বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচেই দুরন্ত ইনিংসে ইতিহাস গড়লেন ভারতীয় বংশোদ্ভুত রবীন্দ্র !

সারা বিশ্বের ক্রিকেট ভক্তরা যে টুর্নামেন্টের অপেক্ষা করছিল সেই বিশ্বকাপ ২০২৩ এবার শুরু হয়েছে। প্রথম ম্যাচেই মুখোমুখি হয়েছে গতবারের বিশ্বকাপের দুই ফাইনালের দল অর্থাৎ নিউজিল্যান্ড এবং ইংল্যান্ড। আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০২৩ একটি ছক্কা দিয়ে শুরু হয়েছিল। প্রথম ওভারেই ট্রেন্ট বোল্টের বিরুদ্ধে ছক্কা মেরে স্কোরবোর্ডকে গতিশীল করেছিলেন জনি বেয়ারস্টো। এই ম্যাচে ইংল্যান্ড দল এমন এক বিশ্ব রেকর্ড গড়েছে, যা একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আগে কখনও হয়নি। বিশ্বের প্রথম দল হিসেবে তাদের দলের প্রত্যেককেই দুই অংকের রান করতে পেরেছেন। তবে শেষ হাসি হেসেছে নিউজিল্যান্ড।

২০২৩ সালের বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচটি শুরু হয়েছিল গতবারের দুই ফাইনালিস্ট ইংল্যান্ড এবং নিউজিল্যান্ডকে দিয়ে অবশ্যই এই ম্যাচে কিছুটা হলেও ফেভারিট ছিল ইংল্যান্ড কারণ তাদেরকে অন্যতম চ্যাম্পিয়ন দল হিসেবে অনেকে নিজেদের সূচিতে রাখছেন। কিন্তু এই ম্যাচে যেভাবে নিউজিল্যান্ডের দল পারফর্ম করেছে তা রীতিমতো প্রশংসার যোগ্য, বিশেষত তাদের দুই ব্যাটসম্যান কনওয়ে এবং রবীন্দ্র যারা দুরন্ত ব্যাটিং করে ইংল্যান্ডকে রীতিমতো একতরফাভাবে এই ম্যাচে পরাজিত করেছেন। প্রথম উইকেট খুব দ্রুত হারায় নিউজিল্যান্ড কিন্তু তারপরেই পার্টনারশিপ করতে নামেন রবীন্দ্র।

```

প্রথম কয়েকটা ওভার একটু দেখে শুনে পার করে লাগাতার একের পর এক চোখ ধাঁধানো শর্ট খেলতে থাকে নিউজিল্যান্ডের এই দুরন্ত ব্যাটসম্যান। দুরন্ত সেঞ্চুরি করেছেন নিউজিল্যান্ডের ক্রিকেটার ডেভন কনওয়ে, পাশাপাশি জীবনের প্রথম বিশ্বকাপে খেলতে নেমে সেঞ্চুরি করে ফেলেছেন ভারতীয় বংশোদ্ভুত নিউজিল্যান্ডের ক্রিকেটার আর রবীন্দ্র। নয়টি চার এবং চারটি বিশাল ছক্কা দিয়ে মাত্র ৮২ বলে তিনি দুরন্ত সেঞ্চুরি সম্পন্ন করে ফেলেন।

নিউজিল্যান্ডের তরফ থেকে বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচেই সেঞ্চুরি করে ইতিহাস গড়লেন এই যুব ক্রিকেটার। বিশ্বকাপ দলের সুযোগ পেয়ে জীবনের প্রথম ম্যাচেই সেঞ্চুরি করে তাক লাগিয়ে দিলেন রচীন রবীন্দ্র। তবে বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচেই যেভাবে ইংল্যান্ডকে একতরফাভাবে পরাজিত করল নিউজিল্যান্ডের এই দল তা অনেক প্রশ্ন তুলতে শুরু করেছে। এই অনবদ্য পারফরম্যান্স দিয়ে নিজেদেরকে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হওয়ার একটা বড় দাবিদার ঘোষণা করে দিল নিউজিল্যান্ড।

```

যেভাবে দুর্দান্ত পিচ ভারতের মাটিতে পেতে চলেছে দলগুলি তাতে প্রথমে ব্যাট করে ঠিক কত রান করলে সেটা একটা ভালো স্কোর বলা চলবে সেটা কিন্তু একটা বড় প্রশ্নচিহ্নের মুখে। অর্থাৎ প্রথমে ব্যাট করা কতটা সেফ সেটা নিয়ে প্রশ্ন উঠবে তার কারণ আজকে দুটি দলই প্রথমে ব্যাট করতে চাইছিল কিন্তু ইংল্যান্ড টসে যেতে এবং তারা বল করার সিদ্ধান্ত নেয়।।

সবমিলিয়ে এই পারফরমেন্স দিয়ে নিউজিল্যান্ড দল কোথাও না কোথাও বিশ্বকাপে নিজেদেরকে স্পষ্ট দাবিদার হিসেবে আত্মপ্রকাশ করল কারণ ইংল্যান্ডকেই সব থেকে বড় দাবীদার ধরা হচ্ছিল অথচ তাদেরকে রীতিমতো একতরফাভাবে হারিয়ে দিল নিউজিল্যান্ড।