শামি,সূর্য্যকে বাদ দিয়ে উমরানকে ফিরিয়ে ৪ পরিবর্তন নিয়ে শক্তিশালী দল নিয়ে মাঠে নামছে ভারত!

তিন ম্যাচের সিরিজে ইতিমধ্যেই ২-০ ব্যবধানে জিতে গিয়েছে ভারত। টিম ইন্ডিয়ার এখন লক্ষ্য নিউজিল্যান্ডকে হোয়াইটওয়াশ করা। আর মঙ্গলবার সেই লক্ষ্য নিয়েই ইন্দোরে শেষ ওডিআই খেলতে নামবে রোহিত শর্মার টিম। রায়পুরে অনুষ্ঠিত আগের ম্যাচে ভারত আট উইকেটে জয় ছিনিয়ে নিয়েছিল। সেই ম্যাচে ভারতীয় বোলারদের দাপটে একেবারে গুড়িয়ে গিয়েছিল কিউয়ি ব্যাটিং অর্ডার।

১০৮ রানে তারা অলআউট হয়ে গিয়েছিল নিউজিল্যান্ড।গত দুই ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে যে পারফরম্যান্স করেছে, ভারত যদি সেটা ইন্দোরে করতে পারে তা হলে কিউয়িরা সিরিজে ক্লিন সুইপ হলে, তাতে অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না।টিম কম্বিনেশনের দিকে তাকালে, ভারত খুব বেশি পরিবর্তন করতে চাইবে না। তবে বোলিং বিভাগে শুধুমাত্র পরিবর্তন হতে পারে। মহম্মদ শামি, যিনি শেষ ওডিআইতে দুরন্ত পারফরম্যান্স করেছিলেন, তাঁর ওয়ার্কলোড কমাতে তাঁকে বিশ্রাম দেওয়া হতে পারে। অর্থাৎ তাঁকে রিজার্ভ বেঞ্চে পাঠিয়ে উমরান মালিককে একাদশে অন্তর্ভুক্ত করা হতে পারে।

জাসপ্রীত বুমরাহ এখনও পিঠের চোটে কাবু। যে কারণে এই মুহূর্তে ভারতের মূল বোলার হলেন শামি। তবে সিরিজটি যেহেতু ইতিমধ্যেই ভারত জিতে গিয়েছে, এবং এটি বিশ্বকাপের বছর, তাই টিম ম্যানেজমেন্ট শামির উপর খুব বেশি চাপ দিতে রাজি নয়। অন্যদিকে উমরা মালিক চলতি সিরিজে এখনও একটি ম্যাচেও খেলার সুযোগ পাননি। এবং তাঁকে শেষ ওডিআই-এ খেলানো হতে পারে।

আমরা যদি কম্বিনেশনের দিকে তাকাই, সে ক্ষেত্রে চোট সংক্রান্ত উদ্বেগ না থাকলে রোহিত শর্মা এবং শুভমান গিলই ওপেন করবেন। বিরাট কোহলি তিন নম্বর নামবেন। এবং সূর্যকুমার যাদব চার নম্বরে নামতে পারেন।কেএল রাহুল অনুপস্থিত থাকায় এবং ঋষভ পন্ত গাড়ি দুর্ঘটনার আহত হয়ে বেশ কয়েক মাসের জন্য ছিটকে যাওয়ায় স্টাম্পের পিছনে ইশান কিষাণই এখন ভরসা। হার্দিক পাণ্ডিয়া দুর্দান্ত ছন্দে রয়েছেন। এবং তিনি ওয়াশিংটন সুন্দরের সঙ্গে অলরাউন্ড বিভাগে নেতৃত্ব দেবেন।

শার্দুল ঠাকুরও অলরাউন্ড বিভাগে খেলার দাবীদার।চোখ থাকবে কুলদীপ যাদবের দিকেও, যিনি দুর্দান্ত ফর্মে রয়েছেন। সে ক্ষেত্রে যুজবেন্দ্র চাহালকে বসিয়ে কুলদীপকেই খেলানো হতে পারে। মহম্মদ সিরাজ এবং শার্দুল ঠাকুরকে সিম বিভাগের দায়িত্ব নিতে দেখা যেতে পারে। এবং উমরান তৃতীয় পেসার হিসেবে দলে থাকতে পারেন।