কুলদীপের ড্রিম ডেলিভারিতে দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে বোল্ড ক্যারি, শতাব্দীর সেরা বলের আখ্যা:ভিডিয়ো

অস্ট্রেলিয়ান বিরুদ্ধে সিরিজ জয়ের লক্ষ্যে আজকে নেমেছিল ভারতীয় দল। রীতিমতো লড়াই যে হবে সেটা আগে থেকেই স্পষ্ট ছিল, তবে ভারতীয় স্পিন বোলার কুলদীপ যাদব কে আজকে সুযোগ দেওয়া হয়েছিল দলে। আর বল হাতে রীতিমতো চমকে দেন তিনি। চেন্নাইয়ে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে সিরিজের তৃতীয় ওয়ান ডে ম্যাচে যে বলটিতে অ্যালেক্স ক্যারির স্টাম্প নাড়িয়ে দেন কুলদীপ যাদব, একজন স্পিনারের কাছে স্বপ্নের ডেলিভারি হিসেবে বিবেচিত হবে নিশ্চিত। ধারাভাষ্য দিতে বসে সুনীল গাভাসকরের মতো কিংবদন্তি কুলদীপের এই ডেলিভারিটিকে শতাব্দীর অন্যতম সেরা বলের তকমা দিতেও কুণ্ঠাবোধ করেননি।

চিপকে প্রথম ইনিংসের ৩৮.১ ওভারে কুলদীপ রীতিমতো বোকা বানিয়ে বোল্ড করেন অজি উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যানকে। কুলদীপের বল লেগ-স্টাম্পের বাইরে ড্রপ করে। স্বাভাবিকভাবেই ব্যাটের ফেস লেগ সাইডে করে ডিফেন্স করার চেষ্টা করেন ক্যারি। তবে বল পিচে পরেই বড় বাঁক নেয়। ব্যাটের মুখ ঘুরিয়েও ক্যারি নাগাল পাননি বলের। শেষমেশ বল গিয়ে লাগে অল-স্টাম্পের একেবারে মাথায়। এই অবিশ্বাস্য ডেলিভারিতে আউট হয়ে রীতিমত চমকে গেছেন অস্ট্রেলিয়ার দুর্দান্ত ব্যাটসম্যান। নিজেকে রীতিমতো দুর্ভাগ্যের শিকার বলতেই পারেন তিনি, আর এই ভিডিওটি চরম ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়াতে ইতিমধ্যে।

```

লেগ স্টাম্পের বাইরে থেকে বল ঘুরে অফ-স্টাম্পে লাগছে, এটা দেখেই বুঝে যাওয়া উটিত বল কতটা টার্ন নিয়েছে। ভারতের পিচে স্পিনারদের বল হামেশাই ঘুরতে দেখা যায়। তবে এমন যথাযথ জায়গায় বল রেখে কুলদীপ যেভাবে বোল্ড করেন ক্যারিকে, তার প্রশংসা না করে পারেননি ধারাভাষ্যকাররা। দেখুন ভিডিও :

ক্যারি ব্যক্তিগত ৩৮ রানের মাথায় আউট হয়ে মাঠ ছাড়েন। ৪৬ বলের ইনিংসে তিনি ২টি চার ও ১টি ছক্কা মারেন। কুলদীপ ম্যাচে ডেভিড ওয়ার্নার ও মার্নাস ল্যাবুশানের উইকেট দু’টিও তুলে নেন। তিনি ১০ ওভারের বোলিং কোটায় ১টি মেডেন-সহ ৫৬ রান খরচ করে ৩টি উইকেট পকেটে পোরেন। কুলদীপ হার্দিক পান্ডিয়ার বলে ট্রেভিস হেডের অনবদ্য ক্যাচও ধরেও।

```

টস জিতে শুরুতে ব্যাট করে অস্ট্রেলিয়া ২৬৯ রানে অল-আউট হয়ে যায়। মিচেল মার্শ দলের হয়ে সব থেকে বেশি ৪৭ রান করেন। এছাড়া ট্রেভিস হেড ৩৩, ডেভিড ওয়ার্নার ২৩, মার্নাস ল্যাবুশান ২৮, মার্কাস স্টইনিস ২৫, সিয়ান অ্যাবট ২৬, অ্যাস্টন এগর ১৭, মিচেল স্টার্ক ১০ ও অ্যাডাম জাম্পা অপরাজিত ১০ রান করেন। খাতা খুলতে পারেননি ক্যাপ্টেন স্টিভ স্মিথ।