WWWWWW একা হাতে ইংল্যান্ডকে ধ্বংস করলেন কামিন্স, ৩য় টেস্টে জয়ের দোরগোড়ায় অস্ট্রেলিয়া !

চলতি তৃতীয় অ্যাশেজ টেস্টের দ্বিতীয় দিনে জো রুটকে ফেরান অস্ট্রেলিয়ার পেসার প্যাট কামিন্স। এই নিয়ে টেস্ট ক্রিকেটে দশম বারের মতো ব্রিটিশ তারকা ব্যাটারকে আউট করলেন কামিন্স। খেলার দীর্ঘতমপ ফরম্যাটে আর কোনও বোলার রুটকে এত বেশি বার আউট করতে পারেননি। জশ হ্যাজলেউড এবং নাথান লিয়ন টেস্টে আট বার করে রুটকে আউট করেছেন। সেই দিক থেকে নজির গড়ে ফেললেন কামিন্স।

অ্যাশেজে পরপর দুই টেস্ট হেরেও শিক্ষা হয়নি। তৃতীয় টেস্টেও কিন্তু চাপে ইংল্যান্ড। ব্রিটিশ বোলাররা প্রথম ইনিংসে বিধ্বংসী ছন্দে অস্ট্রেলিয়াকে গুটিয়ে দিয়েছিলেন মাত্র ২৬৩ রানে। মার্ক উড, ক্রিস ওকস, স্টুয়ার্ড ব্রডেরা প্রথম দিনেই একেবারে কাঁপুনি ধরিয়ে দিয়েছিলেন অজি ব্যাটিং অর্ডারে। কিন্তু ব্যাট করতে নেমে ইংল্যান্ড তারকারা চাপে ফেলতে পারলেন না অস্ট্রেলিয়াকে। বরং প্যাট কামিন্সের দাপটে তারা গুটিয়ে গেল মাত্র ২৩৭ রানে। ২৬ রানের লিড পেল অজিরা।

```

প্রথম দিনের শেষে ইংল্যান্ডের স্কোর ছিল ৬৮ রানে ৩ উইকেট। ক্রিজে ছিলেন জো রুট (১৯) এবং জনি বেয়ারস্টো (১)। দ্বিতীয় দিনের প্রথম ওভারেই জো রুটকে আউট করে শুক্রবার শুরুটা দুরন্ত করেন কামিন্স। দ্বিতীয় দিনের প্রথম ওভারের দ্বিতীয় বলেই রুটকে ফিরিয়ে অস্ট্রেলিয়াকে অক্সিজেন দেন কামিন্স। অফ স্টাম্পের বাইরের বলে খোঁচা মেরে আউট হন রুট। প্রথম স্লিপে ডেভিড ওয়ার্নার ক্যাচ ধরতে ভুল করেননি। ১৯ রানেই সাজঘরে ফেরেন রুট।

এরপর অধিনায়ক বেন স্টোকস ছাড়া কেউই সে ভাবে ক্রিজে টিকতে পারেননি। ১০৮ বলে ৮০ রান করেন স্টোকস। বারিদের হাল তথৈবচ। শুক্রবার ইংল্যান্ডের কোনও ব্যাটার ২৫ রানেই পৌঁছাননি। জ্যাক ক্রলি বৃহস্পতিবার ৩৩ রান করে আউট হয়েছিলেন। এটা ইংল্যান্ডের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান। তৃতীয় সর্বোচ্চ মার্ক উডের। ২৪ রান করেছেন তিনি। ২১ রান করেছেন মইন আলি। আর বাকিরা কার্যত গড়াগড়ি খেয়েছে।অজিদের হয়ে প্যাট কামিন্স একাই ৬ উইকেট নিয়েছেন। বেন ডাকেট, হ্যারি ব্রুক, জো রুট, মইন আলি, মার্ক উড, স্টুয়ার্ড ব্রডের উইকেট নিয়েছেন কামিন্স।

```

এছাড়া মিচেল স্টার্ক নিয়েছেন ২ উইকেট। ১টি করে উইকেট নিয়েছেন মিচেল মার্শ এবং টড মারফি।ইংল্যান্ড ব্যাটিংয়ের যা হাল, তাতে তৃতীয় টেস্টে তারা হার বাঁচাতে পারে কিনা সন্দেহ। হেডিংলেতে ফলাফল তো হবেই। কারণ দুই দিনে দু’টি ইনিংস শেষ। দেখার, অজিদের কোণঠাঁসা করে শেষ পর্যন্ত তৃতীয় টেস্টে ইংল্যান্ড প্রত্যাবর্তন করতে পারে কিনা!