জীবনের প্রথম সিরিজেই গম্ভীর ও কোহলির রেকর্ড ভেঙে ইতিহাস গড়লেন তিলক বর্মা!

তরুণ ব্যাটসম্যান তিলক বর্মা আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেকের পর থেকেই আধিপত্য বিস্তার করেছেন। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে ধারাবাহিকভাবে জ্বলছে তাঁর ব্যাট। অভিষেক ম্যাচে ৩৯ এবং দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে ৫১ রান করেছিলেন তিনি। একই সঙ্গে মঙ্গলবার ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে তৃতীয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচেও দারুণ ব্যাটিং করেছেন তিলক বর্মা। গায়ানার প্রোভিডেন্স স্টেডিয়ামে ৩৭ বলের মোকাবেলা করে অপরাজিত ৪৯ রান করেন তিলক বর্মা। ইনিংসে মারেন ৪টি চার ও ১টি ছক্কা। তিলক হয়তো মাত্র এক রানের জন্য এদিন নিজের ফিফটি মিস করেছেন, কিন্তু তিনি এই রান করে গৌতম গম্ভীর এবং বিরাট কোহলির রেকর্ড ছুঁয়ে ফেলেছেন এবং তারকা ক্রিকেটারদের অসামান্য ক্লাবে দক্ষতার সঙ্গে প্রবেশ করেছেন।

আসলে, তিলক বর্মা চতুর্থ ভারতীয় ব্যাটসম্যান যিনি T20 আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অপরাজিত ৪৯ রান করেছেন। প্রাক্তন ভারতীয় ওপেনার গম্ভীর ২০১২ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে একটি T20I ম্যাচে অপরাজিত ৪৯ রান করেছিলেন। একই সময়ে, প্রাক্তন অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান সুরেশ রায়না ২০১৬ সালে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে অপরাজিত ছিলেন এবং ২০২২ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ৪৯ রানের ব্যক্তিগত স্কোরে কোহলি অপরাজিত থেকে সাজঘরে ফিরে এসেছিলেন। তাছাড়া একটি বিশেষ বিষয়ে তিলক বর্মা সূর্যকুমার যাদবের সমকক্ষ করেছেন। তিনি সূর্যকুমারের পর দ্বিতীয় ভারতীয় ব্যাটসম্যান যিনি তাঁর প্রথম তিনটি টি-টোয়েন্টি আন্তর্জাতিক ইনিংসে ৩০ এর বেশি স্কোর করেছেন।

```

এদিন আরও একটি রেকর্ড গড়া হয়েছিল। এদিন পৃথ্বী শ ও ইসান কিষানকে টপকে যান যশস্বী জসওয়াল। ভারতীয় জার্সি গায়ে সবথেকে কনিষ্ঠ ক্রিকেটার হিসাবে আন্তর্জাতিক টি টোয়েন্টি ক্রিকেটে অভিষেক করেন যশস্বী। তিনি এই বিষয়ে পৃথ্বী শ ও ইশান কিষানকে পিছনে ফেলে দিয়েছেন। ২০২১ সালে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক টি টোয়েন্টি ক্রিকেটে নিজের বয়সের ২১ বছর ২৫৮ দিনের মাথায় ভারতীয় সিনিয়র দলের জার্সি গায়ে মাঠে নেমেছিলেন পৃথ্বী শ। এর আগে ২০২১ সালে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে নিজের বয়সের ২২ বছর ২৩৯ দিনের মাথায় সিনিয় দলের জার্সি গায়ে অভিষেক করেছিলেন ইশান কিষান। তবে সকলকে টপকে গেলেন যশস্বী। আন্তর্জাতিক টি টোয়েন্টি ক্রিকেটের মঞ্চে যশস্বী যখনভারতীয় দলের জার্সি গায়ে অভিষেক করল তখন তাঁর বয়স ছিল ২১ বছর ২২৩ দিন।

ম্যাচের কথা বললে, ওয়েস্ট ইন্ডিজ বনাম ভারতের তৃতীয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচ সম্পর্কে কথা বললে, হার্দিক ব্রিগেড এই ম্যাচটি সাত উইকেটে জিতেছে। ১৬০ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ভারতের শুরুটা হতাশাজনক হয়েছিল। অভিষেক হওয়া যশস্বী জসওয়াল (১) সস্তায় উইকেট হারান। শুভমন গিলের (৬) ব্যাট আবারও রান করতে ব্যর্থ হয়। ৩৪ রানে দুই উইকেটের পতনের পর তিলক ও সূর্যকুমার জোরালো জুটি গড়েন। দুজনেই তৃতীয় উইকেটে ৮৭ রান যোগ করেন এবং দলকে ১২০ পেরিয়ে দেন।

```

তিলক বর্মা ও হার্দিক পান্ডিয়া (অপরাজিত ২০) চতুর্থ উইকেটে ৪৩ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়েন। ছক্কা মেরে দলকে জয়ী করেন হার্দিক। এদিনের ম্যাচ ভারত জিতলেও ওয়েস্ট ইন্ডিজ বর্তমানে পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে রয়েছে।