‘বিরাট একটা চক্রান্ত…’ গোপন তথ্য ফাঁস করে চাঞ্চল্যকর মন্তব্য করলেন রবি আশ্বিন!

দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে টিম ইন্ডিয়া টেস্ট সিরিজ হেরেছে এবং তার পরেই টেস্ট অধিনায়কত্ব থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন অধিনায়ক বিরাট কোহলি। তবে বিসিসিআই অবশ্য বিরাট কোহলির এই সিদ্ধান্তের জন্য মোটেও প্রস্তুত ছিল না। টিম ইন্ডিয়াও এমন কোনও সিদ্ধান্তের প্রত্যাশা করেনি। এমন পরিস্থিতিতে রোহিত শর্মাকে অল ফর্ম্যাটের অধিনায়ক করা হয়। কেএল রাহুল, জসপ্রীত বুমরাহ এবং ঋষভ পন্তের নামও ভবিষ্যতের অধিনায়ক হিসেবে সামনে এসেছে।

এই সবের মধ্যে, অন্য একজন খেলোয়াড়কে অধিনায়ক করা নিয়ে মৃদু আলোচনা হয়েছিল আর তিনি হলেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন। যদিও অধিনায়কত্বের জন্য ৩৬ বছর বয়সি অশ্বিনের নাম প্রকাশ্যে আসেনি। এদিকে আইসিসি ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ২০২১-২৩ ফাইনালে অশ্বিনকে একাদশ থেকেই বাদ দিয়ে দেওয়া হয়। তাঁর নাম একাদশের তালিকাতে অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি। এরপরে একটি সাক্ষাৎকারে অনেক বিষয়ে খোলামেলা কথা বলেছেন অশ্বিন। টেস্ট অধিনায়কত্বের বিষয়ে, অশ্বিন প্রথমবারের মতো মুখ খুলেছেন। এই বিষয়ে প্রথমবার খোলামেলাভাবে নিজের পক্ষ রেখেছেন অশ্বিন।

```

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে অশ্বিন বলেন, ‘অনেক মানুষ আমার সম্পর্কে প্রচার করে যে আমি নাকি অতিরিক্ত চিন্তাকারী। আসলে একজন খেলোয়াড় যে টানা ১৫-২০ ম্যাচ খেলতে পারেন তার অতিরিক্ত চিন্তা করার দরকার নেই। কিন্তু যে মানুষটা জানে যে সে মাত্র দুটি ম্যাচে সুযোগ পাবে, সে কী করবে? সে তো অবাক হবেই এবং স্বাভাবিক ভাবেই সে অতিরিক্ত চিন্তা করবে। কারণ এটাই তাঁর কাজ আর এটাই আমারও কাজ।’ এরপরে অশ্বিন বলেন, ‘যদি কেউ এসে আমাকে বলে যে আপনি ১৫টি ম্যাচ খেলবেন, এবং আপনার যত্ন নেওয়া হবে, খেলোয়াড়দের দায়িত্ব আপনার উপরে থাকবে, আপনি নেতৃত্বের ভূমিকায় থাকবেন, তখন কি আমি অতিরিক্ত চিন্তা করব না! আপনি আমাকে বলুন, আমি কি অতিরিক্ত চিন্তা করব?’

রবিচন্দ্রন অশ্বিন আরও বলেছেন, ‘কারোর এটা বলা ভুল যে কেউ প্রয়োজনের চেয়ে বেশি চিন্তা করে, কারণ সেই ব্যক্তির জীবনের যাত্রা তার নিজের, এবং অন্য কারও এটি নিয়ে মন্তব্য করা উচিত নয়।’ অশ্বিনকে যখন জিজ্ঞাসা করা হয়েছিল যে ‘ওভার থিঙ্কিং’ ট্যাগটি তাঁর ক্ষতি করেছে কিনা, তিনি বলেন, ‘এই ট্যাগটি আমার বিরুদ্ধে ব্যবহার করার জন্য তৈরি করা হয়েছিল, এটা কিন্তু ঠিক নয়?

```

তিনি আরো বলেন, ‘যখন নেতৃত্বের বিষয়টি আমার কাছে আসে তখন কিছু লোক আমার বিরুদ্ধে এসব ব্যবহার করে। ভারতীয় দল যখন বিদেশ সফরে যায় তখন কেউ কেউ বলেছেন যে তালিকার প্রথম পাতায় আমার নাম থাকে না।’