হার্দিক বাদ যেতেই ভারতের নতুন ভাইস ক্যাপ্টেন এর নাম ঘোষণা করলো BCCI, তিনিই ভবিষ্যৎ ক্যাপ্টেন

এবছরের বিশ্বকাপে এখনো পর্যন্ত দুর্দান্ত ছন্দে রয়েছে ভারতীয় ক্রিকেট দল এবং একের পর এক ম্যাচে তারা জয় লাভ করেই চলেছে এমনকি গত সাতটি ম্যাচে তারা সব কটিতেই জয় লাভ করেছে। এখন তাদের সামনে আর দুটি ম্যাচ বাকি রয়েছে। একটি ম্যাচ দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে এবং আরেকটি ম্যাচ নেদারল্যান্ডের বিরুদ্ধে। কিন্তু তার আগেই ভারতীয় দলের কাছে একটি খারাপ খবর এসেছে ভারতীয় দলের জন্য। আর সেটা হল হার্দিক পান্ডিয়াকে আর ভারতীয় দলে পাওয়া যাবে না এই বিশ্বকাপে।

সবমিলিয়ে ভারতীয় দলের যে প্রধান সমস্যা সেটা হলো হার্দিক এর মত কোন ক্রিকেটারকে পাওয়া সম্ভব নয় যে এতটা ভালো ব্যাটিংয়ের সাথে এতটা ভালো পেস বোলিং করে দেবে। ভারতীয় সার্কিটে শিবম দুবে অথবা বিজয় শংকরের মতো ক্রিকেটার রয়েছে কিন্তু তারা ব্যাটিংয়ের দিক দিয়ে কোন ভাবেই হার্দিকের সমতুল্য নয়। এমনকি বোলিংয়ের দিক দিয়েও হার্দিক এর সমান হতে পারবে না তারা। তাই ভারতীয় দলকে পাঁচটি বোলার নিয়েই যেতে হবে, আর হার্দিক এর জায়গায় ব্যাটিং করবে সূর্য কুমার যাদব। পাশাপাশি আজকে ভারতীয় দলের ভাইস ক্যাপ্টেন এর নাম ঘোষণা করা হয়েছে।

```

এই জায়গায় দাঁড়িয়ে ভারতীয় দল ঘোষণা করে দিল আগামীতে ভারতীয় দলের ভবিষ্যৎ ক্যাপ্টেন কে হতে পারে। কারণ আজকে যে ভাইস ক্যাপ্টেন এর নাম ঘোষণা করা হয়েছে কোথাও এটা এক্সপেক্ট করা যেতেই পারে যে তিনি ভবিষ্যতের ক্যাপ্টেন। ভারতীয় দলের ভাইস ক্যাপ্টেন হিসেবে আজকে নাম ঘোষণা করা হয়েছে কেএল রাহুলের। এখানে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ যে রাহুলকেই ভবিষ্যতের অধিনায়ক হিসেবে দেখা হচ্ছে। যদিও শুভমান গিল অথবা শ্রেয়স কে হয়তো তারও পরে ক্যাপ্টেন হিসেবে দেখা হতে পারে।

বর্তমানে ভারতীয় দল খুবই ভালো ফর্মে রয়েছে তবে হার্দিক পান্ডিয়ার ভারতীয় দল থেকে চলে যাওয়ার ফলে ভারতকে এখন শুধুমাত্র পাঁচটা বোলার নিয়েই নামতে হবে। সে ক্ষেত্রে ভারতীয় দলের একটা বোলার কম হয়ে গেল এটা বলাই চলে। আরো একটা সমস্যার ব্যাপার হয়ে দাঁড়ালো যে হার্দিক না থাকার জন্য এখন ভারতীয় দল অতিরিক্ত স্পিনার নিয়ে যেতে পারবে না। ভারতীয় দলের স্পিনার হিসেবে কুলদীপ এবং জাদেজা থাকছেন। এরকমটা আশা করা যাচ্ছে যে তারা প্রত্যেক ম্যাচে খেলবেন। কারণ তাদেরকে ছাড়া ভারতীয় দলের এগোনো মুশকিল।

```

যদি কোন পিচের উপর অস্বীনের দরকার হয় সেক্ষেত্রে কোন পেস বোলারকে বাদ দিয়ে যদি আশ্বিন কে নেওয়া হয় তাহলে ভারতের মাত্র দুটি পেস বোলার থাকছে। সেই জায়গায় কিন্তু হার্দিক থাকলে অতিরিক্ত একটা পেসার থাকতো যাকে যেকোনো সময় দরকার পড়লে ব্যবহার করা যেত।।

পাশাপাশি ভারতীয় দল দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে যে ম্যাচটি খেলছে সেই ইডেন গার্ডেনে সেটিও কিন্তু ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ । কারণ ভারত কোন ম্যাচে পরাজিত হয়নি আবার দক্ষিণ আফ্রিকা একটি ম্যাচ ছাড়া বাকি সমস্ত ম্যাচেই জয়লাভ করেছে।