ফিকে হল ইংল্যান্ডের ব্যাজবল,রোহিত কিষাণদের তাণ্ডবে শ্রীলঙ্কার ২২ বছরের রেকর্ড ভেঙে ইতিহাস ভারতের!

ব্যাটসম্যান হিসেবে ব্রেন্ডন ম্যাকালাম অত্যন্ত ডাকাবুকো ছিলেন। নিজে আগ্রাসী ব্যাটসম্যান ছিলেন বলেই কোচ হওয়ার পরে ইংল্যান্ডের ক্রিকেটারদের মানসিকতা বদলে দেন তিনি। ম্যাকালামের কোচিংয়ে টেস্টে ব্রিটিশ ক্রিকেটারদের যেমন মারকাটারি ব্যাটিং করতে দেখা যায় সাম্প্রতিক সময়ে, সেই ব্যাজবল ক্রিকেটে মজেছে ক্রিকেট বিশ্ব।তবে ব্যাটসম্যান হিসেবে রাহুল দ্রাবিড় যে কোনওভাবেই ম্য়াকালামের মতো আগ্রাসী মেজাজের ছিলেন না, সেটা আলাদা করে বলে দেওয়ার প্রয়োজন হয় না। বরং দ্রাবিড়কে ঠান্ডা মাথার খুনে মেজাজের ক্রিকেটার বললে ভুল বলা হয় না মোটেও। ধীর-স্থির রাহুল দ্রাবিড়ের কোচিংয়ে টিম ইন্ডিয়া যদি টেস্টে টি-২০ ক্রিকেটের মেজাজে ব্যাট করে, তবে ক্রিকেটপ্রেমীদের অবাক হওয়াই স্বাভাবিক।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় টেস্ট ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে ভারত যেখানে ভারতীয় দলের দাপট দেখা গেছে প্রথম থেকে শুরু করে দ্বিতীয় ইনিংস পর্যন্তই, যতটা দ্রুত খেলার দরকার ছিল না তার থেকেও বেশি দ্রুত খেলে অনবদ্য রেকর্ড গড়েছে ভারতীয় দল যার অন্যতম কান্ডারী রোহিত শর্মা, জসওয়ালরা। পোর্ট অফ স্পেনে রোহিত শর্মারা ঠিক সেভাবেই চমকে দিলেন ক্রিকেটবিশ্বকে।কুইন্স পার্ক ওভালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে যে রকম ধুমধাড়াক্কা ব্যাটিং করেন টিম ইন্ডিয়ার দুই ওপেনার, তাতে ফিকে দেখায় ব্যাজবলকেও। এমনকি গত বছরে গড়া ইংল্যান্ডের একটি টেস্ট রেকর্ডও ভেঙে চুরমার করে ভারত।

```

সেই সঙ্গে টিম ইন্ডিয়া ভেঙে দেয় ২২ বছর আগে গড়া শ্রীলঙ্কার একটি সর্বকালীন টেস্ট রেকর্ড।আসলে ভারত দলগতভাবে টেস্ট ইনিংসে দ্রুততম ১০০ রান করার বিশ্বরেকর্ড গড়ে ত্রিনিদাদে। এই ম্যাচের দ্বিতীয় ইনিংসে টিম ইন্ডিয়া ১২.২ ওভারে দলগত ১০০ রানের গণ্ডি টপকে যায়। অর্থাৎ, মাত্র ৭৪ বলে দলগত ১০০ রান পূর্ণ করে ভারত।এত কম বলে টেস্ট ইনিংসে দলগত ১০০ রানে পৌঁছতে পারেনি আর কোনও দেশ।এর আগের রেকর্ড ছিল শ্রীলঙ্কার নামে। ২০০১ সালে কলম্বোয় বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ১৩.২ ওভারে অর্থাৎ, ৮০ বলে দলগত ১০০ রান পূর্ণ করে শ্রীলঙ্কা।

সুতরাং, দ্বীপরাষ্ট্রের দুই দশকের পুরনো রেকর্ড ভেঙে যায় পোর্ট অফ স্পেনে।ভারত শেষমেশ ২৪ ওভারে ২ উইকেটের বিনিময়ে ১৮১ রান তুলে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট ছেড়ে দেয়। ৪টি চার ও ২টি ছক্কার সাহায্যে ৩৩ বলে ব্যক্তিগত অর্ধশতরানের গণ্ডি টপকান ইশান কিষান। রোহিত শর্মা ব্যক্তিগত হাফ-সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন ৩৫ বলে।

```

ভারত ইনিংসের প্রথম ১০ ওভারে ৯০ রান তোলে, যা টেস্টর ইতিহাসে সর্বকালীন রেকর্ড। টিম ইন্ডিয়া এক্ষেত্রে পিছনে ফেলে দেয় ইংল্যান্ডকে। গতবছর পাকিস্তানের বিরুদ্ধে টেস্ট ইনিংসের প্রথম ১০ ওভারে ৮০ রান তুলেছিল ইংল্যান্ড। সব মিলিয়ে এই ম্যাচে ভারতীয় দলের জয়লাভ করা যে শুধু সময়ের অপেক্ষা, এই বিষয়টা পরিষ্কার, যদিও ওয়েস্ট ইন্ডিজের হাতে এখনো আটটি উইকেট রয়েছে তবে ভারতীয় বোলিংয়ের সামনে টিকতে পারবে এর সম্ভাবনা কম।