বড় খবর: চোট থেকে মুক্তি, ওয়েস্ট ইন্ডিজ টসে জিতে ভারতকে প্রথমে ব্যাট করতে ডাকে এবং ভারতীয় দল ৪৩৮ রান করে

প্রথম ম্যাচে জয় লাভের পরে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় ম্যাচেও রীতিমতো দাপট দেখিয়েছে ভারতীয় দল এবং বর্তমানে টিম ইন্ডিয়া কমান্ডিং পজিশনে রয়েছে এবং সেখান থেকে এই ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে জিততে গেলে ঐতিহাসিক কিছু করে দেখাতে হবে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের তরফ থেকে লড়াই দেখতে পেলেও তা যথেষ্ট বলে মনে হচ্ছে না, এরকম মুহূর্তে দাড়িয়ে হাফ চান্সগুলোকেও পুরো চান্সে কনভার্ট করে নিচ্ছি টিম ইন্ডিয়া যার মধ্যে অন্যতম আজিঙ্ক্যা রাহানের অনবদ্য একটি ক্যাচ।

প্রথমেই জানিয়ে রাখবো যে ওয়েস্ট ইন্ডিজ টসে জিতে ভারতকে প্রথমে ব্যাট করতে ডাকে এবং ভারতীয় দল ৪৩৮ রান করে বিরাট কোহলি সেঞ্চুরির দৌলতে। এর জবাবে ব্যাক করতে নেমে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ইনিংস ২৫৫ রানের শেষ হয়ে যায়, ম্যাচের তৃতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে ভারতীয় দল টি-টোয়েন্টি খেলা শুরু করে এবং সামান্য সময়ের মধ্যে একটা বড় লিড দিয়ে দেয় ওয়েস্ট ইন্ডিজকে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের জন্য ভারতীয় দল টার্গেট দেয় ৩৬৫ রান, এই রানের জবাবে তারা করতে নেমে ৭৬ রানে ২ উইকেট হারিয়ে ফেলে ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবং শেষ দিনে ভারতকে জিততে হলে দরকার ৮ উইকেটের। আর ওয়েস্ট ইন্ডিজের উইকেট হারানোর দেওয়ার অন্যতম কান্ডারী ছিলেন রাহানে।

```

তিনি ফিল্ডিং করছিলেন স্লিপে এবং হঠাৎ করে একটি ক্যাচ চলে যায়, স্পিনারের ক্ষেত্রেও স্লিপে ক্যাচ লোফার অত্যন্ত কঠিন কারণ স্লিপ খুব কাছে দাঁড়িয়ে থাকে। প্রথমে দেখে এটাই মনে করা হচ্ছিল যে বলটি তাকে পেরিয়ে চলে গেছে কিন্তু তার সত্বেও নিজেকে পার করে যাওয়া বল কে হাত বাড়িয়ে যেভাবে তিনি ক্যাচটি করলেন তা রীতিমতো প্রশংসার যোগ্য। দেখে নিন সেই ভিডিও:

ভারতীয় দলের তরফ থেকে এই ম্যাচে অনবদ্য পারফরম্যান্স দেখতে পাওয়া গেছে, ভারতের প্রত্যেকটি ব্যাটসম্যান এবং বোলা নিজেদের দায়িত্ব মত কাজ করেছেন, পাশাপাশি মুকেশ কুমার যিনি বাংলার হয়ে ক্রিকেট খেলে থাকেন তিনিও এই ম্যাচের প্রথম টেস্ট ক্রিকেট খেলার সুযোগ পেয়েছেন এবং উইকেট পেয়েছেন।

```

এই ম্যাচে ভারতীয় দলের জয় লাভ করা শুধুমাত্র সময়ের ব্যাপার যেখানে মোহাম্মদ সিরাজ জানিয়েছেন যে কিভাবে পিচে বল ঘুরছে শেষ দিনে বেশ কিছু উইকেট আশ্বিনের কপালে রয়েছে।