ব্যবহার করা যায় না লালা,জ্যাক লিচের টাকে বল ঘষে জাদুর চেষ্টায় রুট! ভাইরাল ভিডিয়ো

লালা ব্যবহার করার নিয়ম নেই। তাই পাকিস্তানের বিরুদ্ধে প্রথম টেস্টে বল পালিশ করতে নয়া উপায় বের করলেন ইংল্যান্ডের প্রাক্তন অধিনায়ক জো রুট। সতীর্থ স্পিনার জ্যাক লিচের টাকে বল ঘষতে দেখা গেল তাঁকে। যে ভিডিয়ো সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। রুটের কীর্তি দেখে হেসে খুন হয়েছেন ধারাভাষ্যকাররাও।

রাওয়ালপিণ্ডির যে পিচে পাকিস্তান-ইংল্যান্ডের প্রথম টেস্ট হচ্ছে, তা ক্রিকেট খেলার পিচ নাকি জাতীয় সড়কের কংক্রিট রাস্তা, তা রীতিমতো বোঝা দায়। বোলারদের জন্য পিচে ছিঁটেফোটা কিছু নেই। পুরো ব্যাটিংয়ের স্বর্গরাজ্যের পিচে প্রথম ইনিংসে পাকিস্তানের বোলারদের উপর ছড়ি ঘুরিয়েছিলেন ইংরেজ ব্যাটাররা। একইভাবে জেমস অ্যান্ডারসন ও ইংরেজ বোলারদের শাসন করেছে পাকিস্তান। প্রথম উইকেটে ২২৫ রান যোগ তোলেন আবদুল্লা শফিক এবং ইমাম-উল-হক। কিছুক্ষণ পর দ্বিতীয় উইকেট হারায় পাকিস্তান।

তারইমধ্যে ৭২ তম ওভারের শুরুতে এক উদ্ভট কাণ্ড করেন রুট। কে বল করবেন, তা নির্ধারণের মধ্যে লিচের মাথায় বল ঘষতে থাকেন রুট। সেই ভিডিয়ো সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। ভিডিয়োয় দেখা গিয়েছে, লিচের মাথায় বল ঘষছেন ইংল্যান্ডের প্রাক্তন অধিনায়ক। কিছুক্ষণ বল ঘষার পর ইংল্যান্ড স্পিনারের মাথায় টুপি পরিয়ে বল দেখতে-দেখতে চলে যান রুট। তারপর নিজের জামাতেও বল ঘষতে থাকেন। দেখুন ভিডিও:

সেই দৃশ্য দেখে হাসতে থাকেন ধারাভাষ্যকাররা। কমেন্ট্রি বক্সে থাকা ইংল্যান্ডের প্রাক্তন অধিনায়ক নাসের হুসেন বলেন, ‘আমার মনে হয়, লিচের টাকে ঘষে বল পালিশ করছে রুট।’ যে কথা শুনে হেসে ফেলেন নাসেরের সতীর্থ ধারাভাষ্যকাররাও। একজন বলেন, ‘এটা চরম।’ নাসের আবার মজা করে বলেন, ‘ওরা আমার দিকে তাকায়নি। আমার দিকে তাকাবেও না।’এক ধারাভাষ্যকার আবার বলেন, ‘অত্যন্ত বুদ্ধিমানের কাজ (করেছে রুট)। দুর্দান্ত। কারণ এখন বলে লালা (করোনাভাইরাসের কারণে ১ অক্টোবর থেকে নিষিদ্ধ করে দিয়েছে আইসিসি) ব্যবহার করা যায় না।

পরীক্ষায় দেখা গিয়েছে, বল পালিশ করার ক্ষেত্রে লালার থেকে ঘাম অনেক বেশি কার্যকরী। কিন্তু আমি কখনও ভাবিনি যে বল পালিশের জন্য এটা ব্যবহার করা হবে।’নেটিজেনরাও সেই ভিডিয়ো দেখে হাসি থামাতে পারছেন না। এক নেটিজেন বলেন, ‘আইসিসি: বলে লালা ব্যবহার করা যাবে না। জ্যাক লিচ: অপেক্ষা কর।’ অনেকে আবার সরাসরি ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে বল বিকৃতির অভিযোগ তুলেছে। এক নেটিজেন বলেন, ‘সোজা-সোজা বল যে বল বিকৃতি করছে।’