ঐতিহাসিক: বিশ্বকাপ কোয়ালিফায়ারে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারিয়ে ইতিহাস গড়লো জিম্বাবুয়ে!

শনিবারের ম্যাচের আগে ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে শেষ পাঁচটি ম্যাচের মধ্যে চারটিতেই হেরেছিল জিম্বাবোয়ে। অবশেষে ওডিআই বিশ্বকাপে কোয়ালিফাইং টুর্নামেন্টের গ্রুপ লিগের ম্যাচে পালটা দাপট দেখিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে গুঁড়িয়ে দিল জিম্বাবোয়ে। ৩৫ রানে ম্যাচ জিতে তারা পৌঁছে গেল সুপার সিক্স পর্বে। তবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ হেরেও সুপার সিক্সে পৌঁছে গেল।তবে এদিন ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবং জিম্বাবোয়ের লড়াইটা ছিল সম্মানরক্ষারও। আর সেই লড়াইয়ে শেষ হাসি হাসল সিকান্দার রাজারা। তাঁরা গ্রুপ লিগের তিনটি ম্যাচের মধ্যে তিনটিতেই জয় ছিনিয়ে নিল।

ছয় পয়েন্ট নিয়ে আপাতত গ্রুপ-এ’র শীর্ষে রয়েছে জিম্বাবোয়ে।টস হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে জিম্বাবোয়ে ইনিংসের এক বল বাকি থাকতে ২৬৮ রানে অলআউট হয়ে যায়। সর্বোচ্চ রান করেন সিকান্দার রাজা। ৬টি চার এবং ২টি ছক্কার হাত ধরে রাজা ৫৮ বলে ৬৮ রান করেন। রায়ান বার্লও জিম্বাবোয়ের হয়ে হাফসেঞ্চুরি করেন। ৫৭ বলে ৫০ রান করেন তিনি। এ ছাড়া ওপেন করতে নেমে ৫৮ বলে ৪৭ করেছিলেন ক্রেগ আরভিন। উইন্ডিজের কিমো পল ৩ উইকেট নিয়েছেন। ২টি করে উইকেট নিয়েছেন আলজারি জোসেফ, আকিল হোসেন। কাইল মায়ার্স এবং রোস্টন চেজ নিয়েছেন ১টি উইকেট।

```

জবাবে ব্যাট করতে নামলে জিম্বাবোয়ের টেন্ডাই চাতারা, সিকান্দার রাজাদের আগুনে পারফরম্যান্সে ২৩৩ রানে অলআউট হয়ে যায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ওপেন করতে নেমে কাইল মায়ার্স ৭২ বলে ৫৬ রানের ইনিংস খেলেন। রোস্টন চেজ আবার ৫৩ বলে ৪৪ রান করেন। ৩৬ বলে ৩৪ রান করেন নিকোলাস পুরান। ৩৯ বলে ৩০ রান করেন শাই হোপ। ব্রেন্ডন কিং ১২ বলে ২০ রান করেন।

তবে কেউই দলকে জয়ের দোরগোড়ায় নিয়ে যেতে পারেননি। ৩২ বল বাকি থাকতে অলআউট হয়ে যায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। জিম্বাবোয়ের চাতার ৩ উইকেট নিয়েছেন। ব্লেসিং মুজারাবানি, রিচার্ড এনগারাভা, সিকান্দার রাজা ২টি করে উইকেট নিয়েছেন। ওয়েলিংটন মাসাকাদজা ১ উইকেট নিয়েছেন।

```

সব মিলিয়ে জিম্বাবুয়ের দলের এই অবিশ্বাস্য জয় তাদের সেই গৌরব যাবার ফিরিয়ে আনতে চলেছে এই বিষয়টি পরিষ্কার কারণ একটা সময় ছিল যখন জিম্বাবুয়ে একটা ভালো ক্রিকেট দল ছিল, বিশ্বকাপের মতো বড় বড় টুর্নামেন্টে ভারতের মতো দলকে তারা চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিত তবে ধীরে ধীরে তাদের দল আরো দুর্বল হয়ে পড়ে তবে বর্তমানে সিকান্দার রাজাদের চেষ্টায় আবারো সেই গৌরব ফিরিয়ে পাওয়ার চেষ্টা করছে জিম্বাবুয়ে।