বড় খবর: ক্রিকেট থেকে চিরবিদায়,অবসর নিলেন ইংল্যান্ডের নাম্বার ওয়ান বোলার!

তার বয়স হয়ে উঠেছিল 37, অথচ টেস্ট ক্রিকেটে তিনি ইংল্যান্ডের নাম্বার ওয়ান বোলার। তাই তাকে চট করে ছেড়ে দিতে চাইছিল না ইংল্যান্ডের ক্রিকেট বোর্ড তবে বেশ কিছুদিন ধরেই তার অবসর নেওয়ার একটা জল্পনা চলছিল তবে অবশেষে তিনি ঘোষণা করে দিলেন অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে এই অ্যাসেজ তার শেষ টেস্ট ম্যাচ এরপর তিনি আর কোনরকম আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলবেন না। আর এই ঘোষণার সামনে আসতে শোকাহত অসংখ্য ক্রিকেট প্রেমী।

ওভালে নাটকীয় দিনের শেষটা আরও নাটকীয় করে তুললেন স্টুয়ার্ট ব্রড। পঞ্চম অ্য়াশেজ টেস্টের তৃতীয় দিনের শেষে ব্রড জানিয়ে দিলেন যে এটাই তাঁর শেষ টেস্ট হতে চলেছে। ওভালের টেস্ট মিটলেই সবধরনের ক্রিকেট থেকে অবসর নেবেন বলে জানিয়ে দেন ৩৭ বছরের ব্রড। যিনি আপাতত ৬০২টি উইকেট নিয়ে টেস্টের ইতিহাসে পঞ্চম সর্বোচ্চ উইকেট সংগ্রাহকের তালিকার পাঁচ নম্বরে আছেন। যে উইকেটের সংখ্যাটা আরও বাড়ানোর শেষ সুযোগ পাবেন। রবিবার এবং সোমবার (যদি সেদিন ম্যাচ গড়ায়) অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে শেষবারের মতো বল হাতে নামবেন তারকা ইংরেজ পেসার। যিনি বুঝিয়ে দিলেন যে জেমস অ্যান্ডারসনের মতো পরিণতি চান না। বরং তুখোড় ফর্মে থাকতে থাকতেই ক্রিকেটকে বিদায় জানাতে চান। আর সেটাই করছেন।

```

শনিবার ওভালে তৃতীয় দিনের খেলার শেষে অ্যাশেজের সরকারি সম্প্রচারকারী সংস্থা স্কাই স্পোর্টসে ব্রড বলেন, ‘আগামিকাল (রবিবার) বা সোমবার আমার ক্রিকেট কেরিয়ারের শেষদিন হতে চলেছে। এই যাত্রাটা দুর্দান্ত ছিল। নটিংহ্যামশায়ার (ব্রডের কাউন্টি ক্লাব) এবং ইংল্যান্ডের ব্যাজ পরে মাঠে নামতে পারায় অত্যন্ত গর্বিত বোধ করছি। আমার কেরিয়ারে আমি যতটা ক্রিকেটকে উপভোগ করেছি, এখনও সেরকম করছি। এই দুর্দান্ত সিরিজের অংশ হতে পেরেও ভালো লাগছে। আমি সবসময় শীর্ষে থেকে অবসর নিতে চেয়েছিলাম। এই সিরিজটা অত্যন্ত উপভোগ্য সিরিজ হয়েছে।’

কিন্তু কবে অবসরের সিদ্ধান্ত নিলেন? ব্রড জানান, শুক্রবার রাত ৮টা ৩০ মিনিটে সেই সিদ্ধান্ত নেন। অবসরের বিষয়টা নিয়ে বেশ কিছু সময় ধরে ভাবছিলেন। তিনি বরাবরই চেয়েছিলেন যে কোনও অ্যাশেজ সিরিজে খেলেই অবসর নেবেন। আর ঠিক সেটাই করেছেন। যে বিষয়টা সর্বপ্রথম ইংল্যান্ডের টেস্টে অধিনায়ক বেন স্টোকসকে জানান। তারপর শনিবার সকালে দলের বাকি সদস্যদের নিজের অবসরের কথা ঘোষণা করেন ব্রড।আর এবারর অ্যাশজে দারুণ ছন্দেও আছেন। চারটি টেস্ট এবং ওভালের প্রথম ইনিংস মিলিয়ে মোট ২০টি উইকট নিয়েছেন। যে সংখ্যাটা বাড়ানোর সুযোগ পাবের ব্রড। তারপরও কেন অবসরের ঘোষণা করে দিলেন, তাও ব্যাখ্যা করেন ইংরেজ তারকা। তিনি জানান, এমন সময় অবসর নিতে চেয়েছিলেন, যখন তিনি ক্রিকেটটা উপভোগ করবেন। ক্রিকেটকে বোঝা বলে মনে হবে না। ড্রেসিংরুমও উপভোগ্য হবে।

```

ব্রডের কেরিয়ারের পরিসংখ্যান১) ১৬৭টি টেস্টের ৩০৭টি ইনিংসে ৬০২টি উইকেট নিয়েছেন। গড় প্রায় ২৭। স্ট্রাইক রেট ৫৫-র কাছাকাছি। সেরা বোলিং ফিগার ১৫ রান দিয়ে আট উইকেট।ব্যাট হাতে আবার টেস্টে একটি শতরানও করেছেন (১৬৯ রান)। ১৩টি অর্ধশতরান করেছেন।২) ১২১টি একদিনের ম্যাচ খেলেছেন। নিয়েছেন ১৭৮টি উইকেট। ইকোনমি রেট ৫.২৬। সেরা বোলিং ফিগার ২৩ রানে পাঁচ উইকেট। রান করেছেন ৫২৮। সর্বোচ্চ অপরাজিত ৪৫।৩) আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে ৫৬টি ম্যাচ খেলেছেন। নিয়েছেন ৬৫টি উইকেট। ইকোনমি রেট ৭.৬২। সোরা বোলিং ফিগার ২৪ রানে চার উইকেট। ব্যাটিংয়ে ১১৮ রান করেছেন।