচ করে ৪ উইকেট নেন। ৪৮ রানে ২ উইকেট নেন হর্ষিত রানা।ব্যর্থ মধ্যাঞ্চলের অধিনায়ক বেঙ্কটেশ আয়ার (১১)। রান পেলেন না কেকেআরের আর এক ক্রিকেটার রিঙ্কু সিংহ (শূন্য)। বেঙ্কটেশ অবশ্য বল হাতে দু’টি উইকেট নেন।

```

অন্য ম্যাচে দক্ষিণাঞ্চলের ২০৬ রানের জবাবে পশ্চিমাঞ্চলের ইনিংস শেষ হয় ১৯৪ রানে। ৯৮ রানের ইনিংস খেলেন দক্ষিণাঞ্চলের অধিনায়ক ময়ঙ্ক আগরওয়াল। ৩৪ রানে ২ উইকেট ওয়াশিংটন সুন্দরের।